রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

‘রমজানে চাঁদাবাজি রোধে কঠোর ব্যবস্থা’

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

‘রমজানে চাঁদাবাজি রোধে কঠোর ব্যবস্থা’

আসন্ন পবিত্র রমজান মাসকে সামনে রেখে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে কেউ চাঁদাবাজির চেষ্টা করলে তা কঠোর হস্তে রোধ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খাঁন কামাল।

শনিবার (৪ জুন) ঢাকা চেম্বার মিলনায়তনে ‘রমজান মাসে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে ব্যবসায়ী ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সহায়ক ভূমিকা’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ঢাকা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করে।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খাঁন কামাল বলেন,‘সরকার চায় ব্যবসায়ীরা নির্বিঘ্নে ব্যবসা করুক। আমরা চাঁদাবাজি বন্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি। এরপরও কেউ চাঁদাবাজির চেষ্টা করলে জানাবেন, এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

ডিসিসিআই সভাপতি হোসেন খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন, ডিএমপি কমিশনার মো. আসাদুজ্জামান মিয়া, ডিসিসিআই জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি হুমায়ুন রশিদ,এফবিসিসিআইয়ের পরিচালক আবু মোতালেব,মৌলভীবাজার পাইকারী ভোজ্যতেল ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি হাজী মো. গোলাম মাওলা, ঢাকার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. মজিবুর রহমান প্রমূখ।

সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাধতত্ত্ব বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. জিয়াউর রহমান মুল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন।

চাঁদাবাজি বন্ধে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন,‘কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করায় চাঁদাবাজি অনেক কমে গেছে। তবে তা শূন্যে নেমে এসেছে, এটা আমি দাবি করবো না। রমজান উপলক্ষে পুলিশ-বিডিআরসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা দিতে প্রস্তুত আছে।’তিনি রমজান মাসজুড়ে পণ্য মুল্য স্থিতিশীল রাখতে ব্যবসায়ীদের সহযোগিতা চান।

চাঁদাবাজিসহ যে কোন ধরনের অপরাধ ঠেকাতে ব্যবসায়ীদের নিজ নিজ এলাকায় ক্যামেরা বসানোর পরামর্শ দেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।
তিনি বলেন,ক্যামেরার ফুটেজের কারণে মিল্কী ও ইতালী নাগরিক তাবেলা সিজার হত্যাকান্ডের আসামী সনাক্ত করতে সক্ষম হয়েছি। ক্যামেরা সচল থাকলে দুস্কৃতিকারীরা সেই এলাকায় আসবে না।এতে অনেক অপরাধ কমে আসবে।

রাজধানীর সব মার্কেট এবং দেশব্যাপী পণ্য পরিবহন গোয়েন্দা নজরদারীতে থাকবে বলে তিনি জানান।

সভায় ব্যবসায়ীরা রমজান মাসে অবৈধভাবে পণ্য মজুদ এবং কৃত্রিমভাবে দাম না বাড়ানোর আশ্বাস দেন। তবে তারা পরিবহন ও মার্কেটগুলোতে যে কোন ধরনের চাঁদাবাজি বন্ধের আহবান জানান।

মূল প্রবন্ধে অধ্যাপক জিয়াউর রহমান ব্যবসায়ীদের অবৈধ সিন্ডিকেট ঠেকাতে সরকারি বিপণন সংস্থা টিসিবিকে আরো শক্তিশালী ও কার্যকর করার পরামর্শ দেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমএইচএম

 

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩