শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

মুহাম্মাদ আলীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির শোক

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

মুহাম্মাদ আলীর মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির শোক

কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মুহাম্মদ আলী আর নেই। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যারিজোনার ফিনিক্সের একটি হাসপাতালে গত শুক্রবার ৭৪ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।

তিনবার হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়নের পাশাপাশি অলিম্পিকে স্বর্ণপদক জয়ী আলীকে সর্বকালের সেরা ক্রীড়াবিদদের একজন ধরা হয়। শ্বাস-প্রশ্বাস সংক্রান্ত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন আলী। পরিবারের সদস্যদের উপস্থিতিতেই বিদায় নেন তিনি। জন্মস্থান কেন্টাকির লুয়াভিলে আলীর শেষকৃত্য অনুষ্ঠান হবে। ১৯৮১ সালে বক্সিং থেকে অবসর নেওয়ার তিন বছর পর থেকেই পারকিনসন্স রোগে ভুগছিলেন তিনবারের বিশ্ব হেভিওয়েট চ্যাম্পিয়ন আলী। কয়েক বছর ধরে তার অবস্থার আরও অবনতি হয়।

মুহাম্মাদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপরসন খালেদা জিয়া। পৃতক পৃথক বার্তায় তাঁরা এ শোক জ্ঞাপন করেন। এক শোক বাণীতে রাষ্ট্রপতি বলেন, মুহাম্মাদ আলীর মৃত্যু ক্রীড়া জগতের জন্য এক অপূরণীয় ক্ষতি। রাষ্ট্রপতি ‘সর্বকালের সেরা’ ক্রীড়াবিদের রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনা জানান। এদিকে, কিংবদন্তি মুষ্টিযোদ্ধা মুহাম্মাদ আলীর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পাঁচ দিনের সরকারি সফরে সৌদি আরবে অবস্থানরত শেখ হাসিনা এক শোকবার্তায় মুহাম্মদ আলীর তিনবার বিশ্ব হেভিওয়েট শিরোপা জেতার কথা উল্লেখ করেছেন। তিনি বলেছেন, মুহাম্মাদ আলী ছিলেন ‘সর্বকালের সেরা’ মুষ্টিযোদ্ধা এবং বিশ্বজুড়ে মুষ্টিযুদ্ধ জনপ্রিয় করতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। ক্রীড়ার পাশাপাশি মুহাম্মদ আলীর মানবিক গুণের কথা তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, তিনি সব সময়ই নিপীড়িত ও বঞ্চিত মানুষের অধিকারের পক্ষে সোচ্চার ছিলেন। এদিকে, বিএনপি’র চেয়ারপার্সন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া খ্যাতনামা মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

বিএনপি প্রধান শনিবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তায় এই শোক প্রকাশ করেন। দীর্ঘদিন অসুস্থ থেকে মোহাম্মদ আলী শুক্রবার রাতে যুক্তরাষ্ট্রের আরিজোনার ফিনিক্স-এর একটি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি--- রাজিউন)। তার বয়স হয়েছিল ৭৪ বছর। বেগম খালেদা জিয়া বলেন, খেলাধুলার ইতিহাসে কিংবদন্তী মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলী স্বাতন্ত্র্য বৈশিষ্ট্যের অধিকারী মানুষ হিসেবে অভিহিত হবেন। সাবেক প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনবারের হেভিওয়েট বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন প্রবাদপ্রতীম এই মুষ্টিযোদ্ধা অবহেলিত মানুষের পাশে দাঁড়াতেন নির্দ্বিধায়। সমাজকর্মে তাঁর নিঃস্বার্থ আত্মনিবেদন সকল মানুষের জন্য উজ্জল দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে উল্লেখ করে বিএনপির চেয়ারপার্সন আরও বলেন, বর্ণবাদ, যুদ্ধ ও রক্তপাতকে তিনি মনেপ্রাণে ঘৃনা করতেন এবং এর বিরুদ্ধে তিনি ছিলেন অকুতোভয় সোচ্চার। শান্তির স্বপক্ষে তাঁর আপোষহীন সংগ্রাম আজও আমাদের সকলের জন্য প্রেরণা।

তিনি বলেন, এই কিংবদন্তী মুষ্টিযোদ্ধাকে ১৯৭৮ সালে বাংলাদেশে নিয়ে এনে নাগরিকত্ব দিয়ে সম্মানিত করেছিলেন সাবেক রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান। বেগম খালেদা জিয়া বিশ্বসেরা মুষ্টিযোদ্ধা মোহাম্মদ আলীর বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকাহত পরিবার, নিকটজন, যুক্তরাষ্ট্রবাসীসহ সারাবিশ্বের কোটি কোটি শোকাহত ভক্ত, অনুরাগীদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। অপর এক শোকবার্তায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরও মুষ্টিযুদ্ধে শ্রেষ্ঠত্বের শিরোপাজয়ী মোহাম্মদ আলীর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩