শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

চরফ্যাশনে পৌর নির্বাচন নিয়ে জমজমাট প্রচারণা

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৪ পিএম

চরফ্যাশনে পৌর নির্বাচন নিয়ে জমজমাট প্রচারণা

ভোলা প্রতিনিধি
ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভায় ১৫ ফেব্রুয়ারির নির্বাচন নিয়ে জমজমাট প্রচারণায় আওয়ামী লীগ ও বিএনপি দলীয় প্রার্থীরা। মোটরসাইকেলে চড়ে হ্যান্ড মাইকে গান বাজিয়ে চলছে প্রার্থীদের ভোট প্রার্থনা।

আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী পৌর আওয়ামী লীগ সভাপতি বাদল কৃষ্ণ দেবনাথের প্রচারণা রয়েছে তুঙ্গে। শুক্রবার তিনি ৮নং ওয়ার্ডের মাতাব্বর বাড়ির চত্বরে উঠোন বৈঠকে বলেন, নির্বাচিত হলে মাদকমুক্ত, সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশে উপমন্ত্রী আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকেবর উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করে আধুনিক পৌর নগরী গড়ে তুলবেন।

এসময় উপস্থিত থাকার পাশপাশি আরও বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগ সম্পাদক নুরুল ইসলাম ভিপি, পৌর আওয়ামী লীগ সম্পাদক মনির আহমেদ শুভ্র, কাউন্সিলর প্রার্থী আবু জাহের ভুইয়া, নারী কাউন্সিলর প্রার্থী জাহানারা বেগম। পরে মেয়র প্রার্থী বাড়ি বাড়ি গিয়ে গণসংযোগও করেন।  

অপরদিকে, বিএনপি দলীয় মেয়র প্রার্থী আমিরুল ইসলাম মিন্টিজ জানান, সকাল বিকাল প্রচারণা চলছে তার। দু`দিন আগে আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়র প্রার্থী ও কর্মীর উপর হামলার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বিএনপির ৪০ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। তাই গ্রেফতার এড়াতে বিএনপি নেতাকর্মীরা এলাকা ছাড়া বলেও জানান মিন্টিজ। মিন্টিজ জানান, পোস্টার টানালে তা ছিড়ে ফেলা হতে পারে। সংঘাত এড়াতে তিনি নিরিবিলি উঠোন বৈঠক ও প্রচারণা চালাচ্ছেন।

অপরদিকে, ৪৯ জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে একজন বিএনপি সমর্থিত। ৪৮ জনই আওয়ামী লীগ দলীয় হওয়ায় নিজ দলের নেতাদের কাছেই অনেক প্রার্থী জিম্মি হয়ে পড়েছেন বলে অভিযোগ করেন ৪নং ওয়ার্ডের বর্তমান কাউন্সিলর প্রার্থী আক্তারুজ্জামান সামু।

একই কথা জানান, ৬ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী জাহাঙ্গীর হোসেন কুতুব। ওই ওয়ার্ডেও বর্তমান কমিশনার ও প্রার্থী এবং যুব লীগ নেতা জহির রায়হান সংখ্যালঘুদের হুমকি ও ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া কাউন্সিলর প্রার্থীদের মধ্যে প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করতে দেখা যায়, ২ নং ওয়ার্ডে সাবেক ছাত্র লীগ নেতা নজরুল ইসলাম কৃষান, ৫ নং ওয়ার্ডের সাবেক স্কুল শিক্ষক কাউন্সিলর প্রার্থী মাহাবুব আলম মজনু মাস্টার, ৯ নং ওয়ার্ডের সাবেক ছাত্র লীগ সভাপতি মতিন মোল্লাহ, ওই ওয়ার্ডের অপর প্রার্থী মিজানুর রহমান, ৩ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী যুব লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম, সংরক্ষিত নারী ১ নং ওয়ার্ডের প্রার্থী ফরিদা পারভীনকে।

অপরদিকে, একমাত্র বিএনপি দলীয় ৮ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী রাসেল জানান, তিনি প্রচারণায় নামতে পারছেন না। তিনি গৃহবন্দী রয়েছেন। তিনি বর্তমান কাউন্সিলর হলেও অপর কাউন্সিলর প্রার্থীরা তার প্রচারণায় বাধা দিচ্ছেন বলেও জানান। ৯নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক মিজানুর রহমান জানান, তিনি জয়ের ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী। কিন্তু অপর কয়েক প্রার্থী বহিরাগতদের দিয়ে মহড়া দিচ্ছে।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

add-sm
Sonali Tissue
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩