শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭, ১১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লক্ষ মানুষ নিহত হয়েছেন : হানিফ

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৩ পিএম

মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লক্ষ মানুষ নিহত হয়েছেন : হানিফ

সোনালীনিউজ ডেস্ক
মুক্তিযুদ্ধে ৩০ লক্ষ মানুষ নিহত হয়েছেন জানিয়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ।
তিনি বলেন, ‘নিহতের এই সংখ্যা একজন দুইজন করে হিসেব করে কখনও বের করা যায় না। সারা পৃথিবীতে এই ভাবে যে গণহত্যা হয়েছিল সেটা কখনও একজন দু’জন করে গুণে সংখ্যা নির্ধারণ করা হয়নি। একটা অনুমান ভিত্তিক সংখ্যা নিরূপণ করা হয়েছে।’
আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউটে বাংলাদেশ ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির জাতীয় সম্মেলন ২০১৬ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।
মাহবুব-উল আলম হানিফ বলেন, ‘গণহত্যার চিহ্ন সারা দেশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে ছিল। মানুষের মৃত্যুর ধরণ দেখে, মিছিল দেখেই হয়তো সংখ্যাটাকে অনুমানভিত্তিকই করা হয়েছে। খালেদা জিয়া মুক্তিযুদ্ধের শহীদদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করে পরিকল্পিতভাবে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করার চক্রান্তে লিপ্ত হয়েছেন।’
বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে বিএনপির নেতা রুহুল কবির রিজভীর বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আমরা পরিস্কারভাবে বিএনপির নেতৃবৃন্দকে জানিয়ে দিতে চাই ইতিহাস বিকৃতি করার ষড়যন্ত্র বন্ধ করুন। বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু একদিনে হন নাই। ১৯৪৯ সাল থেকে বাংলাদেশের স্বাধিকার আন্দোলনের জন্য উনি সংগ্রাম শুরু করেন। ৫২-এর ভাষা আন্দোলন, ৬২-এর শিক্ষা আন্দোলন, ছয় দফার মধ্য দিয়েই আমাদের স্বাধীনতার সোপান রচনা করেছিলেন। ৬৯-এর গণ-অভুত্থানের মাধ্যমে জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে ৭০-এর নির্বাচনে বিজয়ী হয়ে জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে স্বাধীনতার ঘোষণা করেছিলেন। এই স্বাধীনতা একদিনে আসেনি। এই স্বাধীনতা কোনো ব্যক্তির এক হুইসেলে আসে নাই।’
আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘এই ধৃষ্টতা দ্বিতীয়বার না দেখানোর জন্য আমরা অনুরোধ করে যাচ্ছি। এই জাতির পিতাকে নিয়ে, মুক্তিযুদ্ধকে নিয়ে কটাক্ষ করে এই ধৃষ্টতা যদি ভবিষ্যতে কেউ দেখায় তাহলে বাংলার জনগণ তাকে ক্ষমা করবে না। তাদেরকে সমুচিতভাবে জবাব দিয়ে স্বাধীনতা ও ইতিহাস বিকৃতিকারীদেরকে এই বাংলাদেশ থেকে চিরদিনের জন্য উৎখাত করবে।’
ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির চেয়ারম্যান মাওলানা ইসমাইল হোসাইনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, কেন্দ্রীয় সদস্য আমিনুল ইসলাম আমিন, ইউনাইটেড ইসলামী পার্টির মহাসচিব মুফতি তাজুল ইসলাম ফারুকী প্রমুখ।
সোনালীনিউজ/আমা