মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭, ১৩ আষাঢ় ১৪২৪

পাক ক্রিকেটে অবসরের হিড়িক!

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৪৩ পিএম

পাক ক্রিকেটে অবসরের হিড়িক!

স্পোর্টস ডেস্ক
দুবাইয়ের মাস্টার্স ক্রিকেট লিগে (এমসিএল) বেশ কয়েকজর পাকিস্তানি ক্রিকেটোর খেলতে চেয়েছিলেন । কিন্তু পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে অনাপত্তিপত্র না পাওয়ায় সেখানে অবসর নেওয়ার ধুম পড়ে গেছে। গত কয়েক দিনে মোহাম্মদ ইউসুফ, আবদুল রাজ্জাক, তৌফিক উমর, রানা নাভিদুল হাসান, ইয়াসির হামিদ, মোহাম্মদ খলিলের মতো প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে নিয়মিত বেশ কয়েকজন ক্রিকেটার তাদের অবসর নেয়ার কথা বোর্ডকে জানিয়েছেন।

এ ঘটনায় কিছুটা বিপকেই পড়েছেন পিসিবি । এক বিবৃতিতে পিসিবি জানিয়েছে, বোর্ড কেবল সেই ক্রিকেটারদেরই অনাপত্তিপত্র দেবে, যারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আর না ফেরার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে। তবে মাস্টার্স ক্রিকেট লিগে খেলার জন্য অবসর নেওয়া বেশির ভাগ ক্রিকেটারই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরবে কি ফিরবে না এ সম্পর্কে চূড়ান্ত কিছুই জানায়নি বোর্ডকে।

অন্য এক দিক দিয়েও মাস্টার্স ক্রিকেট লিগ বিপদে ফেলেছে পাক ক্রিকেট বোর্ডকে ।কারন আগামী ২৮ জানুয়ারি থেকে দুবাইয়ে শুরু হতে যাওয়া সাবেক ক্রিকেটারদের অংশ গ্রহনে টি-২০  প্রতিযোগিতা সাংঘর্ষিক হচ্ছে পাকিস্তানের ঘরোয়া টি-টোয়েন্টি লিগ পাকিস্তান সুপার লিগের (পিএসএল) সঙ্গেও। বাণিজ্যিক দৃষ্টিকোণ থেকেও ব্যাপারটা পিসিবির জন্য চিন্তার বিষয়।
এ কারণে পাকিস্তানি ক্রিকেটারদের এমসিএলে ছাড়ার ব্যাপারে একটু কড়াকড়ি আরোপের কথাই ভাবছে পিসিবি।
এমনিতে মাস্টার্স লিগে সৌরভ গাঙ্গুলি-জ্যাক ক্যালিসদের মতো একগাদা সাবেক তারকা খেলবেন। এ কারনে দর্শকদের বড় একটা অংশ হাতছাড়া হয়ে যাবে পিএসএলের। পিসিবি এই এই টুর্নামেন্টকে সৎ​ ভাইয়ের দৃষ্টিতেই দেখছে। পিএসএলে না খেললেও পাকিস্তানের সাবেক তারকা ক্রিকেটাররা বিভিন্ন ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে নানা ভূমিকায় যুক্ত থেকে কাজ করতেই পারেন। আইপিএল কিংবা বিপিএলেও তা-ই হয়ে আসছে। এতে টুর্নামেন্টের আকর্ষণও বাড়ছে।
কিন্তু এমসিএলে খেলতে চাওয়া ক্রিকেটারদের কেউই পিএসএলের কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজির সঙ্গে যুক্ত নন। সাবেক ক্রিকেটারদের বড় অংশ সেই সুযোগটা না পেয়ে স্বাভাবিকভাবেই মাস্টার্স লিগের ব্যাপারে আগ্রহী হয়েছে। কিন্তু এখানেও বাদ সাধতে চাইছে পিসিবি।

পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের এ সিদ্ধান্ত সম্পর্কে মোহাম্মদ ইউসুফের বলেন , ব্যাপারটা জুলুম ছাড়া আর কিছুই নয়। এই খেলোয়াড়দের রুটি-রুজি বাধাগ্রস্ত করার নৈতিক অধিকার পিসিবির আছে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তিনি। সবাই জানে আমরা অবসর নেওয়া ক্রিকেটার। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে খেলার আর কোনো সম্ভাবনাই আমাদের নেই। এ সময় আমরা যদি কিছুটা বাড়তি অর্থ আয়ের সুযোগ পাই, তাতে পিসিবি বাধা দেওয়ার কে!
আরেক পাক ক্রিকেটার ইয়াসির হামিদ জানিয়েছেন, এমসিএলের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার জন্য আমাকে কেবল অনাপত্তিপত্র সংগ্রহ করতে বলা হয়েছে। পাকিস্তান ক্রিকেট থেকে আমাকে অবসর নিতে হবে, এমন কোনো কথা এমসিএল কর্তৃপক্ষ আমাকে বলেনি।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/মে

 

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue
মঙ্গলবার, ২৭ জুন, ২০১৭, ১৩ আষাঢ় ১৪২৪