মঙ্গলবার, ১৮ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৪ পৌষ ১৪২৫

‘জিম্বাবুয়ে সিরিজে মুমিনুলের না থাকাটা দূর্ভাগ্য’

ক্রীড়া প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৩ অক্টোবর ২০১৮, শনিবার ০৯:২৩ পিএম

‘জিম্বাবুয়ে সিরিজে মুমিনুলের না থাকাটা দূর্ভাগ্য’

ফাইল ছবি

ঢাকা: তিন বছর পর ওয়ানডে দলে সুযোগ পেয়ে কাজে লাগাতে পারেননি মুমিনুল হক। এশিয়া কাপে দুটি ম্যাচে সুযোগ পেয়ে করতে পেরেছেন ৯ ও ৫। আর এই ব্যর্থতাই তাঁকে থাকতে দিল না ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ে সিরিজের ওয়ানডে দলে। দুটি ম্যাচ খেলিয়ে বাদ দেওয়া মুমিনুলের প্রতি অন্যায় হলো না? তাঁকে তো অপেক্ষাকৃত দূর্বল প্রতিপক্ষ জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সুযোগ দেওয়া যেত কিনা?

এই প্রশ্নগুলো নিয়ে খুব একটা দ্বিমত নেই নির্বাচক হাবিবুল বাশারের। শনিবার মিরপুরে সংবাদমাধ্যমকে এই নির্বাচক বলেছেন, ‘মমিনুলের একটু দুর্ভাগ্য বলব, ওর জন্য আমার সহানুভূতি আছে। আমি মনে করি ওর ওয়ানডে ক্যারিয়ার কখনই শেষ হয়ে যায়নি। ওয়ানডেতে ওর দেওয়ার অনেক কিছুই আছে। কিন্তু এটা আমাদের সুযোগ কিছু ক্রিকেটারকে দেখে নেওয়ার। এরপর ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ, নিউজিল্যান্ড সফরের পর বিশ্বকাপ। তো এই জিম্বাবুয়ে সিরিজটা সুযোগ কিছু ক্রিকেটারকে দেখে নেওয়ার।’

হাবিবুল মনে করেন, সাকিব-তামিম দলে থাকলে আরও খেলোয়াড় পরখ করা যেত। তাঁর ভাষায়, ‘যদি সাকিব-তামিম থাকত এই সিরিজে, তাহলে আমরা আরও খেলোয়াড় দেখতে পারতাম। কিন্তু এখানে আমাদের খুব একটা সুযোগ ছিল না। সেরা কম্বিনেশন ও অভিজ্ঞতার দিকে নজর নিয়ে দল সাজাতে হয়েছে। মমিনুল এশিয়া কাপে দুটি ম্যাচ খেলল, আমি বলব দুটি ইনিংস একজন ব্যাটসম্যানের জন্য যথেষ্ট নয়। তবে যদি ওই দুই ইনিংসে রান করত, তাহলে ওর জন্য ভালো হতো। যেহেতু রান করতে পারেনি আর আমাদের নতুন দুই-একজন ক্রিকেটারকে দেখতে হচ্ছে, তাই দুর্ভাগ্যজনকভাবে বাদ পড়েছে।’

এশিয়া কাপের আগে বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে আয়ারল্যান্ড সফরে আনঅফিসিয়ালি একটি ওয়ানডেতে ১৮২ রানের ইনিংস খেলেছিলেন মুমিনুল। সেই সফরে খুব কাছ থেকে তাঁকে দেখেছেন হাবিবুল। এটা দেখে তাঁর মনে হয়েছে, ‘আমি সম্প্রতি ওর ব্যাটিং দেখেছি ওয়ানডেতে। ও এখন সম্পূর্ণ ভিন্ন একজন ব্যাটসম্যান। আমি নিশ্চিত নই, ওয়ানডে ব্যাটিংয়ের ভাবনা ওর টেস্টের ব্যাটিংয়ে প্রভাব ফেলছে কিনা। টেস্ট ম্যাচে কিন্তু সম্প্রতি ওর কাছ থেকে প্রত্যাশিত পারফরম্যান্স আমরা পাইনি।’

সোনালীনিউজ/আরআইবি/জেডআই