বুধবার, ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৭, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

নাটোরে আ’লীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ : গুলিবিদ্ধ ৪

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৪৩ পিএম

নাটোরে আ’লীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ : গুলিবিদ্ধ ৪

নাটোরে আ’লীগ-ছাত্রলীগ সংঘর্ষ : গুলিবিদ্ধ ৪

নাটোরের গুরুদাসপুরে আওয়ামী লীগ নেতা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন ও উপজেলা ছাত্রলীগ সম্পাদক মন্ডল মেহেদী হাসান গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এতে চারজন গুলিবিদ্ধসহ আহত হয়েছে ৮ জন।

সংঘর্ষ চলাকালে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছেও পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে ব্যর্থ হয়। এসময় প্রায় আধাঘণ্টা বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়ক অবরুদ্ধ হয়ে পড়ে।  

মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলায় ধারাবারিষার নয়াবাজারে এ সংঘর্ষ হয়।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সংঘর্ষের সময় দুই রাউন্ড গুলির শব্দ পাওয়া গেছে। বিকেল সাড়ে ৪টায় আওয়ামী লীগ নেতা ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন শেষে নয়াবাজারে দলীয় কার্যালয়ে যান। সেখানে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের শতাধিক কর্মী সমর্থক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে চেয়ারম্যানের ব্যক্তিগত অফিসে হামলা চালায়।

এসময় চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন ও তার সহকর্মীরা কৌশলে পালিয়ে গেলেও তার ভাতিজা আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল মজিদের ছেলে আলামিন হীরা, নূর আলী (৪০) ফালার আঘাতে গুরুতর আহত হন। তাছাড়া মিন্টু (২৪) নামের জনৈক পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়। এছাড়াও ওই সময় মনি (৩৫) ও বিল্টু (৩৬) নামের দুজনও আহত হয়।

সংঘর্ষ চলাকালে ছাত্রলীগ নেতা গ্রুপের রাশিদুল (২৬), বাবলু (৩১) ও মিন্টু (২৭) গুলিবিদ্ধ হয়। এদের মধ্যে আলামিন হীরা, নুর আলী ও মিন্টুকে গুরুদাসপুর উপজেলা স্থাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক আশঙ্কাজনক অবস্থায় আলামিন হীরাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করেন।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ধারাবারিষা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন জানান, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মন্ডল মেহেদী হাসানের নেতৃত্বে হামলাকারীরা আমাদের ছেলেদের মারপিট সহ অফিস ভাঙচুর করেছে।

এদিকে, আওয়ামী লীগ নেতা মো. আব্দুল মতিন মাস্টারের বাসভবনে হামলার চেষ্টার প্রতিবাদে বিকেলে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদের নেতৃত্বে সম্মেলনে প্রতিবাদ লিপিতে উল্লেখ করা হয়, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সোমবার সন্ধ্যা ৭টায় আনোয়ারুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মন্ডল মেহেদী হাসান, জিয়া মাস্টার, তমেজুর রহমানের নেতৃত্বে শতাধিক উশৃঙ্খল বাহিনী নয়াবাজার থেকে সমবেত হয়ে শিধুলীতে অবস্থিত ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিনের অনুপস্থিতিতে তার বাসভবনে হামলা ও ভাঙচুরের চেষ্টা চালায়। সংবাদ সম্মেলনে ইউপি সদস্যরা ছাড়াও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।