মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৭, ১২ বৈশাখ ১৪২৪

গেইলকে বিশ্বজুড়ে নিষিদ্ধ করার দাবি

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৩৪ পিএম

গেইলকে বিশ্বজুড়ে নিষিদ্ধ করার দাবি

সোনালীনিউজ ডেস্ক
বেশ আত্মবিশ্বাস নিয়ে মাঠভর্তি দর্শকের সামনেই অভিসারের প্রস্তাব দিয়েছিলেন অস্ট্রেলিয়ান টিভি সাংবাদিককে। কিন্তু জবাবে কী পেলেন ক্রিস গেইল? অভিসার তো দূরে থাক, উল্টো জরিমানা গুনতে হয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্যাটসম্যানকে। অনেক বিতর্কের মুখে ক্ষমাও চেয়েছেন। কিন্তু এবার আরও বড় শাস্তির প্রস্তাবই করলেন ইয়ান চ্যাপেল।
সাবেক অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়ক প্রস্তাব করেছেন শুধু বিগ ব্যাশই নয়, বিশ্বজুড়ে সব টি-টোয়েন্টি লিগেই যেন গেইলের সঙ্গে কোনো চুক্তি না করা হয়।

গত সোমবার বিগ ব্যাশের ম্যাচ চলার সময় অস্ট্রেলিয়ান চ্যানেল টেনের সাংবাদিক মেল ম্যাকলাফলিন সাক্ষাৎকার নিচ্ছিলেন গেইলের। এ সময় হঠাৎই ম্যাকলাফলিনের চোখের প্রশংসা করার পর ম্যাচের পর তাঁর সঙ্গে পানীয়তে আমন্ত্রণ জানান এই মেলবোর্ন রেনেগেডস ওপেনার। কৌতুকের ছলে বলেও বসেন, ‘লজ্জা পেও না, প্রিয়ে।’
ব্যাপারটি গেইলের কাছে ‘নিছকই কৌতুক’ হলেও অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা এবং সংবাদমাধ্যম এতে মজা পাচ্ছে না। বিতর্কের ঝড় সেদিন থেকেই শুরু হয়ে গেছে। ১০ হাজার অস্ট্রেলিয়ান ডলার শাস্তিও পেয়েছেন গেইল।

তবে এতটুকুতেই থামছে না বিতর্ক। শোনা যাচ্ছে, আগামী মৌসুম থেকে বিগ ব্যাশে খেলতে আর আমন্ত্রণ জানানো হবে না গেইলকে। কোনো নাটকীয় মোড় না এলে এই বিষয়টিকে মোটামুটি নিশ্চিতই ধরে নেওয়া যায়। ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া (সিএ) বিগ ব্যাশের খেলোয়াড়দের চুক্তির বিষয়গুলো দেখাশোনা করে। সেই সিএরই কয়েকজন কর্মকর্তা ওই সাক্ষাৎকারের কারণে গেইলের চুক্তি বাতিল করতে চাচ্ছেন।

ইয়ান চ্যাপেল তো আরও এক ডিগ্রি উত্তপ্ত হয়ে আছেন গেইলের কাণ্ডে। অপ্টাস এসএমবি ক্রিকেট লেজেন্ড নামে এক অনুষ্ঠানে চ্যাপেলদের বড় জন বলেছেন, ‘ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া যদি বিগ ব্যাশের ক্লাবগুলোকে বলে যে, আগামী মৌসুম থেকে ক্রিস গেইলের সঙ্গে চুক্তি করা যাবে না, তাহলে ভালো লাগবে। আরও ভালো হবে যদি তারা আইসিসিকে বলে, ‘‘আমরা যেটা করছি সেটা বিশ্বব্যাপী করা উচিত।’’ সেক্ষেত্রে হয়তো সবগুলো দেশের সঙ্গে আলাদাভাবে কথা বলতে হবে। তবে আইসিসির সভায় যদি সিএ প্রস্তাব দেয় যে, ‘‘আমরা এটা (গেইলকে নিষিদ্ধ) করছি, এবং সবাইকে একই কাজ করতে পরামর্শ দিচ্ছি’’, তাহলেও আমার ভালো লাগবে।’

অবশ্য শুধু ম্যাকলাফলিনের ঘটনাতেই গেইলের এত বড় শাস্তি চাইছেন চ্যাপেল, ব্যাপারটা এমন নয়। ম্যাকলাফলিনের ঘটনার পর অনেক সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে, গেইলের এই ‘নারীপ্রীতি’ বেশ পুরোনো। আরও অনেক নারীকেই নাকি এমন প্রস্তাব দিয়েছেন এই ক্যারিবীয়ান। তাই নারীদের সম্মান নিশ্চিত করতেই গেইলের ব্যাপারে সব ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগের কাছ থেকে ‘জিরো টলারেন্স’ আশা করছেন চ্যাপেল। গেইলকে ‘সাহায্যের অতীত’ জানিয়ে চ্যাপেল বললেন, ‘যদি শুধু একবার এমন হতো, তাহলে বলতাম, ‘‘ঠিক আছে, ১০ হাজার ডলার জরিমানা করা হয়েছে। আর এমন কোরো না।’’ কিন্তু (গেইলের বিষয়ে) ক্রিকেট সংশ্লিষ্ট যতজন নারীর সঙ্গে আমি কথা বলেছি, সবাই একই কথা বলছে (ম্যাকলাফলিনের মতো তাঁদেরও প্রস্তাব দিয়েছে গেইল)।’

চ্যাপেলের প্রস্তাব বিশ্বব্যাপী সবগুলো লিগ মেনে নিলে সেটি গেইলের জন্য সব দিক দিয়েই বেশ ক্ষতির কারণ হবে। এমনিতেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ জাতীয় দলে তিনি নেই অনেক দিন ধরে। বিশ্বজুড়ে টি-টোয়েন্টির ফেরি করেই বেড়াচ্ছেন। সেই আয়-রোজগারের পথই তো বন্ধ হয়ে যাবে।

অভিসারের প্রস্তাব আর যেখানেই হোক হাজার দর্শকের সামনে মাইক্রোফোনে দিতে হয় না, এটি বোধ হয় এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছেন ক্রিস গেইল। দ্য এজ।

সোনালীনিউজ/ঢাকা

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue
মঙ্গলবার, ২৫ এপ্রিল, ২০১৭, ১২ বৈশাখ ১৪২৪