বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

টিভি নাটকের স্ক্রিপ্ট লেখার ১০ টিপস

সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০১ পিএম

টিভি নাটকের স্ক্রিপ্ট লেখার ১০ টিপস

অনেকেই আছেন, যারা টিভি নাটক বা সিনেমার স্ক্রিপ্ট লেখা নিয়া ঝামেলায় আছেন। তাদের সামান্য সাহায্য করার চেষ্টা এই পোস্ট। কারো কাজে লাগলে ভালো লাগবে।

স্ক্রিপ্ট লিখতে গেলে আপনাকে দৃশ্য আকারে লিখতে হবে। একের পর এক দৃশ্য সাজিয়ে আপনি একটা স্ক্রিপ্ট লিখবেন। সাধারণত একটা স্থানে যা ঘটে সেটা একটা দৃশ্যের অন্তর্গত হয়। স্থান বদলে গেলে দৃশ্যও বদলাতে হয়। একটা দৃশ্যের প্রথমেই স্লাগ লাইনে স্থান ও সময় উল্লেখ করতে হয়। তাছাড়া চরিত্র এবং ঘটনাটা উল্লেখ করলে কাজ করতে সুবিধা হয়। দৃশ্যটা ইনডোর নাকি আউট ডোর সেটা উল্লেখ করাও একটা রীতি।
এবার দৃশ্য লেখার জন্য আমার নিজস্ব কয়েকটি টিপস :

০১... লেখক হিসেবে ওই দৃশ্যের প্রয়োজনীয়তা এবং উদ্দেশ্য সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা রাখুন। কোন কারণ ছাড়া কোন দৃশ্য তৈরি করবেন না। একটা দৃশ্য তার পূর্বের দৃশ্যের এবং পরের দৃশ্যের লিংক হিসেবে কাজ করে। সুতরাং সেটা মাথায় রেখেই দৃশ্যটি তৈরি করুন।
০২... দৃশ্যের শুরুতে চরিত্রগুলোর যে অনুভূতি থাকবে, দৃশ্যের শেষে তার বিপরীত বা ভিন্নরকম অনুভূতি তৈরি হবে।
০৩... দৃশ্যের মাঝখানে কোন চরিত্র একটা চমকানো তথ্য দেবে যার কারণে পুরো পরিস্থিতি ঘুরে যাবে। দর্শকও এই তথ্য জেনে অবাক হয়ে যাবে। প্রতিটি দৃশ্যের জন্য একটা চমক সৃষ্টিকারী তথ্য তৈরি করতে হবে।
০৪... প্রতিটি চরিত্রের অনুভূতি পরিবর্তন হবে। দৃশ্যের প্রথমে যে অনুভূতি থাকবে দৃশ্যের মাঝখানে একটা চমকানো তথ্যের কারণে সেটা আমূল বদলে যাবে।
০৫... প্রতিটি চরিত্রের সংলাপ হবে ভিন্নরকম। ভিন্ন ভিন্ন চরিত্রের ভিন্ন ভিন্ন আঞ্চলিক সংলাপ হতে পারে। তবে একই রকম ভাষা হলেও কথা বলার ধরণ ভিন্ন রকম রাখতে হবে। চরিত্রের চিন্তা করার ধরণটা আলাদা করে দিলে সংলাপ আলাদা হতে বাধ্য।
০৬... একই বিষয়ে বিভিন্ন চরিত্রের দৃষ্টিভঙ্গি বা আগ্রহ ভিন্ন রকম হবে। কেউ একটা বিষয়কে পছন্দ করবে, কিন্তু অপর জন বিরক্ত বা নিরাসক্ত থাকতে পারে। মানে চরিত্রগুলো একই রকম হবে না।
০৭... চরিত্রের ভিন্নতা তৈরির জন্য বয়সের পার্থক্য, লিঙ্গের পার্থক্য, শিার পার্থক্য, পেশার পার্থক্য, ধর্ম বিশ্বাসের পার্থক্য, রুচির পার্থক্য ইত্যাদি পার্থক্য দিয়ে রাখেন। তাতে করে চরিত্রগুলো বৈচিত্র্যময় মনে হবে। এটাকে বলা হয় কালার অব ক্যারেকটারাইজেশন।
০৮... সব দৃশ্যে সংলাপ নাও থাকতে পারে। কোন না কোন দৃশ্য মিউট রাখুন।
০৯... একই স্থানের জন্য পর পর অনেকগুলো দৃশ্য তৈরি করবেন না। মাঝখানে একটা দৃশ্য ভিন্ন স্থানে তৈরি করুন। তাতে করে বৈচিত্র্য তৈরি হবে, এক ঘেয়েমি লাগবে না।
১০... দৃশ্যগুলো এমনভাবে পর পর সাজান যাতে করে গল্পের স্রোত কোথাও বাধাপ্রাপ্ত না হয়। যদি কোন দৃশ্য গল্পের স্রোতকে বাধাগ্রস্ত করে, নির্দ্বিধায় সেই দৃশ্য বাদ দিন।

শাহজাহান শামীম
(চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক)
০১৬৮২৩০৩৩১৯, ০১৯১২৫৭৭১৮৭

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

add-sm
Sonali Tissue
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩