রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

ইমাম হলেন সমকামী মহিলা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

ইমাম হলেন সমকামী মহিলা

পরিবর্তন সমাজের নিয়ম। পরিবর্তিত পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিয়ে না চলতে পারলে পৃথিবীতে টিকে থাকা অসম্ভব। এটাই ছিল চার্লস ডারউইনের বিবর্তনবাদের সূত্র। সেই সূত্রকে স্মরণে রেখে এক অভিনব সংস্কার আন্দোলন শুরু করল একটি ইসলামিক সংগঠন।

ধর্ম অনুযায়ী অনেক জায়গায় মসজিদে প্রবেশাধিকার নেই মুসলিম মহিলাদের। বোরখা-হিজাব মহিলাদের জন্য বাধ্যতামূলক করেছে ইসলাম। আর সমকামীতা তো ইসলামে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। এই সব নিয়ম উপেক্ষা করে ‌‘আধুনিকভাবে’ ইসলামের প্রচার শুরু করেছে ইংল্যান্ডের একটি ইসলামিক সংস্থা।

মসজিদের ইমামের দায়িত্বে রয়েছেন একজন মহিলা। যিনি আবার সমকামী। মাথায় হিজাব ছাড়াই ভক্তদের নিয়ে নামাজ পড়ছেন ওই মহিলা ইমাম। আরও চমকপ্রদ বিষয় হল নারী ও পুরুষ পাশাপাশি দাঁড়িয়ে নামাজ পড়ছেন ওই মহিলা ইমামের নেতৃত্বে। সেইসঙ্গে অনেক পুরুষই রয়েছেন একেবারে ক্লিন শেভড। যেসব ইসলামে নিষিদ্ধ করা হয়েছে কঠোরভাবে।

‘ইনক্লুসিভ মস্ক ইনিশিয়েটিভ’ নামক একটি সংস্থা খুলে শুরু হয়েছে অভিনবভাবে আল্লাহর বাণী প্রচার। আরও ভালোভাবে বললে ইসলাম ধর্মের ‘সংস্কার’ শুরু করেছে ওই সংগঠনটি 

সংস্থার প্রধান কার্যালয় ইংল্যান্ডে অবস্থিত। এছাড়াও সুইজারল্যান্ড, মালয়েশিয়া, পাকিস্তান ও ভারতের কাশ্মীরেও রয়েছে ওই সংস্থার শাখা অফিস।

ইংল্যান্ডের ওই হিজাবহীন মহিলা ইমামের নারী-পুরুষকে নিয়ে নামাজ পড়ার ছবি নিজের ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করেছেন তসলিমা নাসরিন। ইসলামের সংস্কারের এই নয়া উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন লেখিকা তসলিমা। 

তাঁর কথায়, ‘ধর্ম দিয়ে ধর্মের গোঁড়ামি দূর করা যায় না। ধর্ম থেকে বেরিয়ে যাওয়াটাই বিজ্ঞানসম্মত। কিন্তু তারপরও মুসলমানদের অন্ধকার জগতে গুটিকয় রিফরমার যে সামান্য আলো জ্বালাতে চাইছেন, তাদের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাতেই হয়।’ সূত্র : ইন্টারনেট

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আমা

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৩