রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৮ আশ্বিন ১৪২৫

ফখরুলের অভিযোগ

খুলনার ভোট নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করেছে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ মে ২০১৮, বুধবার ০২:৩৬ পিএম

খুলনার ভোট নিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করেছে সরকার

ঢাকা : গণমাধ্যম নিয়ন্ত্রণ করে খুলনা সিটি করপোরেশন (কেসিসি) নির্বাচনে সরকার জনগণের চোখে ধুলা দিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু নির্বাচন পরিচালনা করতে ব্যর্থ হয়েছে। অনিয়ম, কারচুপির অভিযোগ তুলে তিনি বলেন, এই সরকারের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়। নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন করতে হবে। খুলনায় সেনা মোতায়েন থাকলে আজ এই পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না। জয়-পরাজয় আলাদা কথা কিন্তু প্রতিপক্ষ দলের এজেন্টদের বের করে দেওয়া হবে, এটা নির্বাচন হতে পারে না।

মঙ্গলবার (১৫ মে) গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।  

ইসির অযোগ্যতার সুযোগ নিয়ে পুলিশের হামলায় বিএনপি নেতাকর্মীরা দাঁড়াতে পারেনি বলেও অভিযোগ মির্জা ফখরুলের। বলেন, প্রথমে বিএনপি প্রার্থীর এজেন্টদের কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে। পরে ভোটারদের ভয়ভীতি দেখিয়ে নিজেরাই নৌকা প্রতীকে সিল মারে।

বিএনপি খবর পেয়েছে এক ধরনের, সংবাদমাধ্যমে প্রচার হয়েছে আরেক ধরনের আবার অনলাইন সংবাদমাধ্যমগুলোতে প্রচার হয়েছে ভিন্নভাবে। আসলে তারা (সরকার) প্রকৃত ঘটনা প্রচার করতে দেয়নি।

মির্জা ফখরুল বলেন, দুপুর ১টার পর থেকে একের পর এক কেন্দ্র দখলের খবর আসে। তখন সিইসিকে ফোন করলে তিনি জানান, কোথাও কোনো অনিয়মের ঘটনা ঘটেনি, কোনো টিভি চ্যানেল দেখায়নি। তখন সংবাদমাধ্যমগুলোর নাম বললে সিইসি জানান, তিনি দেখছেন। এখনো তিনি দেখছেন। এর আগে গাজীপুরের সিটি নির্বাচনে আবদুল­াহ আল নোমানকে আটকের বিষয়ে সিইসিকে জানালে তিনি বলেন, তিনি দেখছেন। তিনি শুধুই দেখছেন।

সরকার পুলিশকে বিরোধী দলের প্রতিপক্ষ হিসেবে দাঁড় করিয়েছে বলে মন্তব্য করেন বিএনপি মহাসচিব। তিনি বলেন, বেশিরভাগ জায়গায় পুলিশ দায়িত্ব নিয়ে বিরোধী দলের ওপর চড়াও হচ্ছে। এটা কখনো একটা জাতির জন্য ভালো কিছু বয়ে আনবে না। কিন্তু এখন দেখি পুলিশ নিজেরা উদ্যোগী হয়ে একটা বিশেষ রাজনৈতিক দলকে প্রটেক্ট করছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বরকত উল্ল­াহ বুলু, আবদুল আউয়াল মিন্টু প্রমুখ।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue