শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

বাঘায় পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় মাছ চাষিরা বিপাকে

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৯ পিএম

বাঘায় পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় মাছ চাষিরা বিপাকে

রাজশাহী প্রতিনিধি

রাজশাহীর বাঘায় ৫০ শতাংশ পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় মাছ চাষির বিপাকে পড়েছে। পানির অভাবে ও স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় অনেকে মাছ চাষ বন্ধ করে দিয়েছে। উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানা যায়, সরকারি, আধাসরকারি ও বাক্তি মালিকানাসহ প্রায় সাড়ে ৪ হাজার পুকুর আছে। এর মধ্যে প্রায় ৫০ ভাগ পুকুর শুকিয়ে গেছে। চাষী সুজিত হালদার জানান, মাছ চাষের পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় অনেক ক্ষতি হয়েছে। কোন উপায় না পেয়ে মাছ চাষ বন্ধ করে দিয়েছি প্রায়। চাষি তোফাজ্জল হোসেন তুফান জানান, ৭টি পুকুর লিজ নেয়া ছিল। ইতিমধ্যে ৩টির পানি শুকিয়ে গেছে। মাছ ব্যবসায়ী সুপদ হালদার ও রতন হালদার জানান, পুকুর শুকিয়ে যাওয়ায় কারনে মাছ চাষীরা পুকুরে মাছ চাষ বন্ধ করে দিয়েছে। দিঘা গ্রামের তসলিম উদ্দিন জানান, তিন বিঘা জমির উপর পুকুর মাছ চাষের জন্য ৬০ হাজার টাকায় বিনিময়ে লিজ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু এবার কেউ লিজ না নেয়ায় পড়ে আছে।

তকিনগর আইডিয়াল হাইস্কুল এ্যান্ড কলেজের শিক্ষক সেলিম রেজা বলেন, যেহারে পানির স্তর নিচে নামছে আগামী দুই/চার বছরের মধ্যে এলাকায় মাছ চাষের পুকুর শুকিয়ে মরু ভূমিতে পরিণত হবে। চাষীরা মাছ চাষ করতে না পারলে পুষ্টিহীনা দেখা দিবে।

উপজেলা ভারপ্রাপ্ত মৎস্য কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম জানান, এসময় পানি অভাব দেখা দেয়। তবে অনেক মাছ চাষিরা পুকুরে সেচ দিয়ে মাছ চাষ করছে। তবে যাদের সেচের ব্যবস্থা নেই তারা বন্ধ করে দিতে পারে তবে সেটা আমার জানা নেই।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩