বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

পিরিয়ড কী আপনার ত্বক খারাপ করে দিচ্ছে?

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৩ পিএম

পিরিয়ড কী আপনার ত্বক খারাপ করে দিচ্ছে?

সোনালীনিউজ ডেস্ক
বিষয়টা আপনিও খেয়াল করেছেন নিশ্চয়ই। ত্বকের যত্ন নেওয়া সত্ত্বেও মাসের ওই সময়টাতেই কেন যেন ত্বকের অবস্থা বেশি শোচনীয় হয়ে পড়ে। একেবারে নিয়ম করে অনেকের ত্বক পিরিয়ডের আগে দিয়ে খারাপ হয়ে যায়, ব্রণ উঠে ভরে যায় মুখ।

আপনি একা নন, অনেকেরই এই ব্যাপারটায় ভুগতে হয়। কিন্তু কেন হয় এমন? পিরিয়ডের সাথে ত্বকের সম্পর্ক কী? কথা বলেন আনোয়ার খান মেডিকেল কলেজ হসপিটালে কর্মরত ডাক্তার আয়শা নূর।

ডাক্তার নূরের মতে, পিরিয়ডের সময়ে, আগে ও পরে আমাদের শরীরে হরমোনের মাত্রায় যেসব পরিবর্তন আসে সেসবের প্রভাব পড়ে ত্বকের ওপরে এবং এ থেকেই দেখা যায় ব্রণ বা পিম্পল। আমাদের মেন্সট্রুয়াল সাইকেলের বিভিন্ন পর্যায়ে আমাদের শরীরে হরমোনের মাত্রা একেক রকমের হয় এবং তার ওপর নির্ভর করে ত্বকের পরিবর্তন আসে এভাবে-

পিরিয়ডের পর থেকে ওভ্যুলেশন বা ডিম্বপাত পর্যন্ত
অনেকেই জানেন যে আমাদের মেন্সট্রুয়াল সাইকেল ২৮ দিনের, এর ১৪-১৫ দিনের মাথায় দেখা দেয় ওভ্যুলেশন। ২৮ দিনের এই সাইকেলের প্রথম অর্ধেকে আমাদের শরীরের ইস্ট্রোজেন অনেক বেশি থাকে।

ফলে এ সময়ে আমাদের ত্বক বেশ ভালো থাকে। এ সময়ে বেশিরভাগ নারীর ত্বকে কোনো সমস্যা দেখা যায় না। এ সময়ে আমরা স্বাভাবিকভাবেই মুখ ধোয়া, ময়েশ্চারাইজিং এসব কাজ চালিয়ে যেতে পারি।

ওভ্যুলেশনের পর থেকে পিরিয়ডের কিছুদিন আগে পর্যন্ত
এই সময়টা হলো মেন্সট্রুয়াল সাইকেলের পরবর্তী অর্ধেক। এ সময়ে প্রোজেস্টেরন হরমোনের মাত্রা বেড়ে যায়। এই সময়ে ত্বকের রোমকুপ বা পোর ছোট হওয়াতে অনেকেই খুশি হন বটে। কিন্তু এটা আমাদের ত্বকের সিবাম উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়, ফলে ত্বকে ব্রনের উৎপাত বেড়ে যেতে পারে।

সিবাম বেড়ে গেলে কারো কারো ত্বক গ্লো করে, কারো ত্বক আবার একেবারে তেলেতেলে দেখায়। এই সময়ে ত্বক পরিষ্কার রাখাটা খুবই জরুরী। তাই ত্বক থেকে হাত দূরে রাখুন এবং মোবাইল ফোন রাখুন পরিষ্কার।

এছাড়াও ত্বক পরিষ্কার রাখতে ব্যবহার করতে পারেন এমন ফেসওয়াশ যাতে আছে স্যালিসাইলিক এসিড। ব্যাকটেরিয়া দূর করার জন্য ব্যবহার করতে পারেন বেঞ্জয়িল পারক্সাইড ক্রিম।

পিরিয়ডের ঠিক আগে
এই সময়টায় দুম করে পড়ে যায় শরীরে ইস্ট্রোজেন এবং প্রোজেস্টেরনের মাত্রা। ফলে শরীরে এগুলোর চাইতে বেশি পরিমাণে থাকে টেস্টোস্টেরন হরমোন।

টেস্টোস্ট্রেরন অনেকেই চেনেন পুরুষের হরমোন হিসেবে কিন্তু নারীদের শরীরেও তা থাকে। এই সময়ে যেসব ব্রণ হয় সেগুলো এড়ানো কঠিন। তাই ত্বকের যত্নে হতে হবে আরও সতর্ক। ডাক্তার আয়শা নূর বলেন, এ সময়েই বেশিরভাগ নারীর ব্রণ হতে দেখা যায়।

পিরিয়ডের কারণে ত্বকে যেসব পরিবর্তন আসে সেগুলোর পেছনে মূলত হরমোন দায়ী। শরীরের জন্য তো হরমন লাগবেই, তাই এটাকে এড়াতে পারবেন না বটে। কিন্তু ত্বকের যথাযথ যত্ন নিলে ব্রনের উপদ্রব কিছুটা হলেও কমিয়ে রাখা সম্ভব।

পরামর্শদাতা: ডাক্তার আয়শা নূর মিলি
এমবিবিএস
আনোয়ার খান মেডিকেল হাসপাতাল

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩