সোমবার, ০১ মে, ২০১৭, ১৭ বৈশাখ ১৪২৪

‘বিএনপিকে নেতৃত্বশূন্য করতেই খালেদার বিরুদ্ধে মামলা’

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০১ পিএম

‘বিএনপিকে নেতৃত্বশূন্য করতেই খালেদার বিরুদ্ধে মামলা’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আ স ম হান্নান শাহ বলেছেন, ‘বর্তমান শাসকদল আওয়ামী লীগ বিএনপিকে নেতৃত্বশূন্য করতেই খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধের একের পর এক মামলা দিচ্ছে। তারা হয়তো ভুলে গেছে মামলা দিয়ে, জেলে নিয়ে বিএনপির নেতৃত্বকে ধাবিয়ে রাখা যাবে না।’

শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক আলোচনা সভায় এসব কথা জানান তিনি।

গাজীপুরের বরখাস্ত মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নানের মুক্তির দাবি ও গ্রেফতারের প্রতিবাদে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে সচেতন নাগরিক ফোরাম, গাজীপুর মহানগর। এ সময় মেয়র মান্নানসহ সর্বস্তরের আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান হান্নান শাহ।

সরকারকে উদ্দেশ্য করে হান্নান শাহ বলেন, ‘নিজেদের ঘর সামলান, বিএনপির দিকে কামান ঠেকানোর চেষ্টা করবেন না। সামনে আপনাদের কাউন্সিল হবে দেখেন কী হয়। প্রত্যেকটা বিষয়ের শেষ আছে। তাই ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না।’

হান্নান শাহ বলেন, ‘বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব আসলাম চৌধুরীর সম্পর্কে বেশি জানি না। তবে যে ভারত রাষ্ট্র বাংলাদেশের বর্তমান আওয়ামী সরকারকে অনৈতিকভাবে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছে, সেই দেশে বসে আওয়ামী লীগ সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।’

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে এখন পর্যন্ত ভারতের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হয়নি কেন? প্রশ্ন রাখেন তিনি।

ভারতের সমর্থনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় রয়েছে এমন অভিযোগ করে বিএনপির এ নেতা বলেন, ‘বর্তমান সরকার অবৈধ ও অনির্বাচিত। তারা জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসেনি। এরা মুখোশধারী গণতন্ত্রমনা। কাজেই দেশে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে ভারতের বিজেপির মতো জয় পাবে বিএনপি আর কংগ্রেসের মতো অবস্থা হবে আওয়ামী লীগের।’

‘বিএনপির ষড়যন্ত্র করতে হয় না, যেখানে দেশের ৯০ ভাগ লোক আওয়ামী সরকারের বিদায় দাবি করছে’ এমনটা উল্লেখ করে হান্নান শাহ বলেন, ‘গোয়েন্দারা কখনো মুক্ত আকাশের নিচে কিংবা সেমিনারে বসে ছবি তুলে বৈঠক করে বলে সেনাবাহিনীর সাবেক একজন কর্মকর্তা হিসেবে আমার জানা নেই। তবে আওয়ামী গোয়েন্দারা করে থাকতে পারেন।’

সংগঠনের সভাপতি আরিফ হোসেন হাওলাদারের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য দেন- গাজীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়েদুল আলম বাবুল, সাবেক এমপি সৈয়দা আশিফা আশরাফি পাপিয়া, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব এম আব্দুল্লাহ প্রমুখ।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আমা
 

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue
সোমবার, ০১ মে, ২০১৭, ১৭ বৈশাখ ১৪২৪