রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

পঞ্চম ধাপের ইউপি ভোট শনিবার

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

পঞ্চম ধাপের ইউপি ভোট শনিবার

ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের পর্যায়ক্রমিক ছয়টির মধ্যে চারটির ভোট ইতিমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে। এবার পঞ্চম ধাপের ভোটগ্রহণ শুরু হচ্ছে শনিবার (২৮ মে)। ৪৭ জেলার ৭২৯টি ইউপিতে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার পর থেকে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা শেষ হয়েছে। নির্বাচন উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকার আইন-শৃঙ্খলা রক্ষায় মাঠে রয়েছেন বিভিন্ন বাহিনীর সদস্যরা। নির্বাচনী অনিয়মে তাৎক্ষণিকভাবে সাজা দিতে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের পাশাপাশি মাঠে থাকছেন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটরাও।

ইসির এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোনো নির্বাচনী এলাকায় ভোটগ্রহণ শুরুর পূর্ববর্তী ৩২ ঘণ্টা জনসভা আহ্বান, অনুষ্ঠান বা তাতে যোগদান এবং কোনো মিছিল বা শোভাযাত্রা আয়োজন করা যাবে না।

নির্বাচন কমিশনার মোহাম্মদ শাহনেওয়াজ জানান, নির্বাচন চলাকালীন যান চলাচলের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে ভোটগ্রহণের পূর্ববর্তী তিনদিন আগে থেকে ভোটের দিন রাত ১২টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা রাখতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে বলা হয়েছে।

ইসির নির্দেশনা থেকে জানা যায়, শুক্রবার (২৭ মে) মধ্যরাত থেকে শনিবার (২৮ মে) মধ্যরাত পর্যন্ত বেবিটেক্সি, অটোরিকশা, ইজিবাইক, ট্যাক্সি ক্যাব, মাইক্রোবাস, জিপ, পিকআপ, কার, বাস, ট্রাক, টেম্পো প্রভৃতি যানবাহন চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। তবে জরুরি সেবায় নিয়োজিত যানবাহনের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা প্রযোজ্য নয়।

নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, রিটার্নিং কর্মকর্তার অনুমতি সাপেক্ষে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বা তাদের নির্বাচনী এজেন্ট, দেশি-বিদেশি পর্যবেক্ষকদের (পরিচয়পত্র থাকতে হবে) ক্ষেত্রে শিথিলতা থাকবে। তা ছাড়া নির্বাচনে সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত দেশি/বিদেশি সাংবাদিকদের পরিচয়পত্র থাকতে হবে।

নিষেধাজ্ঞায় বলা হয়েছে, ভোটের দিনের পূর্ববর্তী রাত অর্থাৎ শুক্রবার দিবাগত রাত ১২টা থেকে গ্রহণের দিন শনিবার দিবাগত রাত ১২টা পর্যন্ত লঞ্চ, ইঞ্জিনচালিত সব ধরনের নৌযান ও স্পিট বোট চলাচল করতে পারবে না। তবে জনগণ বা ভোটারদের চলাচলের জন্য ক্ষুদ্র নৌযান চলাচল নিষেধাজ্ঞার বাইরে রাখতে বলা হয়েছে।

এর আগে, গত ২২ ও ৩১ মাচর্, ২৩ এপ্রিল এবং ৭ মে চার ধাপে ইউপি নির্বাচনে ব্যাপক অনিয়ম আর সহিংসতার কারণে পঞ্চম ধাপের নির্বাচন নিয়ে বড় ধরনের আতঙ্কে রয়েছে বিরোধী রাজনৈতিক দল এবং নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী স্বতন্ত্র প্রার্থী ও তাদের কর্মী-সমর্থকেরা।

সরকারদলীয় নেতাকর্মী ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়তায় ভোটারদের হয়রানি, ভয়-ভীতি প্রদর্শন, হামলা-মামলাসহ বিরোধী রাজনৈতিক দল ও স্বতন্ত্র প্রার্থীদের নির্বাচনী প্রচারণায় বাধা দেয়ার অভিযোগের মধ্যেই অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ নির্বাচন। এই আতঙ্কের মধ্যেই শুরু হচ্ছে এই পঞ্চম ধাপের ইউপি নির্বাচন। ইতোপূর্বে অনুষ্ঠিত চার দফার নির্বাচনে সারাদেশে কমপক্ষে ৯০ জন নিহত এবং ছয় হাজারের বেশি লোক আহত হয়েছেন।

নির্বাচনকে সুষ্ঠু করার লক্ষ্যে প্রায় সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে ইসি। নির্বাচনের জন্য চেয়ারম্যান, সাধারণ ও সংরক্ষিত সদস্য পদের জন্য প্রায় পাঁচ কোটি ব্যালট পেপারসহ সব সামগ্রী গত মঙ্গলবারই (২৪ মে) জেলা নির্বাচন অফিসে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে সেগুলো ভোটের আগের দিন তা কেন্দ্রে কেন্দ্রে নিয়ে যাবেন সংশ্লিষ্ট নির্বাচনী এলাকার প্রিসাইডিং অফিসাররা।

সর্বশেষ ৬ষ্ঠ ধাপে আগামী ৪ জুন ৬৬০টি ইউপিতে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩