শনিবার, ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৮, ১ পৌষ ১৪২৫

কলকাতায় চলন্ত গাড়িতে তরুণীকে গণধর্ষণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

কলকাতায় চলন্ত গাড়িতে তরুণীকে গণধর্ষণ

ফের ভারতের পশ্চিমবঙ্গে চলন্ত গাড়িতে এক তরুণীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার রাতে কলকাতার সল্টলেকে এ ঘটনা ঘটে। সোমবার ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো এ তথ্য জানিয়েছে।

থানা সূত্রে জানা গেছে, রোববার রাত ১২টা নাগাদ সল্টলেক থেকে ওই তরুণীকে গাড়িতে করে তুলে নিয়ে যায়। রাতভর ওই তরুণীকে নিয়ে শহরের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরে বেড়ানো হয়। এসময় দুস্কৃতিকারীরা গাড়ির ভেতরেই ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে। সোমবার ভোরে সেই সল্টলেকেই ফিরে বৈশাখী মোড়ের কাছে তরুণীকে ফেলে পালায় দুষ্কৃতিকারীরা। পরে তাকে উদ্ধার করেন এক ট্যাক্সিচালক। এ ঘটনায় সল্টলেকের মহিলা থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

সোমবার বিধাননগর মহকুমা হাসপাতালে ওই তরুণীর শারীরিক পরীক্ষা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জেনেছে, পেশায় সঙ্গীতশিল্পী ওই তরুণী ব্যারাকপুর কমিশনারেট এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযুক্তেরা অপরিচিত বলেই দাবি করেছেন ওই তরুণী। অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে দেখা হচ্ছে সিসিটিভির ফুটেজ। পাশাপাশি নিগৃহীতার বয়ানের ভিত্তিতে চার যুবকের স্কেচ আঁকানোর প্রস্তুতিও নেওয়া হচ্ছে। ইতিমধ্যে বেশ কিছু গূরুত্বপূর্ণ সূত্র হাতে এসেছে।

বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার জাভেদ শামিম জানান, তরুণীর বয়ান খতিয়ে দেখা হচ্ছে। দুষ্কৃতীদের দ্রুত ধরা যাবে বলে আশাবাদী তিনি।

প্রসঙ্গত, এর আগে ২০১২ সালের ফেব্রুয়ারিতে সুজেট জর্ডন নামে এক তরুণীকে নাইট ক্লাব থেকে বাড়ি ফেরার পথে কয়েকজন যুবক জোর করে গাড়িতে তুলে ধর্ষণ করে। পরে রাস্তায় তাকে ফেলে রেখে যায় ধর্ষণকারীরা। কিন্তু এই ঘটনার পর এই ধর্ষণকে আমলে নেয়নি রাজ্য পুলিশ। এরপর বিচারের জন্য লড়েছেন সুজেট ।

এই নিয়ে ওই সময় কলকাতায় আন্দোলন হয়। ২০১৫ সালের মার্চে মারা যান সুজেট।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমটিআই