শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ৮ আশ্বিন ১৪২৪

‘মুস্তাফিজকে থামানো নয়, বড় লিগে খেলতে দেয়া উচিত’

স্পোর্টস ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০১ পিএম

‘মুস্তাফিজকে থামানো নয়, বড় লিগে খেলতে দেয়া উচিত’

মুস্তাফিজুর রহমান যেনো যাদুমন্ত্র জানেন। যেখানেই যাচ্ছেন, জয় করছেন। আইপিএলে তো আলোচনার তুঙ্গে। মুস্তাফিজের গল্পটা যেন─এলাম, দেখলাম, আর জয় করলাম। প্রতি ম্যাচেই পাচ্ছেন সাফল্য। উইকেটের চেয়ে বেশি নজর কাড়ছেন প্রতিটা বলের বৈচিত্রে, যেটি ধাঁধা হয়ে হাজির ব্যাটসম্যানদের সামনে। সবাই যেন খাবি খাচ্ছে তাঁর বলে।

হালের এই পেস সেনসেশন মুস্তাফিজ শুধু বাংলাদেশেরই নয়, গোটা ক্রিকেট বিশ্বেরই ব্রান্ড। এই মুহূর্তে সবচেয়ে আলোচিত ক্রিকেটার তিনি। কেনই বা হবেন না? গত একটি বছরে বল হাতে ঝড় তুলছেন নিয়মিত। তার বোলিং আগ্রাসন ও কারিশমা দিয়ে আলো ছড়াচ্ছেন আইপিএলের মতো বড় আসরেও।   

আইপিএল শুরু হওয়ার আগে বাংলাদেশ ওয়ানডে ও টি-টুয়েন্টি দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা জানিয়েছিলেন, মুস্তাফিজুর রহমান এবারের আসরের সর্বোচ্চ উইকেট শিকারী বোলার হতে পারেন। মাশরাফির সেই সম্ভাবনা হয়তো সত্যি হতে যাচ্ছে।

আইপিএলের এখনো অনেকটা পথ বাকি রয়েছে। সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর শেষ হাসি কে হাসবে সেটি এখনই বলা যাচ্ছে না। তবে মাঠের পারফরম্যান্স এটা বলে দিচ্ছে, সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর অ্যাওয়ার্ড ‘বেগুনী ক্যাপ’ জেতার শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী হয়ে উঠেছেন মুস্তাফিজ।

আপাতত ১০ ম্যাচে ১৩ উইকেট নিয়ে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারীর তালিকায় পাঁচ নম্বরে রয়েছেন মুস্তাফিজ। ওভার প্রতি ৬.১৮ রান দিয়ে ১৭.৬১ গড়ে ১৩ উইকেট নেন কাটার মাস্টার।

বিপিএল ও আইপিএলের পাশাপাশি পাকিস্তান ক্রিকেট লিগেও (পিসিএল) দল পেয়েছিলেন ক্রিকেট দুনিয়ায় ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ ক্রিকেটার মুস্তাফিজ। দুর্ভাগ্যবশত ইনজুরির কারণে পিএসএলে খেলা হয়নি তার। এরপর ইংলিশ কাউন্ডি ক্লাব সাসেক্সে নাম লিখিয়েছেন মুস্তাফিজ। দিন দুয়েক আগে অস্ট্রেলিয়ার মিডিয়ার খবর, বিগ ব্যাশ লিগের (বিবিএল) ফ্রাঞ্জাইজিরাও কাটার মাস্টারের পেছনে লেগেছে। এভাবে একের পর এক সুসংবাদ আসছে ২০ বছর বয়সী এই তারকার।

একই সময় একটা কথা বেশ জোরেশোরেই চারদিকে শোনা যাচ্ছে, মুস্তাফিজের কাউন্টি মৌসুম ত্যাগ করা ভালো, এমনকি বিবিএলও। কেন এটা করতে হবে? যুক্তি─সব লিগে খেলতে গেলে মুস্তাফিজের শরীরের ওপর দিয়ে বড়সড় ধকল যাবে, যা তাকে ঠেলে দিতে পারে মারাত্মক ইনজুরিতে। তবে এই কথার সঙ্গে একমত নন মুস্তাফিজের ঘরোয়া কোচ মোহাম্মদ সালাউদ্দিন। তিনি মনে করেন, বিদেশি লিগ খেলতে বিস্ময় বালক মুস্তাফিজকে থামানো ঠিক হবে না বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিসি)।

সালাউদ্দিন বলেন, ‘বিদেশি লিগে খেলতে পারাটা মুস্তাফিজের জন্য শেখার বড় একটি ক্ষেত্র। সত্যি কথা বলতে সে একজন মেধাবী বোলার। তবে আরো ভালো করতে হলে তার বোলিংয়ে বেশ কিছু বিশেষত্ব নিয়ে আসত হবে। আর সেটা অর্জন করতেই বড় লিগে খেলতে যেতে হবে মুস্তাফিজকে।’

কিছুদিন আগে বিসিবি সভাপতি বলেছিলেন, ‘মুস্তাফিজ বাংলাদেশ ক্রিকেটের সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ। আমরা তাকে ইনজুরির কারণে হারাতে চাই না! তাকে আমরা সুরক্ষা দেব। যে কোনো মূল্যেই হোক তার ক্যারিয়ারের দীর্ঘায়ু করতে চাই। এক্ষেত্রে আমরা মনে করি, বিদেশি লিগগুলোতে তাকে খেলতে দেয়া যাবে না। আমরা হয়তো সেটাই করতে যাচ্ছি। বিনিময়ে তাকে ক্ষতিপূরণ দেব।’

বিসিবি সভাপতির সঙ্গে পুরোপুরি একমত হতে পারছেন না সালাউদ্দিন। বলেন, ‘ইনজুরি খেলোয়াড়দের ক্যারিয়ারেরই একটি অংশ। এটা যে কোনো সময় ঘটতে পারে। এটা আসলে খেলোয়াড়ের ওপর নির্ভর করে যে সে কীভাবে এটাকে প্রতিরোধ করে। তার মানে এই নয় যে সে বড় সুযোগগুলো (লিগ) মিস করবে। কারণ, এই অভিজ্ঞতাই তাকে অনেক দূর এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে।’

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আমা