বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

পৌর নির্বাচন : ভোট সম্পন্ন, চলছে গণনা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

পৌর নির্বাচন : ভোট সম্পন্ন, চলছে গণনা

বড় ধরনের কোনো সহিংসতা ছাড়াই পৌরসভা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে বুধবার (২৫ মে) দেশের ৯টি পৌরসভার ভোট সম্পন্ন হয়েছে। এদিন সকাল ৮টায় ভোটগ্রহণ শুরু হয়ে শেষ হয় বিকেল ৪টায়। ভোট শেষে ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে গণনা। ভোট গণনা শেষে আজই ঘোষণা হবে ফলাফল। এ উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকাগুলোতে আজ সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে।

তৃতীয় ধাপের এ ভোটে নরসিংদীর ঘোড়াশাল ও রায়পুরা, লক্ষ্মীপুরের সদর, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা, নোয়াখালীর সদর ও সেনবাগ, ফেনীর ছাগলনাইয়া, কক্সবাজারের টেকনাফ ও খাগড়াছড়ির রামগড় পৌরসভায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তবে সকাল থেকে বেশ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাররা কেন্দ্রে এসে ভোট দেয়া শুরু করে। আবার কোথাও কোথাও একেবারেই ছোটখাটো সহিংসতার চিত্র চোখে পড়ে। প্রশাসনের কড়া নজরদারিতে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ছিল বলা চলে।

মেয়র পদের ২৭ প্রার্থীসহ সাধারণ ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদ মিলিয়ে এ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট ৪১৩ জন। স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনে এবার মেয়র পদে ভোট হচ্ছে দলীয়ভাবে।

সব মিলিয়ে নয় পৌরসভায় মেয়র পদে দলীয় ২১ জন ও স্বতন্ত্র ছয়জন, সাধারণ সদস্য পদে ৩১৬ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য পদে ৭০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

নির্বাচনে ১৩৩টি ভোটকেন্দ্রের ৮৯৭টি ভোটকক্ষে মোট তিন লাখ ১৩ হাজার ৬৫১ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ পেয়েছেন। এদের মধ্যে পুরুষ ১ লাখ ৫৯ হাজার ২৫৫ জন ও নারী ১ লাখ ৫৪ হাজার ৩৯৬ জন।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বরের ভোটে ২২৭টি পৌরসভার মধ্যে ১৭৭টি আওয়ামী লীগ, বিএনপি ২২টি ও জাতীয় পার্টি একটিতে মেয়র পদে জয় পেয়েছিল। এছাড়া ২৬টি পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থীরা বিজয়ী হয়েছেন। এরপর ২১ মার্চ অনুষ্ঠিত ১০ পৌরসভা নির্বাচনে সবগুলোতেই জয় পেয়েছে আওয়ামী লীগ।

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের লক্ষ্যে নির্বাচনী এলাকায় নিয়োজিত রয়েছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ৩৮টি দল ও ১২ প্লাটুন বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। যারা ২৬ মে পর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করবে। এ ছাড়া পুলিশ ও আনসার বাহিনীর সদস্যরা ভোটকেন্দ্রে নিরাপত্তার দায়িত্বে নিয়োজিত রয়েছেন।

সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের স্বার্থে নির্বাচনী এলাকায় ২৬ মে সকাল ৬টা পর্যন্ত মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। একইসঙ্গে বুধবার দিনগত রাত ১২টা পর্যন্ত সব ধরনের মোটর ও নৌযানও চলাচল করতে পারবে না নির্বাচনী এলাকায়।

পৌরসভায় প্রতিদ্বন্দ্বী
রায়পুরা পৌরসভায় ৫ জন মেয়র ও ৩৮ জন কাউন্সিলর প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ পৌরসভায় ২ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে একজন প্রার্থী থাকায় তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

ঘোড়াশাল পৌরসভায় ২ জন মেয়র ও ২১ জন কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন। এর মধ্যে ৬ জন কাউন্সিলর বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

লক্ষ্মীপুর সদর পৌরসভায় ২ জন মেয়র ও ৬৭ জন কাউন্সিলর, কসবা পৌরসভায় ২ জন মেয়র ও ৩৫ জন কাউন্সিলর, নোয়াখালী পৌরসভায় ৩ জন মেয়র ও ৪৮ জন কাউন্সিলর রয়েছেন।

এ ছাড়া সেনবাগ পৌরসভায় ৪ জন মেয়র ও ৪৬ জন কাউন্সিলর, ছাগলনাইয়া পৌরসভায় ৩ জন মেয়র ও ৪৬ জন কাউন্সিলর, টেকনাফ পৌরসভায় ২ জন মেয়র ও ৩১জন কাউন্সিলর এবং রামগড় পৌরসভায় ৩ জন মেয়র ও ৫৪ জন কাউন্সিলর প্রার্থী রয়েছেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

add-sm
Sonali Tissue
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৩ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩