সোমবার, ২০ আগস্ট, ২০১৮, ৫ ভাদ্র ১৪২৫

এখনো দুটি টুর্নামেন্টের জন্য কষ্ট পান মেসি

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৩ জুন ২০১৮, বুধবার ১২:২৯ পিএম

এখনো দুটি টুর্নামেন্টের জন্য কষ্ট পান মেসি

ঢাকা : মেসি এবং ম্যারাডোনা-দুজনকে নিয়ে সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা হয়। কে সেরা? কেউ বলেন, মেসির শ্রেষ্ঠত্ব প্রমাণের জন্য বিশ্বকাপ না জিতলেও চলবে। আবার কেউ বলেন, বিশ্বকাপ না জিতলে কখনোই মেসি ম্যারাডোনার সমকক্ষ হতে পারবেন না। ফুটবলবোদ্ধাদের সংখ্যা এই দলেই বেশি। ইতালির সাবেক তারকা ফুটবলার আন্দ্রে পিরলো তো বলেই ফেললেন, ম্যারাডোনাকে ছাপিয়ে যেতে হলে বিশ্বকাপ জিততে হবে।

গতবার ব্রাজিল বিশ্বকাপে অল্পের জন্য হয়নি। এবার হবে কি-না সেটি সময়ই বলে দেবে।তবে এ নিয়ে কথাবার্তা থেমে নেই। মেসি প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো সংবাদমাধ্যমের সামনে কথা বলছেন। সেই ধারাবাহিকতায় নিজের দেশ আর্জেন্টিনার সংবাদপত্র ‘লা নাসিয়ন’-এর সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে মেসি জানিয়েছেন, দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপের সেই অভিশপ্ত অভিজ্ঞতার কথা। তবে ম্যারাডোনার সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক কেমন ছিল, তা নিয়ে খুব একটা কথা বলতে চাননি তিনি।

দক্ষিণ আফ্রিকা বিশ্বকাপে বিপর্যয়ের পরে তাঁর কী মনে হয়েছিল? সংবাদপত্রটির প্রশ্নের সামনে মেসি বলেছেন, ‘বিশ্বকাপ থেকে আগেভাগেই হেরে বিদায় নিতে হলে সকলেই ভেঙে পড়বে। আমারও সেই অবস্থা হয়েছিল। তবে অতীতে পড়ে থাকার মানে হয় না। প্রত্যেকটি অভিজ্ঞতা থেকেই শিক্ষা নিতে হয়।’ এরপর যোগ করছেন, ‘জীবনের মতোই ফুটবলেও আমি ভাগ্যবান যে, বেশির ভাগ ভাল মুহূর্তই পেয়েছি। কিন্তু আমি খারাপ মুহূর্তগুলো থেকেও ইতিবাচক তরঙ্গ বার করে নেওয়ার চেষ্টা করি। যাতে সব সময় শেখার প্রক্রিয়াটা চালিয়ে যেতে পারি।’

গোটা আর্জেন্টিনাজুড়ে স্লোগান উঠেছে এবার নয়তো কখনোই নয়। মেসির এটাই শেষ সুযোগ। ম্যারাডোনার সঙ্গে অহরহ তাঁর তুলনা টেনে বলা হয়, মেসি শুধু ক্লাব ফুটবলেই সেরা। ম্যারাডোনার মতো ক্লাব-দেশ দু’জায়গাতে সফল নন।

অতীতে নিয়ে পড়ে থাকতে চান না বলে দিলেও মেসি কিন্তু জানাতে ভোলেননি যে, সব খারাপ ফল তাঁকে আঘাত করে, ‘ভেনেজুয়েলায় কোপা আমেরিকা কাপে আমি ভাল খেলছিলাম। কিন্তু ব্রাজিলের কাছে ফাইনালে হারটা একটা বড় ধাক্কা ছিল। খুবই হতাশ হয়েছিলাম। আমাদের কাপ জেতার মতো দক্ষতা ছিল। খুব ভাল খেলছিল দল। তার পরও ফাইনালে গিয়ে হারলাম। সব আশাই শেষ হয়ে গেল এক সেকেন্ডের ভুলে। আমি ভীষণ ভেঙে পড়েছিলাম।’

তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় সেই বিশ্বকাপের কথা মনে পড়লে এখনো খারাপ লাগে মেসির। সেবার বিশ্বকাপ জয়ের আশায় আর্জেন্টিনা কোচের দায়িত্ব তুলে দিয়েছিল ম্যারাডোনার হতে। কিন্তু তিনি ব্যর্থ হয়েছেন। সেই বিশ্বকাপ নিয়ে মেসি বলেন,‘ দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যর্থতাটা মনে পড়লে খারাপ লাগে কারণ, আমাদের নিয়ে কত লোকের কত প্রত্যাশা ছিল। দল হিসেবে আমরা ভালো খেলছিলাম বলে সেই প্রত্যাশা আরও বেড়ে গিয়েছিল।’ এবারও রাশিয়া বিশ্বকাপে মেসিদের নিয়ে আর্জেন্টাইন সমর্থকদের প্রত্যাশার পারদ চড়ছে। এবার কি খুদে জাদুকর পারবেন সমর্থকদের প্রত্যাশা মেটাতে?

সোনালীনিউজ/আরআইবি/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue