রবিবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২ পৌষ ১৪২৫

ছোট্ট পাখিটি আকাশে উড়েছিল, নামা হলো না

নিউজ ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৩ মার্চ ২০১৮, মঙ্গলবার ০১:২২ পিএম

ছোট্ট পাখিটি আকাশে উড়েছিল, নামা হলো না

ঢাকা : আকাশে ওড়ার বড্ড শখ ছিল ছোট্ট শিশু প্রিয়ন্ময়ীর। শখ হয়তো পূরণও হয়েছিল, কিন্তু সেকথা আর কাউকে জানাতে পারলো না তিন বছরের শিশুটি।

নেপালে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় বাবা এফএইচ প্রিয়কের সাথে প্রাণ গিয়েছে প্রিয়ন্ময়ীরও। আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি প্রিয়ন্ময়ীর মা এ্যানি প্রিয়ক।

বিমানে উঠার আগে প্রিয়ক-এ্যানি দম্পতির সঙ্গে মেহেদি হাসান অমিও-সোনামনি প্রিয়তমা দম্পতিকে টার্মিনালে তোলা দু’টি ছবিতে দেখা যায়। একটি ছবিতে প্রিয়ক ও এ্যানি দম্পতির সঙ্গে তাদের মেয়ে প্রিয়ন্ময়ী এবং অমিও’র স্ত্রী সোনামনিকে দেখা যায়। অপর ছবিতে অমিও-সোনামনি দম্পতির সঙ্গে প্রিয়কের স্ত্রী এ্যানি এবং প্রিয়ন্ময়ীকে দেখা যায়।

প্রিয়কের ভাগ্নে সালাহউদ্দিন জানান, প্রিয়ক এবং প্রিয়কের মেয়ে প্রিয়ন্ময়ী মারা গেছেন। বাকি তিনজন বেঁচে আছেন। ফ্লাইটের দুই শিশুই মারা গেছে। তাদের লাশ পাওয়া গেছে।

সালাহউদ্দিন বলেন, ‘প্রিয়ন্ময়ী খুব চটপটে ছিল। খুব কথা বলতো। গতকালও খুব খুশি ছিল। আমাকে বলেছে- ভাইয়া, আমি আকাশে উড়ব, বিমানে চড়ব।’

এদিকে, সোনামনি প্রিয়তমার বড় বোন সাইয়েদা মুক্ত আমির বলেন, ‘আমার বোন এবং তার স্বামী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।’

প্রসঙ্গত নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একটি বিমান বিধ্বস্ত হয়। চার ক্রুসহ ৭১ জন আরোহীর অধিকাংশই নিহত হয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue