বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

অস্ত্রের বিজ্ঞাপন মুছে ফেলছে ফেসবুক

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৮ পিএম

অস্ত্রের বিজ্ঞাপন মুছে ফেলছে ফেসবুক

বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ডেস্ক

অস্ত্র বিক্রির বিজ্ঞাপন সম্বলিত পাতাগুলো মুছে দিচ্ছে ফেসবুক। প্রভাবশালী ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান খবরটি নিশ্চিত করেছে। এ বছর জানুয়ারির শেষ সপ্তাহেই ফেসবুকে নিষিদ্ধ হয় আগ্নেয়াস্ত্রের বিজ্ঞাপন। সেই সিদ্ধান্তের ধারাবাহিকতায় অস্ত্র বিক্রির বিজ্ঞাপন মুছে দিচ্ছে সামাজিক যোগাযোগের শীর্ষ জনপ্রিয় এই মাধ্যম।

উল্লেখ্য, এর আগে দ্য টাইমএস পত্রিকায় প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে দাবি করা হয়, ফেসবুককে ব্যবহার করে গোপন অস্ত্র ব্যবসায়ী গ্রুপ যুক্তরাজ্যে তৈরি করা রিভলবার, রাইফেল এবং সাব মেশিনগানসহ বিভিন্ন অস্ত্র ব্রিক্রি করছে। টাইমস এর খবরে বলা হয়, ওইসব অস্ত্রের পাশাপাশি ইএরাপ-রাশিয়া এবং যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি অ্যান্টি ট্যাংক উইপন, রকেট লাঞ্ছার, ভারি মেশিনগান, গ্রেনেড লাঞ্ছার বিক্রিতেও ফেসবুককে বিজ্ঞাপনের স্থান হিসেবে ব্যবহার করা হয়।

এদিকে দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনেও ফেসবুকে দেওয়া বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অস্ত্র বিক্রির প্রসঙ্গটি উঠে আসে।  নিউ ইয়র্ক টাইমস জানায়, ফেসবুককে তারা সন্দেহভাজন অস্ত্রব্যবসায়ীদের এমন ৭টি গ্রুপ সম্পর্কে জানিয়েছেন এবং ফেসবুক তাদের ৬টি অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দিয়েছে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ফেসবুকের পক্ষ থেকে এর একজন মুখপাত্র বলেন, ‘আমাদের নীতিবিরুদ্ধ কোনও কিছুর কথা জানার সঙ্গে সঙ্গেই আমরা ব্যবস্থা নিয়ে থাকি। এই সপ্তাহে ওই প্রতিবেদন প্রকাশের পরপরই আমরা ওই একাউন্টগুলো মুছে দিয়েছি।’

জানুয়ারিতে আগ্নেয়াস্ত্র কেনার ক্ষেত্রে কড়াকড়ি আরোপ করে নির্বাহী ক্ষমতাবলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নতুন নীতিমালা ঘোষণা করার তিন সপ্তাহ পর আগ্নেয়াস্ত্রের বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করে ফেসবুক। আইডি পরীক্ষা ছাড়া ফেসবুকের মাধ্যমে আগ্নেয়াস্ত্রের বেচাকেনা আগেই নিষিদ্ধ হয়েছিলো। তবে জানুয়ারিতে সাইটটির মাধ্যমে আগ্নেয়াস্ত্রের সব ধরনের বাণিজ্যকেই নিষিদ্ধ করা হয়। তখন বলা হয়, অবৈধ মাদক ও ওষুধ বিক্রির ওপর যে নিয়ম আরোপ করা হয়েছিলো এখন থেকে সে একই নিয়ম আরোপিত হবে আগ্নেয়াস্ত্রের ক্ষেত্রেও।

উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরেই ফেসবুকের মাধ্যমে অস্ত্র কেনা বেচার বিরোধিতা করে আসছিলো আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের পক্ষের সংগঠনগুলো। আগ্নেয়াস্ত্র কিনে সহিংসতা চালানোর ইচ্ছে পোষণকারী মানুষদের জন্য ফেসবুক একটি অনলাইন প্ল্যাটফর্ম উল্লেখ করে সমালোচনা জানিয়ে আসছিলো তারা। তবে ২০১৪ সালে আগ্নেয়াস্ত্রের বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে সীমাবদ্ধতা আরোপের পর ফেসবুকের ব্যাপক সমালোচনা করে আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ন্ত্রণের বিরোধী পক্ষ এনআরএ। তবে ফেসবুকের নতুন সিদ্ধান্তের ব্যাপারে কোনও মন্তব্য করেনি তারা। সূত্র: দ্য গার্ডিয়ান

সোনালীনিউজ/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩