রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৪৩ পিএম

মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রিট

নিজস্ব প্রতিবেদক

আদালত ও বিচারকদের নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দেয়ায় মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হকের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এসএম জুলফিকার আলী জুনু এ রিট আবেদনটি দায়ের করেন।

কেন এই মন্ত্রীর বক্তব্য অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং তাকে সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে তার বক্তব্য প্রসঙ্গে ব্যাখ্যা প্রদানের কেন নির্দেশ দেয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারির আরজি জানানো হয়েছে। রিটে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি), মন্ত্রী পরিষদ সচিব, ঢাকা জেলার জেলা প্রসাশক, ডিএমপি কমিশনার ও মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হককে বিবাদী করা হয়েছে।

বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মাদ দস্তগীর হোসেন  ও বিচারপতি শহিদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে এ রিট আবেদনটি শুনানির জন্য দাখিল করা হয়েছে।

এর আগে গত ২৮ ডিসেম্বর আদালত অবমাননাকর বক্তব্য দেয়ার কথা উল্লেখ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক বরাবর একটি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছিল। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে নোটিশের জবাব না পাওয়ায় তিনি আজ বৃহস্পতিবার এ রিট আবেদনটি দায়ের করেন।

নোটিশটি পাঠিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের এক আইনজীবী। সোমবার অ্যাডভোকেট জুলফিকার আলী জুনু রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এ নোটিশ পাঠান।

সে নোটিশে বলা হয়, গত ২৭ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্জন হলের এক আলোচনা সভায় হাইকোর্টের বিচারপতিকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেন মন্ত্রী আ.ক.ম মোজাম্মেল হক।

নোটিশে আরো উল্লেখ করা হয় যে, মন্ত্রী তার বক্তব্যে ‘ভুয়া মুক্তিযোদ্ধার পক্ষে হাইকোর্ট রায় দিয়ে বিচারকের চেয়ারকে কলঙ্কিত করেছেন। আমার কাছে হাইকোর্টের এ রায় আসার পর আমি ছুঁড়ে ফেলে দিয়েছি। আমি থাকতে কোনো রায় নিয়ে মুক্তিযোদ্ধা হওয়া যাবে না।’ এছাড়াও নোটিশে বলা হয়, মন্ত্রীর ওই বক্তব্য বিচার বিভাগের ওপর হুমকি ও আদালত অবমাননাকর।

 

সোনালীনিউজ/এমএইউ

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩