রবিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৭, ১০ বৈশাখ ১৪২৪

খুলনায় নৌযান মালিকদের লাগাতার ধর্মঘটের ডাক

খুলনা প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ অনলাইন
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৯ পিএম

খুলনায় নৌযান মালিকদের লাগাতার ধর্মঘটের ডাক

এবার ৬ নৌযান মালিকদের পক্ষ থেকে লাগাতার ধর্মঘট পালনের ডাক দেয়া হয়েছে। নৌমন্ত্রী ঘোষিত নৌযান শ্রমিকদের সর্বনিম্ন মজুরি প্রত্যাহারের দাবিতে এ ঘোষণা দেয়া হয়।

১০ মে এর মধ্যে তা প্রত্যাহার করা না হলে ১১ মে থেকে নৌযান মালিকরা এ কর্মসূচি পালন করবে। সোমবার দুপুরে বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন খুলনা বিভাগীয় অভ্যন্তরীণ নৌ পরিবহন মালিক গ্রুপ ও মংলা বন্দর ব্যবহারকারী সমন্বয় কমিটির মহাসচিব অ্যাডভোকেট মো. সাইফুল ইসলাম।

তিনি জানান, ২০ এপ্রিল থেকে মজুরি বৃদ্ধির দাবিতে শ্রমিকরা ধর্মঘট পালন করে। সর্বশেষ ২৬ এপ্রিল নৌ-পরিবহন মন্ত্রীর সভাপতিত্বে মালিক ও শ্রমিক পক্ষের উপস্থিতে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকে বহু দর-কষাকষির পর উভয় পক্ষ যখন সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়, তখন নৌ পরিবহন মন্ত্রী একতরফাভাবে ‘ক’ শ্রেণির নৌযানের লক্সরদের সর্বনিম্ন মজুরি ১০ হাজার টাকা, ‘খ’ শ্রেণির নৌযানের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন মজুরি সাড়ে ৯ হাজার এবং ‘গ’ শ্রেণির নৌযানের ক্ষেত্রে সর্বনিম্ন মজুরি ৯ হাজার টাকা ঘোষণা দেন। এছাড়া অন্যান্য সকল স্টাফদের বেতন কাঠামো নির্ধারণের জন্য একটি কমিটি গঠন করিয়ে দেন।

তিনি আরো জানান, যেখানে নৌযান মালিকরা সর্বনিম্ন মজুরি ৫ হাজার ২শ টাকা নির্ধারণের প্রস্তাব দেন। সেখানে সর্বনিম্ন মজুরির ক্ষেত্রে মন্ত্রীর ঘোষণায় নৌযান মালিক পক্ষ সন্তুষ্ট হতে না পেরে সিদ্ধান্তহীনভাবে বৈঠক ত্যাগ করেন। লস্করের সর্বনিম্ন মজুরি ১০ হাজার টাকা হলে ওই আনুপাতিক হারে অন্যান্য স্টাফদের মজুরি বৃদ্ধি পেয়ে বেতন কাঠামো নির্ধারিত হলে একটি নৌযানের পূর্বের অপেক্ষা বেতন ৫০ হাজার থেকে ৭০ হাজার টাকা বৃদ্ধি পাবে। যা নৌযান মালিকদের পক্ষে বহন করা সম্ভব না।

এ অবস্থায় মন্ত্রীর ঘোষিত সর্বনিম্ন মজুরি প্রত্যাহারের দাবিতে ধর্মঘটের ডাক দেয়া হয়। কিন্তু এখন পর্যন্ত মন্ত্রীর ঘোষিত সর্বনিম্ন মজুরি প্রত্যাহার করা হয়নি। ফলে রোববার সকাল ১১টায় খুলনা নৌ পরিবহন মালিক গ্রুপের এক বিশেষ সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ১০ মে এর মধ্যে মন্ত্রী ঘোষিত সর্বনিম্ন মজুরি প্রত্যাহার না করা হলে ১১ মে থেকে নৌযান মালিকদের লাগাতার ধর্মঘট পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। পরে বেলা সাড়ে ১২টায় খুলনা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue
রবিবার, ২৩ এপ্রিল, ২০১৭, ১০ বৈশাখ ১৪২৪