শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৭, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

বর্ষার আগেই বেড়েছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৯ পিএম

বর্ষার আগেই বেড়েছে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা

সোনালীনিউজ ডেস্ক

দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে প্রায় প্রতিদিনই ভর্তি হচ্ছে ডেঙ্গু রোগী। এ বছর বর্ষার আগেই এ সংখ্যা বেড়েছে বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

রোগতত্ত্ব গবেষণা প্রতিষ্ঠান আইইডিসিআরের গবেষণায় উঠে এসেছে, সারা বছর থেমে থেমে বৃষ্টিপাত, ঘনবসতি ও অপরিকল্পিত নগরায়নের ফলে ডেঙ্গুর বাহক এডিস মশার বংশ বিস্তারের মাত্রা বেড়েছে। তবে সচেতন থাকলে ডেঙ্গুরোগ থেকে অনেকাংশে রেহাই পাওয়া সম্ভব বলে জানান চিকিৎসকরা।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, ২০০৬ সাল থেকে গত ১০ বছরে মোট ১১ হাজার ৮শ ১৭ জন ডেঙ্গু রোগীর মধ্যে শুধু ২০১৫ সালেই শনাক্ত হয় রেকর্ড পরিমাণ ৩ হাজার ১শ ৬২জন। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য মতে, গতবছর জানুয়ারি থেকে মার্চ পর্যন্ত তিন মাসে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ছিল মাত্র ২ জন আর এবছর প্রথম তিন মাসে এ সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩৫ জনে।

এই অবস্থায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগ বলছে, এবছর ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা গত বছরের তুলনায় আরো বৃদ্ধি পাওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ডা, এ কে এম শামছুজ্জামান বলেন, ‘যেহেতু বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে, তাই এডিস মশার প্রজনন বাড়বে। আর তাই ডেঙ্গু রোগের প্রদূর্ভাবও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে।’

আইইডিসিআরের পরিচালক ডা. মাহমুদুর রহমান বলছেন, ‘ডেঙ্গু রোগীদের সুচিকিৎসার জন্য ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে সার্ভিলেন্স টিম নিযুক্ত করা হয়েছে।’

গবেষকরা বলছেন, ‘ডেঙ্গু রোগ নিয়ন্ত্রণে গৃহস্থালির বিভিন্ন পাত্র ছাড়াও পরিত্যক্ত টায়ার, রাস্তার পাশের খানাখন্দক, নির্মাণাধীন ভবনের আশে পাশে ফুলগাছের টব ও পরিত্যাক্ত প্লাস্টিকের বোতলে যেন পানি জমতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।’

সোনালীনিউজ/আমা