রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

বিরতির পর পর্দায় ফিরছেন সীমানা

বিনোদন রিপোর্টার | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

বিরতির পর পর্দায় ফিরছেন সীমানা

২০০৬ সালের কথা। রিয়েলিটি শো লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টার প্রতিযোগিতার মধ্য দিয়ে শোবিজে পা রাখেন সীমানা। পুরো নাম রিস্তা লাবনী সীমানা। ক্যারিয়ারের শুরুতে ধারাবাহিক, খন্ড নাটকের মধ্য দিয়ে দর্শক মন জয় করেন তিনি। এরপর নিত্য নতুন নাটকে কাজের মাধ্যমে ধীরে ধীরে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। সে সঙ্গে আলোচিত চলচ্চিত্র ‘দারুচিনি দ্বীপ’-এ অভিনয়ের মাধ্যমে চলচ্চিত্রেও নিজের কথা জানান দেন তিনি। পাশাপাশি গ্রামীণফোনের একটি বিজ্ঞাপন সীমানার ক্যারিয়ারে ভিন্নমাত্রা যোগ করে। এরপর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। একের পর এক বিজ্ঞাপন ও নাটকে কাজের মধ্য দিয়ে নিজেকে নিয়মিত আলোচনায় রাখেন। সিক্ত হন ব্যাপক দর্শক ভালোবাসায়ও। তার প্রমাণও তিনি পেয়েছেন।

বাংলাভিশনে প্রচার হওয়া ‘গুলশান এভিনিউ’- নাটকে সামিয়ার চরিত্রে অভিনয় করে ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন এ পর্দাকন্যা। যদিও এ মুহূর্তে আগের মতো টানা কাজ করছেন না এ অভিনেত্রী। ইদানীং পর্দায় তার উপস্থিতি নেই বললেই চলে। যে কারণে প্রশ্ন উঠেছে, সীমানা কি মিডিয়া ছেড়ে দিলেন? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কোথাও হারিয়ে যাইনি। মিডিয়াতেই আছি। নতুন কোনো নাটক প্রচার না হলেও কাজ চলছে। নতুন নাটক নিয়ে পর্দায় ফিরছি। আশা করছি ভালো কিছু কাজ নিয়েই ফিরবো। এরই মধ্যে বেশ কয়েকটি নতুন ধারাবাহিকের কাজ শেষ করেছেন সীমানা। পাশাপাশি চলছে খন্ড নাটকের কাজও।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, এতদিন টিভিপর্দায় উপস্থিতি না দেখে অনেকেই মনে করছেন আমি কাজ থেকে সরে গেছি। বিষয়টা মোটেও তা নয়। আমি নতুন কিছু কাজ করেছি। অনেকদিন ভালো গল্প পাচ্ছিলাম না। তাই নিজেকে ছন্দে রাখতে পারিনি। গত কয়েক মাস ধরে ভালো কিছু গল্পের নাটকে কাজ করেছি। এখনও শুটিং চলছে। আশা করছি শিগগিরই নাটকের কাজ সব শেষ হয়ে এলে সময়মতো টিভি পর্দায় দেখা যাবে আমাকে। ২০১৪ সালের জুলাই মাসে সংগীতশিল্পী পারভেজের সঙ্গে  বৈবাহিক সম্পর্কে আবদ্ধ হন সীমানা। আর দুই মাস পরই তার বিয়ের দুই বছর পূর্তি হবে। তবে চলতি বছর এ তারকা জুটির মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে বলে শোনা যায়। এমনকি এও শোনা যায় যে, তাদের সংসার ভাঙনের পথে। কিন্তু বিষয়টি একেবারেই অহেতুক ও অবান্তর বলে দাবি করেছেন সীমানা।

এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, গত কিছুদিন আগে শোবিজে সংসার ভাঙনের জোয়ার ছিল। আর আমিও সে সময়টাতেই টিভি পর্দা থেকে আড়াল হয়ে যাই। তাই অনেকে মনে করেছেন আমার জীবনেও হয়তো সংসার ভাঙা বা পারভেজের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি হওয়োর মতো কোন ঘটনা ঘটেছে। এটা ভুল। এমন অবান্তর চিন্তা করাও ঠিক না। আমাকে নিয়ে তো পারভেজ প্রতিদিনই ফেসবুকে সেলফি দিচ্ছে। তাহলে আমাদের সংসার ভাঙল কিভাবে? এসব গুজব। বিয়ের পর থেকেই অভিনয় কমিয়ে দিয়েছেন সীমানা। তাই বিষয়টি নিয়ে অনেকের মধ্যে নানান মত সৃষ্টি হয়েছে। কেউ কেউ বলছেন, পারভেজ কি সীমানার কাজের ব্যাপারে বাদ-সাধছেন কিনা। আবার অনেকের মতে, সংসার নিয়ে ব্যস্ত থাকায় নাটকে নিয়মিত নন এ অভিনেত্রী। এসব প্রশ্নের উত্তরও দিয়েছেন সীমানা।

তিনি বলেন, পারভেজ আমার কাজের ওপর কোনো প্রভাব ফেলেনি। আমিই নানা কারণে কাজ করিনি। আর ওই যে আগে বললাম, ভালো গল্পের কাজ পাইনি বলেই অভিনয়টা নিয়মিত চালিয়ে যেতে পারিনি। তাই বলে এটা ভাবার কোনো কারণ নেই যে, আমার ক্যারিয়ারে পারভেজ বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এসব নিয়ে আর কারও সংশয় থাকুক- সেটা আমি চাই না। আমরা দু’জন বেশ সুখেই আছি।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩