শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

পিরোজপুরে স্বামী হত্যা : স্ত্রী-প্রেমিকের মৃতদণ্ড

পিরোজপুর প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ অনলাইন
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০১ পিএম

পিরোজপুরে স্বামী হত্যা : স্ত্রী-প্রেমিকের মৃতদণ্ড

পিরোজপুরের জিয়ানগর উপজেলার দক্ষিণ কলারণ গ্রামে মনিরুজ্জামান ওরফে মানিক মাঝির হত্যাকাণ্ডে অভিযুক্ত স্ত্রী শিউলী বেগম ও তার ‘প্রেমিক’ আসাদ মাঝিসহ চারজনের মৃতদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

রাষ্ট্রপক্ষের পিপি খান মো. আলাউদ্দিন জানান, পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. গোলাম কিবরিয়া বুধবার দুপুরে এই চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার রায় দেন। শিউলী বেগম (৩৬) ও আসাদ মাঝি (৩৬) ছাড়া ফরিদ আহমেদ ওরফে ফনি গাজী (৪৪) ও বেল্লাল মাঝির (৩৬) মৃতদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের সবাইকে ৫০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

মামলার বাদী নিহতের ভাই মিজানুর রহমান এজাহারে উল্লেখ করেন, অবৈধ সম্পর্কের পথে বাধা মানিক মাঝিকে সরিয়ে দিতে ‘প্রেমিক’ আসাদ মাঝি, ফনি গাজী ও বেল্লালের সঙ্গে পরিকল্পনা করেন শিউলি বেগম।

এজাহারে বলা হয়েছে, পরিকল্পনা অনুযায়ী ২০১০ সালের ২৫ মে মধ্যরাতে শরবতের সঙ্গে চেতনানাশক ওষুধ মিশিয়ে অজ্ঞান করা হয় মানিক মাঝিকে। দু্ই ছেলে মাহির ও মাহিন ঘুমিয়ে পড়লে আসামিরা মানিকের গলাকেটে, ঘাড়ে ও পেটে কোপ দিয়ে তাকে হত্যা করে মৃত্যু নিশ্চিত করে।

মিজানুর রহমানের অভিযোগ, আসাদের সঙ্গে স্ত্রী শিউলির অবৈধ প্রেমের কথা জেনে গিয়েছিলেন মানিক। তাতেই ক্ষিপ্ত হয়ে শিউলি এই হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা করে।

পিপি মো. আলাউদ্দিন জানান, হত্যা রহস্য উদঘাটন করে আদালতে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত চারজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল করে পুলিশ। মামলার রায় প্রদানের দিন শিউলী উপস্থিত থাকলেও অন্য তিনজন উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়ে আদালতে অনুপস্থিত ছিল।

আসামি শিউলীর পক্ষে এ্যাডভোকেট দেলোয়ার হোসেন এবং পলাতকদের পক্ষে রাষ্ট্র নিয়োজিত আইনজীবী এ্যাডভোকেট ফাতেমা বেগম লাকী মামলা পরিচালনা করেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/মে

 

add-sm
Sonali Tissue
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩