সোমবার, ২২ অক্টোবর, ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫

ধর্ষণের অভিযোগ মিথ্যা, যা হয়েছে দু’জনের ইচ্ছায়

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার ০৯:০৩ পিএম

ধর্ষণের অভিযোগ মিথ্যা, যা হয়েছে দু’জনের ইচ্ছায়

ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: রিয়াল মাদ্রিদে ভালই সময় কাটছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। কিন্তু জুভেন্টাসে যোগ দেয়ার পর থেকেই অস্বস্তিতে ভুগছেন এই পর্তুগিজ তারকা। এবার নারী কেলেঙ্কারীতে নাম জড়িয়েছেন বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা এই তারকা। ক্যাথরিন মায়াগো নামে যুক্তরাষ্ট্রের এক নারী রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন।

২০০৯ সালে লাস ভেগাসের হোটেলে রোনালদোর বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছিলেন সাবেক মার্কিন মডেল ক্যাথরিন মায়োরগা। লাস ভেগাসে একটি হোটেলে রোনালদো তার সঙ্গে জোর করে যৌন সম্পর্ক স্থাপন করেন। পুলিশে অভিযোগ করলেও তদন্ত না করে ২০১০ সালে আদালতের বাইরে তিন লাখ ৭৫ হাজার ডলারে তা মীমাংসা হয় বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

সাময়িকভাবে সেই মামলা বন্ধ হয়ে গেলেও আবার নতুন করে স্থানীয় পুলিশ সেই মামলা শুরু করেছে। ক্যাথরিনের আইনজীবী‘দ্য সান’কে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনে আরও তিনজন মহিলা তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন।

এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন জার্মানির একটি সাপ্তাহিক প্রকাশ করার পর বিষয়টি আলোচনায় আসে।  তবে ঘটনার সপক্ষে দায়ের করা নথিপত্র নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন রোনালদোর আইনজীবী। সেই চুক্তির বিষয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, একটি গণমাধ্যম দায়িত্বহীনভাবে এমন সব তথ্য প্রকাশ করা যাচ্ছে, যা চুরিকৃত এবং ডিজিটাল উপায়ে সহজেই তৈরিকৃত নথির উপর প্রতিষ্ঠিত। যার গুরুত্বপূর্ণ অংশই পরিবর্তিত বা সম্পূর্ণ তৈরিকৃত।

এ ব্যাপারে রোনালদোর আইনজীবী বলছেন, রোনালদো চুক্তির বিষয়টি অস্বীকার করেননি। তবে যেসব কারণ এর পেছনে বলা হচ্ছে তা অন্তত বিকৃত। চুক্তির অর্থ এই নয় যে তিনি দোষ স্বীকার করে নিয়েছেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue