শনিবার, ২১ অক্টোবর, ২০১৭, ৬ কার্তিক ১৪২৪

বিতর্কিত প্যারাসেল দ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র -চীন মুখোমুখি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১২ অক্টোবর ২০১৭, বৃহস্পতিবার ০৮:৫৫ পিএম

বিতর্কিত প্যারাসেল দ্বীপে যুক্তরাষ্ট্র -চীন মুখোমুখি

ঢাকা: দক্ষিণ চীন সাগরের বিতর্কিত প্যারাসেল দ্বীপে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রণতরী পাঠানোর জবাব একইভাবে দিয়েছে চীন। বুধবার চীন দুটি ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ফ্রিগেট, দুটি ফাঁইটার জেট ও একটি হেলিকপ্টার সেখানে পাঠিয়েছে। এই মুহূর্তে সেখানে যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের যুদ্ধ জাহাজগুলো মুখোমুখি অবস্থান নিয়েছে। যেকোনো সময়ে লেগে যেতে পারে যুদ্ধ। এমন আশঙ্কা ব্যক্ত করছেন কেউ কেউ।  

সম্প্রতি উত্তর কোরিয়ার বিষয়ে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যুদ্ধে নামার ইঙ্গিত দিয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজগুলো ফ্রিডম অফ ন্যাভিগেশনের নামে সেখানে সামরিক মহড়া দিচ্ছে। দক্ষিণ চীন সমুদ্রে মার্কিন যুদ্ধজাহাজ চ্যাফি প্রবেশ করা মাত্র নড়ে চড়ে বসে চীন। যুক্তরাষ্ট্রের এই প্রবেশকে চীন নিজের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে বিবেচনা করছে। 

এই মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজ চ্যাফি চীনের দাবি করা বিতর্কিত প্যারাসেল আইল্যান্ড থেকে ১৬ নটিক্যাল মাইল দূরে অবস্থান করছে। এই জাহাজ চীনের দাবি করা প্যারাসেল দ্বীপের ১২ নটিক্যাল মাইলের মধ্যে এলেই আন্তর্জাতিক সমুদ্র সীমা আইন লঙ্ঘন হিসেবে বিবেচিত হবে। আর এই ঘটনা ঠেকাতেই চীন তার ক্ষেপণাস্ত্রবাহী ফিগ্রেট ০৫৪এ হিউয়েংশানকে বিতর্কিত দ্বীপে পাঠিয়েছে। এই হিউয়েংশানকে পাহারা দিতে সঙ্গে পাঠানো হয়েছে দুটি জে-১১বি টাইপের জঙ্গি জেট বিমান ও একটি জে-৮ হেলিকপ্টার। যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক কর্মকাণ্ড নজরদারি করাই হবে এদের কাজ। 

চীনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় দেশটির সাউথ চায়না মর্নিং পোস্টে বলেন, যুক্তরাষ্ট্র তার সামরিক কর্মকাণ্ড দিয়ে চীনকে যুদ্ধে যাবার উসকানি দিচ্ছে।  দক্ষিণ চীন সাগরে মার্কিন রণতরী প্রবেশের নিন্দা জানায় চীন।  তিনি আরও বলেন, চীনের জলসীমায় যুক্তরাষ্ট্রের প্রবেশ ঠেকাতে পুরোপুরি প্রস্তুত আছে তার দেশ। 

চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্র যেন চীনের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তাকে সম্মান করে। যুক্তরাষ্ট্রের যুদ্ধ জাহাজ চ্যাফি দক্ষিণ চীন সাগরে আসলে দুই দেশে মধ্যে অনাস্থা ও অবিশ্বাস তৈরি হবে। 

এদিকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের নৌবাহিনী সূত্র থেকে বলা হয়েছে, তাদের যুদ্ধজাহাজ কোনো দেশের আইন লঙ্ঘন করবে না।

সংবাদ সূত্র

https://www.rt.com/news/406377-us-south-china-sea/

সোনালীনিউজ/জেএ

Sonali Bazar

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue