শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

বিচার বিভাগে বরাদ্দ বেড়েছে ২৯৮ কোটি টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

বিচার বিভাগে বরাদ্দ বেড়েছে ২৯৮ কোটি টাকা

২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে আইন ও বিচার বিভাগের জন্য ১৫২১ কোটি ২৪ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়ার প্রস্তাব করা হয়েছে। যা গত ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটের চেয়ে তা ২৯৮ কোটি টাকা বেশি।একইসঙ্গে সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টের জন্য ১৫৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২ জুন) জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত উপস্থাপিত বাজেটে এ প্রস্তাব পেশ করেন।

আইন ও বিচার বিভাগের জন্য ১৫২১ কোটি ২৪ লাখ টাকার মধ্যে অনুন্নয়ন খাতে ১০৪৬ কোটি ৭৫ লাখ টাকা এবং উন্নয়ন খাতে ৪৭৪ কোটি ৪৯ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। এর আগে, গত বছরের সংশোধিত বাজেটে আইন ও বিচার বিভাগের জন্য অনুন্নয়ন ও উন্নয়ন খাত মিলিয়ে মোট ১২২৩ কোটি ২৪ লাখ ২৯ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়।  

সুপ্রিম কোর্টের জন্য ১৫৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব  

প্রস্তাবিত ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে সুপ্রিম কোর্টের অনুন্নয়ন খাতের জন্য ১৫৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা বরাদ্দের প্রস্তাব করা হয়েছে। গত অর্থ বছরে সংশোধিত বাজেটে সুপ্রিম কোর্টের জন্য অনুন্নয়ন খাতে ১৩৫ কোটি ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা বরাদ্দ করা হয়েছিল।

বাজেট বক্তৃতায় অর্থমন্ত্রী বলেন, মামলা নিষ্পত্তি জোড়দারের পরিবেশ তৈরির লক্ষ্যে সব জেলায় চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ এবং ২৮টি জেলা জজ আদালত ভবনের সম্প্রসারণের কাজ চলমান রয়েছে। মামলার দীর্ঘসূত্রতা, হয়রানি ও অহেতুক সময়ক্ষেপণ কমিয়ে আনতে ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি (এডিআর)’ বাধ্যতামূলক করা হয়েছে।

তিনি বলেন, জেলা লিগ্যাল এইড অফিসারকে বিকল্প পদ্ধতিতে মামলা নিষ্পত্তির ক্ষমতা দেয়া হয়েছে। এতে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি ব্যবস্থা প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পাবে বলে অর্থমন্ত্রী আশা প্রকাশ করেন। মুহিত বলেন, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের অধীনে সংঘটিত অপরাধের বিচারের উদ্দেশ্যে একটি ‘সাইবার ক্রাইম ট্রাইব্যুনাল’ গঠন করা হয়েছে।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, আইনি সেবায় গণমানুষের প্রবেশাধিকার বাড়াতে নানা কার্যক্রম চলছে। ন্যাশনাল লিগ্যাল এইড অর্গানাইজেশনের আওতায় একটি সেল গঠনের মাধ্যমে শ্রমিকদের আইনি পরামর্শ ও সেবা দেয়া হচ্ছে।

আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, অস্বচ্ছল জনগোষ্ঠীকে সরকারি খরচে আইনি সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে। এ কার্যক্রমে দক্ষ ও অভিজ্ঞ আইনজীবীদের আকৃষ্ট করতে প্যানেল আইনজীবীদের ফি বাড়ানো হয়েছে।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমএইচএম

 

add-sm
Sonali Tissue
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর, ২০১৬, ১৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩