রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮, ১৩ ফাল্গুন ১৪২৪

আড়াই দিনে হারিয়ে বাংলাদেশকে লজ্জা দিল শ্রীলঙ্কা

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, শনিবার ০৭:৩৯ পিএম

আড়াই দিনে হারিয়ে বাংলাদেশকে লজ্জা দিল শ্রীলঙ্কা

ঢাকা: ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে থেকেই শ্রীলঙ্কা মাঠে নামলেই বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ শুধু শ্রীলঙ্কা থাকে না, চন্ডিকা হাথুরুসিংহেও। ত্রিদেশীয় সিরিজ বাংলাদেশকে গলা ধাক্কা দিয়ে সিরিজ পকেটে পুরেছিল হাথুরুর শীষ্যরা। চট্টগ্রাম টেস্টেও সেটি হতে দেয়নি মুমিনুল হকরা। কিন্তু ঢাকা টেস্টে আড়াই দিনে হেরে যা মানস্মান ছিল সবই চলে গেল! বাংলাদেশ হেরে গেল ২১৫ রানে।

শেষ কবে ঘরের মাঠে বাংলাদেশ এমন বিপদে পড়েছিল জানতে পরিসংখ্যানের পাতা উল্টাতে হবে। বাংলাদেশ যেন নিজেদের ফাঁদা গর্তেই পড়ে গেল। স্পিনিং ট্রাক বানিয়ে অস্ট্রেলিয়া-ইংল্যান্ডকে ধরাশায়ী করা যেতে পারে কিন্তু উপমহাদেশের দল শ্রীলঙ্কাকে যে সেটি করা যাবে না সেটিই কেউ বুঝতে পারল না।

কারণ বাংলাদেশের দলটি যেমন সাফল্যের জন্য স্পিনারদের ওপর নির্ভরশীল, শ্রীলঙ্কাও তাই। বাংলাদেশের মিরাজ-তাইজুলরা যেমন আছেন ওদের আছে রঙ্গনা হেরাথ-আকিলা ধনঞ্জয়ারা। এই সরল ব্যাপারটিই বাংলাদেশ ধরতে পারল না? এমন স্পিনিং ট্র্যাক বানানো হলো যেখানে তামিম-ইমরুলরাই ফাঁদে পড়ে ছটফট করতে লাগলেন! এটা যে বাংলাদেশ টিম ম্যানেজম্যান্টের নির্বুদ্ধিতার পরিচয়, সেটি বুঝতে ক্রিকেট পন্ডিত হওয়া লাগে না!

আগের দিন ৮ উইকেটে ২০০ রান নিয়ে দিন শেষ করেছিল শ্রীলঙ্কা। শনিবার তৃতীয় দিনে লঙ্কানরা টিকতে পেরেছে ১১.৫ ওভার। তারা ২২৬ রানেই গুটিয়ে যায়। ২টি উইকেটই তুলে নিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। এতে বাংলাদেশের সামনে চতুর্থ ইনিংসে জয়ের লক্ষ্য দাঁড়ায় ৩৩৯ রান। শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে কোনও দলই এত রান তাড়া করে জিততে পারেনি।

যার ওপর অনেক বেশি আশা ছিল সেই তামিম ইকবাল (২) স্কোরবোর্ডে ৩ রান উঠতেই ফিরে গেছেন দিলরুয়ান পেরেরার বলে এলবিডব্লু হয়ে। ইমরুল কায়েসও মাটি কামড়ে পড়ে থাকতে পারেননি। ৪৯ রানে তাঁকে ফিরিয়েছেন রঙ্গনা হেরাথ। এই দুজনের বিদায়ের পর চট্টগ্রামে জোড়া সেঞ্চুরি হাঁকানো মুমিনুল হকের ওপর বড় ভরসা ছিল বাংলাদেশের। তিনিও ব্যক্তিগত ৩৩ রানে ফিরে গেলেন। মুমিনুলকে হেরাথ ফিরিয়েছেন ডিকওয়েলার ক্যাচ বানিয়ে। অবশ্য মুমিনুলের আগেই ফিরে গেছেন লিটন দাস (১২)। অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ (৬) এসে মুশফিকের সঙ্গে জুটি বাধার আগেই ড্রেসিংরুমের রাস্তা ধরলেন। ধনঞ্জয়ার বলে তিনি করুনারত্নের হাতে ক্যাচ দিয়েছেন।

এরপর বাংলাদেশের ইনিংসে মোড়ক লেগে যায়। ১৩ রানের ব্যবধানে পড়ে যায় ৫ উইকেট। ফর্মহীন সাব্বির রহমানের সামনে সুযোগ ছিল বড় ইনিংস খেলার। মাত্র ১ রানে ফিরে গিয়ে তিনি নিজেই নিজের ব্যাটিংকে প্রশ্নের সামনে দাঁড় করিয়েছেন। সাব্বিরের টেস্ট খেলার সামর্থ্য নিয়েই প্রশ্ন উঠে গেছে। কেন মোসাদ্দেক হোসেনকে না নিয়ে সাব্বির খেললেন ঢাকা টেস্ট সেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। সাব্বিরকে ফেরানোর পর টপাটপ ধনঞ্জয়া ফিরিয়েছেন রাজ্জাক আর মিরাজকে। অভিষেক টেস্টে ২৪ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন ধনঞ্জয়া। ২৯ রানে ৪ উইকেট পেয়েছেন হেরাথ।

এর আগে ২০০ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে শ্রীলঙ্কা। একপ্রান্তে রোশান সিলভা ৭০ রানে অপরাজিত থাকলেও তার দুই সঙ্গী সুরঙ্গা লাকমল (২১) ও হেরাথ (০) তাল মেলাতে পারেননি। ২টি উইকেট তুলে নিয়ে আগের ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসে ৪ উইকেট পেয়েছেন তাইজুল ৭৬ রানে। ৪৯ রানে মোস্তাফিজ ৩টি, মিরাজ ৩৭ রানে ২টি ও রাজ্জাক ৬০ রানে পেয়েছেন ১টি উইকেট।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আরআইবি/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue