মঙ্গলবার, ২২ আগস্ট, ২০১৭, ৬ ভাদ্র ১৪২৪

ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই সবজির দাম

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৩৪ পিএম

ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই সবজির দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
রাজধানীর খুচরা বাজারগুলোতে বিভিন্ন রকমের সবজির দাম নিয়ে সন্তুষ্ট রয়েছেন ক্রেতারা। শীতের সবজিতে বাজারগুলোর চেহারা যেন পরিপূর্ণ। সরবরাহ বেশি থাকায় প্রায় সব ধরনের শাক ও সবজির দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যে রয়েছে। তবে ক্রেতারা মনে করছেন, এখন সবজির মৌসুম, তাই আরেকটু কম থাকতে পারত।

শুক্রবার রাজধানীর কমলাপুর ও হাতিরপুল বাজার ঘুরে দেখা গেছে, বছরের অন্যান্য সময়ের তুলনায় বাজারে সবজির প্রকার ও ভিন্নতা বেশি। প্রায় ১০ থেকে ১২ রকমের মৌসুমী সবজি এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। এসব সবজির সরবরাহ ভাল থাকায় দামও নাগালের মধ্যে রয়েছে।

দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে শীতকালীন শাক-সবজি আসছে রাজধানীতে। বিক্রেতারা জানিয়েছেন, গত এক সপ্তাহ ধরে অধিকাংশ সবজির দামই অপরিবর্তিত রয়েছে। এ সময় রসুন ও ডালের দাম কিছুটা কমেছে। গত সপ্তাহে কেজিতে ১৫ থেকে ২০ টাকা বেড়েছিল রসুন ও ডালের দাম। কিছুটা বাড়তি ছিল পেঁয়াজ ও আদার দাম। কিন্তু গত কয়েকদিনে এসব পণ্যের দামও কিছুটা কমেছে। এমনকি বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সকালের মধ্যে সব ধরনের সবজির দাম একই রকম দেখা গেছে।

হাতিরপুল বাজারের দোকানদার আবদুল জলিল সোনালীনিউজকে জানান, বাজারে প্রতিকেজি ভারতীয় রসুন (আকারে বড়) বিক্রি হচ্ছে একশ ২০ থেকে একশ ২৫ টাকায়। এক সপ্তাহ আগে এ ধরনের রসুনের দাম ছিল একশ ৩০ থেকে একশ ৩৫ টাকা। আর এর আগের সপ্তাহে ছিল একশ ১৫ থেকে একশ ২০ টাকা। এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিপ্রতি ভারতীয় রসুনের দাম বেড়েছিল ১৫ থেকে ২০ টাকা। গত সপ্তাহ থেকে আবার রসুনের দাম কমতে শুরু করেছে। এছাড়া কেজিপ্রতি দেশি রসুন বিক্রি হচ্ছে ৯০ থেকে একশ টাকার মধ্যে।

তবে পেঁয়াজের দাম স্থিতিশীল রয়েছে। রাজধানীর বাজারে বাছাই করা দেশি পেঁয়াজ ৪৫ থেকে ৫০ টাকা ও সাধারণ দেশি পেঁয়াজ ৪০ টাকা দরে বিক্রি করছেন বিক্রেতারা। আর ভারতীয় পেঁয়াজ ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। যদিও পাড়ায়-মহল্লায় এই দাম কিছুটা বেশি বলেও বিক্রেতারা জানিয়েছেন।

আর নতুন পেঁয়াজ প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ৩৫ থেকে ৪০ টাকায়, পেঁয়াজ পাতা প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ২৫ থেকে ৩০ টাকায়। বাজার ঘুরে দেখা গেছে, চাল কুমড়া, মুলা, বাধাকপি, চিচিংগা, শসা, মিষ্টি কুমড়া, পেঁপে ও পটল ২০ থেকে ৩০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

৩০ টাকা কেজিতে শালগম, ২০ টাকায় পেপে, ২০ টাকা কাঁচকলার হালি, প্রতিটি ফুলকপি পাওয়া যাচ্ছে ২০ থেকে ৩০ টাকায়। বরবটি পাওয়া যাচ্ছে ৩০ টাকায়, করলা ৩০ টাকা ও বেগুন ২০ থেকে ৩০ টাকায়। এসব সবজির দাম গত সপ্তাহেও এমন ছিল বলে জানান দোকানীরা।

এছাড়া মানভেদে প্রতি কেজি গোল আলু বিক্রি হচ্ছে ৩০ টাকা থেকে ৩৫ টাকায়, কাঁচামরিচ ৮০ টাকা থেকে ৯০ টাকায়, বেগুন ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকায়, টমেটো ৪০ টাকায়, শশা ৪৫ টাকা থেকে ৫০ টাকায়, পটল ৪০ টাকা থেকে ৪৫ টাকায়, মূলা ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকায়, ঝিঙা ২৫ টাকা থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিভিন্ন ধরনের শাকের আঁটি ১০ থেকে ১৫ টাকা এবং কেজিপ্রতি ২০ থেকে ২৫ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। প্রতি আঁটি মুলা শাক মিলছে ৫ ও ১০ টাকায়, লাল শাক ১০ ও ১৫ টাকায়।

প্রতি হালি ফার্মের মুরগির লাল ডিম বিক্রি হচ্ছে ৩৬ থেকে ৩৮ টাকায়। ব্রয়লার মুরগি পাওয়া যাচ্ছে প্রতি কেজি একশ ৪০ থেকে একশ ৪৫ টাকায়। অপরিবর্তিত রয়েছে গরুর মাংসের দাম। প্রতি কেজি মাংস বিক্রি হচ্ছে তিনশ ৮০ টাকায়।
সোনালীনিউজ/ঢাকা

 

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue