মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১১ মাঘ ১৪২৩

নিশীথ দাস এর কবিতা

সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০১ পিএম

নিশীথ দাস এর কবিতা

শূন্যঘরের নামতা


এখন দুর্ভিক্ষ প্রহর। ধোঁয়ায় ধোঁয়ায় প্রাণ ওড়ে
মধ্যাকাশে দাঁতাল জোঁক বসে খায় কুড়ানো
ভগ্নাংশ সময়। মদের গ্লাসে গ্লাসে রাশি রাশি
ব্যথার বৃত্তান্ত, উদ্বাস্তু মেঘ মরে ক্লান্তির প্ল্যাটফর্মে
ভোর হতে না হতেই দ্রুত-উপদ্রুত সাদামাটা
পথে রাত আসে ফের
শূন্যঘরের নামতায় ভিজে যায় প্রেমবিশদ, আরো অনেক কিছু...



খুঁজছি কিছু নীল


কিছু নীল আমায় দিয়েছিল
নতুন জীবনের স্বপ্নব্যাখ্যা, প্রাকৃতিক প্রেরণা
ভালোবাসার শব্দহীন উৎসব ছোঁয়া
আমি সেই নীলে ছিলাম মগ্ন বহুদিন
আমি সেই নীলের সুবাসে উড়িয়েছি
লালদীঘি কতো
অন্ধচাঁদকে দেখিয়েছি ঝুলন্ত উদ্যান
স্নেহস্বরে প্রায় যৌবনপ্রাপ্ত ধানকে ধূসর দীঘি
থেকে ডেকে এনে স্বপ্নময় বাক্য, মতবাদ...
দিয়েছি উপহার।

আমি তুমি তুমি করতে করতে একবার ঠিকই
ধরেছি তোমার হাত তারপর
তোমাকে জড়িয়ে ধরে রীতিমত বিদ্যাপাঠ
নীরবতায় ভেসে গেলো কিছুক্ষণ
মনে আছে ধারালো গাছ সেসব?

এখন হৃদয়ের ঢেউয়ে ঢেউয়ে
আমি নীল খুঁজছি, কিছু নীল, সেসব নীল।



মৃন্ময় দুল


মৃন্ময় দুল, কেমন আছো?
ঠাণ্ডা লেগেছে? কাশছো?
কারো কোলে দুলে আছো?

দুলে দুলে স্বভাব হচ্ছে বিকশিত তোমার
সনাতন অভিযোগ প্রায়ই-
কিন্তু কী করে বোঝাই প্রিয় সম্ভাব্য বউ!
আমার মনে থাকে চুনাপাথর, খনিজ তেল...
চর্বি জাতীয় কিছু নয়
তাঁবুর তলে ছড়ানো ক্ষুধার্ত পিয়ানো গুছিয়ে
দীর্ঘশ্বাসে বেঁচে আছে কোনো কোনো উদ্ভিদ
আর দুঃখ নিও না
মনে রেখো সবদিন

নদীর ধারে ঘর ও বাড়ি কোনোটাই বিশ্বস্ত হয় না।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

Sonali Bazar
add-sm
Sonali Tissue
মঙ্গলবার, ২৪ জানুয়ারি, ২০১৭, ১১ মাঘ ১৪২৩