মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩

অবসরে যাচ্ছেন ‘র‍্যাম্বো’

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৩৪ পিএম

অবসরে যাচ্ছেন ‘র‍্যাম্বো’

সোনালীনিউজ ডেস্ক

 

 
সম্প্রতি হলিউডের ‘র‍্যাম্বো’খ্যাত অ্যাকশন হিরো সিলভেস্টার স্ট্যালন  জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে তিনি আর কোনো ‘র‍্যাম্বো’ ছবিতে অভিনয় করবেন না!

অবশ্য বছর খানেক ধরেই শোনা যাচ্ছিল, ‘র‍্যাম্বো’ সিরিজের পঞ্চম ধাপের গল্প নিয়ে কাজ শুরু করেছেন স্ট্যালন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত জানা গেছে, অবসরেই যাচ্ছেন ‘র‍্যাম্বো’।

এ বিষয়ে সম্প্রতি ভ্যারাইটি ডটকমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে স্ট্যালন জানান, ২০০৮ সালে ‘র‍্যাম্বো-৪’ যেখানে ছবিটাকে ছেড়ে গেছে, তাতেই তিনি সন্তুষ্ট। ৭০ বয়সী এই অ্যাকশন হিরো মনের দিক থেকে এখনো তরুন। অবশ্য স্টালিন স্বীকার করেছেন মন চাইলেও শরীরটা এখন আর আগের মত সায় দেয় না। তাই অবসরে যাওয়ার চিন্তা। অনেক তো হলো এবার বিশ্রামে যাওয়ার সময় হয়েছে।

স্ট্যালন আরও বলেন, অ্যাকশন ছবি হিসেবে বর্মিদের (মায়ানমারের জনগণ) ব্যাপারটি নিয়ে কাজ করতে পেরে আমি সন্তুষ্ট। যদিও গৃহযুদ্ধটা ছিল ভীষণ বর্বর। তবে চরিত্রটা খুব মন দিয়ে করেছিলাম যাকে প্রকৃত বিষয়টি ফুটে ওঠে। ছবিটি করার সময় বারবার ভেবেছিলাম, এটাই হবে এই সিরিজে এই চরিত্রে আমার শেষ অভিনয়।’
এ প্রসঙ্গে স্ট্যালন বলেছেন, লক্ষ্য অর্জন হওয়ার পর আমি আর দ্বিতীয়বার কাজটি করার জন্য তেমন কোনো স্পৃহা পাইনি।’
উল্লেখ্য,‘র‍্যাম্বো’ সিরিজের প্রথম ছবিতে ১৯৮২ সালে প্রথম নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন সিলভেস্টার স্ট্যালন। ২০০৮ সালে সিলভেস্টার স্ট্যালনের অভিনয় এবং পরিচালনায় ‘র‍্যাম্বো’ সিরিজের চতুর্থ ছবিটি মুক্তি পায়। এরপর এই সিরিজের সঙ্গে সম্পৃক্ততার খবর শোনা গেলেও এখন তা সঠিক নয় বলেই জানা গেছে। এমনকি, ‘র‍্যাম্বো’ টিভি সিরিয়ালের সঙ্গেও তাঁর কোনো ধরনের সম্পৃক্ততা নেই বলেই জানিয়েছেন এই অভিনেতা।
তবে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ‘ফক্স’-এর ব্যানারে ‘র‍্যাম্বো’-এর ছেলেকে নিয়ে কাজ করা প্রসঙ্গে স্ট্যালন বলেছেন, ‘আমি কারও দুর্নাম করতে চাই না, তবে আমার মনে হয়, কোনো চরিত্রের সন্তানকে সেই চরিত্রের জায়গায় বসানোর চেষ্টাটা খুব গুরুত্বপূর্ণ কিছু নয়। আমি দেখেছি ‘টারজান’-এর ছেলে, ‘কিং কং’-এর ছেলে, ‘গডজিলা’-এর ছেলেকে। এটা খুবই কঠিন ও প্রায় অসম্ভব একটা বিষয়।’ টিএমজি। মিড ডে।

 

Sonali Bazar
add-sm
Sonali Tissue
মঙ্গলবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭, ১৫ ফাল্গুন ১৪২৩