শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, ৬ কার্তিক ১৪২৪

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নিয়ে ধোঁয়াশা!

সোনালী বিশেষ | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৭ অক্টোবর ২০১৭, শনিবার ০৩:০৫ পিএম

খালেদা জিয়ার দেশে ফেরা নিয়ে ধোঁয়াশা!

ঢাকা : কথা ছিল, অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে দেশ ফিরছেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। দেশে ফিরেই রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দেখতে যাবেন তিনি।

তারও আগে কোরবানির ঈদের পর দেশে ফেরার কথা ছিল বিএনপি প্রধানের। কিন্তু অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে এসে তিনি ঠিক কবে ফিরবেন, সে বিষয়ে দলের নেতাদের কেউ কিছুই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না।

যদিও  শুক্রবার (৬ অক্টোবর) বিএনপির অন্যতম ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমদ আযম খান বলেছেন, এই মাসের শেষের দিকে খালেদা জিয়া দেশে ফিরতে পারেন। ১৫ তারিখের মধ্যে উনার চিকিৎসা এবং অবজারভেশনগুলো শেষ হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। এরপরে যেকোন সময় তিনি দেশে ফিরতে পারেন।

আবার যদি ডাক্তার বলেন যে, আরো কিছু অবজারভেশন লাগবে তাহলে হয়তো সময় লাগবে। তবে আমি মনে করি, ২০ অক্টোবরের মধ্যে তিনি চলেই আসবেন। এটি আমার ধারণা। বয়সের কারণে ওনার (খালেদা) দীর্ঘস্থায়ী কিছু সমস্যা আছে। এসব সমস্যার কারণে তাকে চিকিৎসা নিতে হচ্ছে।

আহমদ আযম খান আরো বলেন, আগামী ১২ অক্টোবর ডাক্তারের কাছে পরবর্তী অ্যাপয়েন্টমেন্ট আছে। সেই অ্যাপয়েন্টমেন্টের পরে চলে আসার একটা সম্ভাবনা আছে।

তবে বিএনপির মুখপাত্র ও দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেন, দলীয় প্রধান ঠিক কবে দেশে ফিরবেন সে বিষয়ে এখনো কিছু জানেন না তিনি। রিজভী বলেন, এখনো কোন তারিখ ঠিক হয়নি। তবে ম্যাডাম শিগগিরই ফিরবেন। চিকিৎসা শেষ হলেই ফিরে আসবেন।

এদিকে, বিএনপির অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ নেতা ও দলের জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ এবিষয়ে কোন কিছুই জানেন না বলে মন্তব্য করেছেন।

প্রসঙ্গক্রমে মওদুদ আহমদ বলেছেন, খালেদা জিয়া কখন দেশে ফিরবেন সে বিষয়ে কোন তারিখ ঠিক হয়নি। তবে তিনি দেশে ফিরে আসবেন দ্রæতই।

গত ১৬ জুলাই চিকিৎসার জন্য লন্ডনে যান বিএনপি প্রধান খালেদা জিয়া। দীর্ঘদিন ধরে চোখ ও হাঁটুর সমস্যায় ভোগা খালেদা জিয়া চিকিৎসার জন্য ৪২ দিন থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন লন্ডনে। কিন্তু ইতোমধ্যে প্রায় তিন মাস হতে চলেছে, তিনি দেশে নেই।

আর এ নিয়ে সরকারি দলের মধ্যে চলছে নানা আলোচনা-সমালোচনা। সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রী-এমপি খালেদা জিয়া লন্ডনে বসে ছেলে তারেক রহমানের সঙ্গে দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হচ্ছেন বলেও নানা সময় মন্তব্য করেন।

বিএনপির গুলশান কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ অক্টোবর মাসে বাংলাদেশে আসবেন। তার আগেই দেশে ফিরে আসার চিন্তা ভাবনা করছেন তিনি। সফরকালে খালেদা জিয়ার গুলশানের রাজনৈতিক কার্যালয়ে তাদের মধ্যে একান্ত বৈঠক হতে পারে।

খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে অবস্থানকালে ১৫ আগস্ট নিজের ৭২তম জš§দিন, ১ সেপ্টেম্বর দলের ৩৯তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও ২ সেপ্টেম্বর পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হয়। কিন্তু তিনি সেখানে ব্যক্তিগত, দলীয় ও সামাজিক কোনো অনুষ্ঠানেই অংশ নেননি।

এবারই প্রথম নিজেকে আড়াল করে পূর্ণ বিশ্রামে রয়েছেন তিনি। ঈদ পুনর্মিলনী ও ঈদুল আজহার পর ১২ সেপ্টেম্বর লন্ডনে একটি দলীয় অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার কথা ছিল বেগম জিয়ার। কিন্তু তিনি কোনো অনুষ্ঠানেই অংশ নেননি। তার এমন সিদ্ধান্তে হতবাক হয়েছেন অনেকেই।

এদিকে, চলমান রোহিঙ্গা সংকটের বিষয়ে লন্ডনে থেকেই বিএনপি চেয়ারপারসন জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য সব দেশের রাষ্ট্রদূত, ইসলামি সম্মেলন সংস্থাভুক্ত (ওআইসি) দেশগুলোর পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাংলাদেশে নিযুক্ত সব দেশের ক‚টনীতিককে চিঠি দিয়েছেন।

এতে তিনি রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর মিয়ানমারের সেনাদের বর্বরোচিত গণহত্যা ও নির্যাতনের বিষয়ে একটি আন্তর্জাতিক ট্রাইব্যুনাল গঠন করে বিচার দাবি এবং বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের স্বদেশে ফেরাতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের সহযোগিতা চেয়েছেন।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue