রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

আইপিএলে বিলম্বিত অভিষেক, তবুও খুশি লামিচান

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৩ মে ২০১৮, রবিবার ০৭:১১ পিএম

আইপিএলে বিলম্বিত অভিষেক, তবুও খুশি লামিচান

ঢাকা: ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) অভিষেক হতে দেরি হলেও হতাশা কাবু করতে পারেনি নেপালের লেগ-স্পিনার ও দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের স্পিনার সন্দ্বীপ লামিচানকে। তিনি বলেন, ‘ম্যাচের আগের দিন টিম মিটিং-এ কোচ ও অধিনায়ক ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে আমাকে খেলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। খেলতে পেরেই খুশি, দেরিতে হলেও আমি হতাশ হইনি।’

প্রথমবারের মত আইপিএলে’র চলতি আসরের নিলামে নাম উঠে লামিচানের। নেপালের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে আইপিএল নিলামে জায়গা পান তিনি। প্রথম নিলামেই বাজিমাত করেন ১৭ বছর বয়সী এই স্পিনার। ভিত্তি মূল্য ২০ লাখ রুপিতেই লামিচানকে কিনে নেয় দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। তবে মাঠে নামতে দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হয়েছে লামিচানকে।

আইপিএলে দিল্লির প্রথম ১১ ম্যাচের একাদশে সুযোগ পাননি লামিচান। অবশেষে গতকাল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে দিল্লীর একাদশে সুযোগ পান তিনি। আইপিএলে নিজের প্রথম ম্যাচে নিজের সেরাটাই দিয়েছেন লামিচান। বল হাতে ইনিংস উদ্বোধন করে ৪ ওভারে ২৫ রান দিয়ে ১ উইকেট শিকার করেন এখনো জাতীয় দলের হয়ে কোন আন্তর্জাতিক ম্যাচ না খেলা লামিচান। ৪ ওভারে ১০টি ডট বলও দিয়েছেন তিনি।

দীর্ঘদিন অপেক্ষার পর আইপিএলে খেলতে নামলেও হতাশ হননি লামিচান। দলের সাথে গেল এক-দেড় মাস ভালো কেটেছে বলে জানান তিনি, ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হলো আপনি কিভাবে প্রতিনিয়ত শিখছেন। গেল এক-দেড় মাস এখানে আমার ভালো সময় কেটেছে। আমি অনেক কিছু শিখেছি। আমারা একজন ব্যতিক্রমী কোচ এবং একজন ভালো অধিনায়ক পেয়েছি। সকল খেলোয়াড়ই খুব ভালো। আমি খুবই ভাগ্যবান, তবে আমার জীবনে এই মুহূর্ত সহজে আসেনি। আমাকে এখনো অনেক পথ যেতে হবে, আমাকে কঠোর পরিশ্রম করতে হবে।’

অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কও তার প্রশংসা করেছেন জানিয়ে লামিচান বলেন, ‘আইপিএল চলা অবস্থায় তার সঙ্গে ঘনিষ্টভাবে মেশার সুযোগ হয়েছে, তিনি বলেছেন, আজ খুবই ভালো পারফরমেন্স করেছো। কিন্তু আমি হতাশ। কারণ দলের জয়টাই সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ।’

ব্যাঙ্গালুরুর কাছে ৫ উইকেটে ম্যাচ হারে দিল্লি। টস হেরে প্রথমে ব্যাট করে ঋসভ পান্থের ৩৪ বলে ৬১ ও অভিষেক ম্যাচ খেলতে নামা ১৭ বছর বয়সী অভিষেক শর্মার ১৯ বলে ৪৬ রানের সুবাদে ২০ ওভারে ৪ উইকেটে ১৮১ রান করে দিল্লি। জবাবে অধিনায়ক বিরাট কোহলির ৪০ বলে ৭০ ও দক্ষিণ আফ্রিকার এবি ডি ভিলিয়ার্সের ৩৭ বলে অপরাজিত ৭২ রানে ম্যাচ জয়ের স্বাদ নেয় ব্যাঙ্গালুরু।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue