শনিবার, ২১ জুলাই, ২০১৮, ৫ শ্রাবণ ১৪২৫

থাইল্যাণ্ডের খুদে ফুটবলারদের আসল ‘হিরো’ বলেলেন পগবা

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ জুলাই ২০১৮, বুধবার ০৭:০৫ পিএম

থাইল্যাণ্ডের খুদে ফুটবলারদের আসল ‘হিরো’ বলেলেন পগবা

ঢাকা: আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে সব চেয়ে বড় জয় পেয়েছেন পল পগবা। দল উঠেছে ফাইনালে। বিশ্বকাপের সেমিতে জয় সাধারণত পরিবারের সদস্য, কোচ কিংবা দেশের কিংবদন্তীদেরই উৎসর্গ করেন ফুটবলাররা। কিন্তু ব্যতিক্রম ফ্রান্সের পগবা। থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে পড়া খুদে ফুটবালরদেরই তিনি উৎসর্গ করলেন এই জয়।

সেমিতে বেলজিয়ামের বিরুদ্ধে জয়ের পরই টুইট করেন ফরাসি মিডফিল্ডার। থাইল্যান্ডের গুহায় আটকে পড়া খুদে ফুটবলারদেরই হিরো বলে অভিহিত করেন তিনি।  জানান, এই জয় ওই খুদে নায়কদেরই। ওরা সত্যিই লড়াকু মানসিকতার।

পগবাদের নিজেদের যুদ্ধও অবশ্য সহজ ছিল না। ব্রাজিলের মতো দলকে মাটি ধরিয়ে দিয়েছিল যে বেলজিয়াম, সেই হ্যাজার্ড-লুকাকুদের মুখোমুখি হতে হয়েছিল তাঁদের। কিন্তু দেশঁম স্ট্র্যাটেজি আর গ্রিজম্যানদের দক্ষতায় এবার রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে ছড়িয়ে পড়েছে ফরাসি সুগন্ধ। গোটা ফ্রান্স দলের জন্যই এ বড় সুখের মুহূর্ত।

তবু এই জয় ওই খুদে ফুটবলারদের জন্যই তুলে রাখলেন পগবা। থাইল্যান্ডের এক গুহায় গিয়ে আটকে পড়েছিল খুদে ফুটবলারদের একটি দল। আনন্দ আর অ্যাডভেঞ্চারের নেশায় গিয়ে প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়েছিল। টানা ১৫ দিন ওই গুহায় বন্দি, চলে জীবনের সঙ্গে লড়াই। কিন্তু হাল ছাড়েনি খুদেরা এবং তাদের কোচ। সেনা যখন তাদের কাছে পৌঁছাতে পেরেছিল, তখনও পরিবারের লোকদের আশ্বস্ত করতে জন্মদিন উদযাপনের কথা জানিয়ে চিঠি দিয়েছিল এক খুদে ফুটবলার।

পরে সেনার পরিকল্পনায় তাদের উদ্ধার করা হয়। গুহা থেকে পানি সরিয়ে, ডাইভাররা এক এক জন খুদে ফুটবালকে উদ্ধার করে। ফুটবলের স্পিরিটের পাশাপাশি, এই খুদেরা যেভাবে জীবনের সঙ্গে লড়াইয়েও নিজেদের লড়াকু মানসিকতার পরিচয় দিয়েছে তা মুগ্ধ করেছে পগবাকে। তাই নিজেদের যুদ্ধজয়ের চেয়েও বড় যুদ্ধজয় মনে করেছেন খুদেদের এই লড়াইকে। পগবা তাদেরই উৎসর্গ করেছেন এই জয়।

সোনালীনিউজ/আরআইবি/জেডআই