শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

বৈশাখ ছেলেদের সাজ

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৯ পিএম

বৈশাখ ছেলেদের সাজ

সোনালীনিউজ ডেস্ক

বৈশাখ উৎসবে পিছিয়ে নেই ছেলেরাও। রঙ, কাপড় এবং ডিজাইনে বৈচিত্র্য থাকছে এবার ছেলেদের বৈশাখী পোশাকে। এবার বৈশাখ উৎসবে কেমন পোশাকে সাজবে ছেলেরা বাজার ঘুরে তারই খোঁজখবর।

বৈশাখ মানে বাঁধভাঙা উৎসবে মেতে ওঠা। যে উৎসবের মূল আকর্ষণ বৈশাখী পোশাক। বৈশাখী উৎসবে ছেলেদের কাছে পাঞ্জাবির কদর যেমন রয়েছে, তেমনি আরামদায়ক হওয়ায় ফতুয়া, টি-শার্ট, হাফশার্ট বেশ জনপ্রিয়। তবে পোশাক যেটাই হোক না কেন, তাতে থাকা চাই বাঙালিয়ানার ছোঁয়া।

কাটছাঁটে বৈচিত্র্য : এবারের বৈশাখে ছেলেদের পোশাকের নকশায় আনা হয়েছে ভিন্নতা। ইসলামিক মোটিফ, আর্চ গ্রিক মোটিফ, ন্যাচারাল সিরিজ, ফাওয়ার মোটিফ, ল্যান্ডস্কেপ প্রভৃতি ব্যবহার করা হয়েছে এবার ছেলেদের বৈশাখী পোশাকে। মাধ্যম হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে স্ক্রিনপ্রিন্ট, কারচুপি, হাতের কাজ, ভিন্ন লেআউটে প্যাচওয়ার্ক, বিডস প্রভৃতি। ফতুয়া, শার্ট ও টি-শার্টের মোটিফে প্রাধান্য পেয়েছে টেরাকোটা ও লেকজ মোটিফ।

বাজার ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন ধরনের লোকজ নকশায় তৈরি করা হয়েছে ফতুয়া, পাঞ্জাবি, শার্ট প্রভৃতি। সুতি, তসর, জামেবার, অ্যান্ডি সুতি, ভয়েল, জয় সিল্ক, মসলিনসহ বিভিন্ন কাপড়ে স্ক্রিনপ্রিন্ট, এমব্রয়ডারি মাধ্যমে ফতুয়া, পাঞ্জাবি তৈরি করা হয়েছে। কারচুপি বা জারদৌসি কাজের পাঞ্জাবি এখন অনেকেরই পছন্দ। ফ্যাশন হাউস রঙে শখের হাঁড়ি মোটিফ ফুটিয়ে তোলা হয়েছে পাঞ্জাবি, টি-শার্ট, শার্টে। ফ্যাশন হাউস আবর্তন এবার উজ্জ্বল সব রঙে হ্যান্ডলুমের পোশাক এনেছে। পহেলা বৈশাখ উপলক্ষে ফ্যাশন হাউস কে-ক্রাফটে সুতি অ্যান্ডি ও সিল্কে হাতের কাজ ও এমব্রয়ডারি কাজের পোশাকে সাদা, মেরুন, কালোসহ নানা রঙ ব্যবহার করা হয়েছে। প্রধানত জ্যামিতিক নকশায় কাঁথা, সাটিন স্টিচে অলঙ্কৃত পোশাকগুলো। ফ্যাশন হাউস ক্যাটস আইর ক্যাজুয়াল উৎসবকেন্দ্রিক বৈশাখী আউটফিটের পাশাপাশি কালারফুল ওয়েস্টার্ন সামার পোশাক পাবেন নানা ডিজাইনে।

পাঞ্জাবিতে বাঙালিয়ানা : এসো হে বৈশাখ... গানের তালে তাল মিলিয়ে নববর্ষকে বরণ করে নিতে পাঞ্জাবিই বেশি মানানসই। মোহল কাটিং ও সেমিফিট পাঞ্জাবি হাল ফ্যাশনের জনপ্রিয়। একছাঁটের লং পাঞ্জাবির বেশি থাকছে এবার, পাশাপাশি সেমি লং পাঞ্জাবিও চলছে। পাঞ্জাবির সঙ্গে সাধারণ বা পাকিস্তানি কাটের পাজামার বদলে চুড়িদার ও চোস্ত পাজামার চল বেশি। ফ্যাশন হাউস অঞ্জনসের কর্ণধার ও ডিজাইনার শাহীন আহম্মেদ জানান, ‘বৈশাখের প্রথম প্রহরে গরম কিছুটা কম থাকে। এ সময় লাল-সাদা কিংবা বিভিন্ন উজ্জ্বল রঙের সুতি পাঞ্জাবি পরতে পারেন। রাতের অনুষ্ঠানে ভেলভেট, অ্যান্ডি সিল্ক, মসলিনের পাঞ্জাবি ভালো লাগবে। এ সময় পাঞ্জাবির ওপর লাল কিংবা সাদা রঙের কটিও আপনাকে দারুণ গর্জিয়াস করে তুলবে। এবার আমরা পোশাকের নকশা হিসেবে বেছে নিয়েছি আগেকার ট্রাক, রিকশায় আর্ট, উড ওয়ার্কস প্রভৃতি। আর পোশাকের ক্যানভাস রাঙিয়েছি স্ক্রিনপ্রিন্ট, এমব্রয়ডারি, ব্লকপ্রিন্টে। প্যাটার্ন ভিন্নতা থাকছে পাঞ্জাবি নেক লাইন ও কাটিংয়ে।’

দিনময় ফতুয়া ও টি-শার্ট : সারাদিন ঘুরে বেড়াতে ফতুয়া ও টি-শার্টের জুড়ি নেই। তাছাড়া ফতুয়া ও টি-শার্ট যেন উৎসবের ক্যানভাস। ‘ফতুয়ার কালেকশনে এবার ফেব্রিকের নানা ভ্যারিয়েশন রয়েছে। স্ট্রাইপ, চেক, ইক্কাত, সলিড, জ্যাকার্ড ও ডবি বুননের ফতুয়াগুলো কাট ও ফিনিশিংয়ে বেশ আধুনিক। কটবেসড ফতুয়ার পাশাপাশি এবার ভ্যালু অ্যাডিশন হিসেবে এসেছে হাতের কাজ, এমব্রয়ডারি, প্রিন্ট, ইরি কাজসহ নানা মিডিয়া। মোটিফ হিসেবে প্রাধান্য পেয়েছে টেরাকোটা মোটিফ ও লোকজ মোটিফ। আর এখন যেহেতু গরম তাই দুপুর কিংবা বিকালে ঘুরে বেড়াতে বেছে নিতে পারেন ফতুয়া ও টি-শার্ট, জানালেন বাংলার মেলার ডিজাইনার আলী আফজাল।

গরমে আরামে হাফশার্ট : এই গরমে বৈশাখী উৎসবে হাফশার্টে একদিকে যেমন গরম কম লাগবে, অন্যদিকে ফ্যাশনেও ভাটা পড়বে না। চেক, স্ট্রাইপ বা একরঙা সব ধরনের সুতি শার্ট চলছে এখন। এখন প্রিন্টের শার্টে জ্যামিতিক মোটিফ বেশ জনপ্রিয়। হাফশার্টে ন্যারো কলার, ব্যান্ড কলার তো আছেই, গেঞ্জি কলারও যুক্ত হয়েছে এখন। সাদাসিধে কলারে সুই-সুতার কাজও চলছে বেশ। হাফশার্টের হাতায় ফোল্ডিন এখন হাল ফ্যাশন।

সোনালীনিউজ/আমা

শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩