বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

কী বার্তা নিয়ে দেশে ফিরেছেন মির্জা ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রবিবার ০৮:৩৫ পিএম

কী বার্তা নিয়ে দেশে ফিরেছেন মির্জা ফখরুল

ঢাকা : দেশে ফিরেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। নিউইয়র্ক ও লন্ডনে ৫ দিনের সফর শেষে রোববার (১৭ সেপ্টেম্বর) বিকেল ৫টা ২০ মিনিটে অ্যামিরেটস এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইটে লন্ডন থেকে ঢাকা পৌঁছান তিনি।

গত ১১ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার দিবাগত রাতে জাতিসংঘ মহাসচিবের আমন্ত্রণে বাংলাদেশের আসন্ন নির্বাচন ও রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে নিউইর্য়ক যান মির্জা আলমগীর।

এ সফরে তিনি জাতিসংঘের রাজনীতিবিষয়ক সহকারী মহাসচিব মেরোস্লাভ জেনকার সাথে গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক করেন। ওয়াশিংটন ডিসিতে মার্কিণ পররাষ্ট্র দফতরের সাথেও বৈঠক হয় তার। এসব বৈঠকে বাংলাদেশ সরকারের নানা অনিয়ম, বিরোধী দলের উপর দমন-পীড়নের তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন করেন বিএনপি মহাসচিব। আসন্ন নির্বাচন সুষ্ঠু করতে জাতিসংঘ ও ট্রাম্প প্রশাসনেরও করণীয় আছে বলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের জানান তিনি।

গত শুক্রবার বিকেলে লন্ডনের উদ্দেশ্যে মির্জা ফখরুল ওয়াশিংটন ত্যাগ করেন। শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৮টায় নিউইর্য়ক থেকে লন্ডনে পৌঁছান বিএনপি মহাসচিব। সেখানে দলের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সাথে বৈঠক করেন তিনি।নির্বাচনকে সামনে রেখে বিএনপি মহাসচিবের আকষ্মিক এ সফর রাজনৈতিক অঙ্গনে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছে।

সরকারের গঠিত মেডিকেল বোর্ড দিয়ে বেগম খালেদা জিয়ার উপযুক্ত ও সঠিক চিকিৎসা হবে না বলে শঙ্কা প্রকাশ করেছে বিএনপি। আজ রোববার সকালে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটি সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন এ কথা জানিয়ে বলেন, এই মেডিকেল বোর্ড নিয়ে আমরা অসন্তুষ্ট।

আমরা মনে করি না যে, সরকার দলীয় সমর্থিত চিকিৎসকদের দিয়ে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার উপযুক্ত চিকিৎসা হবে। এটা আমরা বিশ্বাস করতে পারছি না। আমাদের এখনো দাবি করছি যে, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসা যারা করতেন সে সকল চিকিৎসকদের অন্তর্ভুক্ত করে একটি বোর্ড করা হোক। সেই বোর্ডের মাধ্যমে তার চিকিৎসা করা হোক। কারণ তিনি অত্যন্ত গুরুতর অসুস্থ।

গত ৯ সেপ্টেম্বর দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সাথে বৈঠকের বিষয়টি তুলে ধরে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, আমাদেরকে কিন্তু ওইদিন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কথা দিয়েছিলেন, আমাদের নেত্রীর দেয়া কিছুসংখ্যক চিকিৎসক যারা তার চিকিৎসা করে থাকেন এবং সরকারের কিছু চিকিৎসক দিয়ে এক সাথে একটি মেডিকেল বোর্ড করবে।

আমরা হতাশ হয়েছি যখন মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে তখন দেখা গেলো শুধু সরকারের দেয়া ডাক্তারদের দিয়ে এই বোর্ড করা হয়েছে। আমরা মনে করি, সরকার সমর্থিত চিকিৎসকদের দিয়ে যে বোর্ড করা হয়েছে, সেই বোর্ডের পরামর্শে সঠিক চিকিৎসা হবে না।

তিনি বলেন, তিন বারের প্রধানমন্ত্রী, দুই বারের বিরোধী দলীয় নেতা, দেশের ২৩টি আসন থেকে নির্বিাচিত সংসদ সদস্য, স্বাধীনতার ঘোষক নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি ও সাবেক সেনাপ্রধানের স্ত্রী দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া প্রয়োজনীয় চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত।

গত ৯ সেপ্টেম্বর মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালের সঙ্গে দেখা করে ৭৩ বছর বয়সী খালেদার স্বাস্থ্য নিয়ে উদ্বেগ জানানোর পর গত বৃহস্পতিবার এই মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন হয়।

সংবাদ সম্মেলনে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান নিতাই রায় চৌধুরী, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue