মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১০ মাঘ ১৪২৩

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওমানের স্মরণীয় অভিষেক

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৩৪ পিএম

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওমানের স্মরণীয় অভিষেক

স্পোর্টস ডেস্ক

ভারতে চলমান টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মধ্য দিয়ে প্রথমবারের মতো ক্রিকেট বিশ্বকাপের কোনও আসরে অংশ নিয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ ওমান। বুধবার সন্ধ্যায় আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপে যাত্রা শুরু করে দলটি। আর শুরুতেই শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে শক্তিশালী আয়ারল্যান্ডকে ২ উইকেটে হারিয়ে দিয়েছে ওমান। শেষ ওভারে ১৪ রান করে ম্যাচ জিতেছে নবাগত এই দলটি।


ধর্মশালার হিমাচল প্রদেশ ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিং করে আয়ারল্যান্ড। নির্ধারিত ২০ ওভারে  ৫ উইকেট হারিয়ে আইরিশরা ১৫৪ রান সংগ্রহ করে। আয়ারল্যান্ডের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৮ রান করেছেন গ্রে উইলসন। এ ছাড়া দুই ওপেনার উইলিয়াম পোটারফিল্ড ও পল স্টারলিং ২৯ রান করে করেন। ওমানের পক্ষে ৩টি উইকেট নেন পেসার মুনিশ আনসারি।

১৫৫ রানের টাগেটে খেলতে নেমে ৮.৩ ওভারের উদ্বোধনী জুটিতে ৬৯ রান তুলেন জিসান মাকসুদ ও খওয়ার আলি। ব্যক্তিগত ৩৪ রানে খওয়ার আলি আউট হলে এ জুটে ভাঙে। সেখান থেকে ৯০ রানের মাথায় ৫টি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে যায় ওমান। তবে দলকে সেখান থেকে উদ্ধার করেন জিতন্দের ‌‌সিং ও আমের আলি।

শেষ দুই ওভারে জয়ের জন্য ওমানের প্রয়োজন হয় ১৮ রান। ১৯তম ওভারের প্রথম বলে জিতেন্দর সিং (২৪) আউট হলে শঙ্কায় পড়ে যায় ওমান। ওভারের চতুর্থ বলে আউট হন সুলতান আহমেদ (১)। ওই ওভারে মাত্র ৪ রান নেয় ওমান। ফলে শেষ ওভারে জয়ের জন্য ১৪ রান প্রয়োজন পড়ে ওমানের।

শেষ ওভারটি করতে আসেন ম্যাক্স সরেনসেন। প্রথম বলে নো বল দেন তিনি। ওই বলে চার হাঁকান আমের আলি। তবে ফ্রি হিটটি কাজে লাগাতে পারেননি তিনি। নেন একটি মাত্র রান। পরের বলে চার মারেন অজয় লালচেতা । শেষ চার বলে ওমানের প্রয়োজন মাত্র চার রান। পরের বলে সিঙ্গেল নেন অজয়। স্ট্রাইকে আসেন ১৬ বলে ৩২ রান করা আমের। পরের বলে আউট হন তিনি। আবারও ম্যাচে মোড় ঘুরে যায়। শেষ দুই বলে ওমানের প্রয়োজন তিন রান। ক্রিজে আসেন ১০ নম্বর ব্যাটসম্যান মুনিস আনসারি। তবে তাকে কিছুই করতে হয়নি। পরের বলটি ফের নো দেন মুনিস। সেই সঙ্গে বাই ফোর হয় সেটি। তাতে দুই উইকেটে ম্যাচ জিতে যায় ওমান।

বাছাইয়ের গ্রুপ পর্বে ব্যাট-বল হাতে আলো ছড়িয়েছিলেন ওমানের ক্রিকেটাররা। গ্রুপের ছয় ম্যাচের তিনটিতে জয় নিয়ে প্লে-অফের মঞ্চে উঠে আসে তারা। কানাডাকে ৭ উইকেটে, নেদারল্যান্ডসকে ৬ উইকেটে আর আফগানিস্তানকে ৪০ রানে হারিয়ে চমক দেখায় দলটি। এরপর নামিবিয়াকে হারিয়ে বিশ্বকাপের টিকেট পায় ওমান। শুধু তাই নয়, আগামী চার বছরের জন্য আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি খেলার যোগ্যতাও অর্জন করে রেখেছে দলটি।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

Sonali Bazar
add-sm
Sonali Tissue
মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১০ মাঘ ১৪২৩