শনিবার, ২৫ নভেম্বর, ২০১৭, ১০ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার ০৭:৪১ পিএম

শিগগির চালু হচ্ছে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয়

ঢাকা: দেশের তরুণদের কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে আগামী বছর দেশে এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় চালু হচ্ছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। তিনি বলেন, ‘আইনের খসড়া এখন মন্ত্রণালয়ে আছে। আশা করি এ বছরের শেষে অথবা আগামী বছরের শুরুতেই এভিয়েশন বিশ্ববিদ্যালয় চালু হবে।’

বৃহস্পতিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মহাখালীতে বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন হোটেলে ‘অরেঞ্জ উইং এভিয়েশন একাডেমি’ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিমানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

মেনন বলেন, ‘বাংলাদেশ সব দিক দিয়ে এগিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি এভিয়েশন সেক্টরেও এগিয়ে যাচ্ছে। অভ্যন্তরীণ চাহিদা পূরণের পাশাপাশি দেশীয় প্রতিষ্ঠানগুলো আন্তর্জাতিকভাবেও ফ্লাইট পরিচালনা করছে। আমাদের দেশে এভিয়েশন সেক্টরে অনেক লোকবল প্রয়োজন। তবে প্রয়োজনীয় ট্রেনিং ফ্যাসিলিটি অপ্রতুল। বর্তমানে এভিয়েশনে প্রচুর লোকবল প্রয়োজন।’

‘অরেঞ্জ উইং এভিয়েশন একাডেমি’র সত্ত্বাধিকারী মাহফুজুল আলম মাহফুজকে ধন্যবাদ জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশি এক তরুণ উদ্যোক্তা যুক্তরাষ্ট্রে এভিয়েশন ট্রেনিং সেন্টার খুলেছে এটা খুবই প্রশংসনীয়। তিনি দেশপ্রেমের টানে এদেশেও অফিস খুলেছেন। আমি আশা করি তারা কম খরছে প্রশিক্ষণ দিতে পারবে। আমি তাকে ধন্যবাদ জানাই। তাদের জন্য সবসময় আমাদের সহোযোগিতা থাকবে।’

অনুষ্ঠানের শুরুতে ‘অরেঞ্জ উইং এভিয়েশন একাডেমি’ ও মাহফুজুল আলম মাহফুজ সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয়। সেখানে জানানো হয় প্রথম কোনো বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত আমেরিকান নাগরিক আমেরিকার মাটিতে খুলেছে পাইলট গড়ার কারখানা।

মাহফুজুল আলম মাহফুজ ২০১০ সালে বাংলাদেশ বিমানবাহিনী থেকে পদত্যাগ করে সস্ত্রীক পাড়ি জমান আমেরিকার ফ্লোরিডায়। ২০১৭ সালে এসে মাত্র সাত বছরের মাথায় খুলে বসেন নিজের স্বপ্নের বাস্তবতা। তার গড়া এই প্রতিষ্ঠানের নাম ‘অরেঞ্জ উইং এভিয়েশন একাডেমি।’

আটলান্টিকের পাদদেশে ফ্লোরিডার পামপানু বিচে যুগোপযোগী ও আধুনিক পাইলট গড়ার প্রত্যয়ে এই প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলেছেন তিনি।

প্রতিষ্ঠানের সত্ত্বাধিকারী মাহফুজ জানান, এই পাইলট একাডেমি বাংলাদেশের পাইলট ট্রেইনারদের জন্য একটি ভিন্ন সুযোগ খুলে দেবে। এখানে শিক্ষার্থীরা অনেক কম খরচে কমার্শিয়াল পাইলট ট্রেনিং কোর্স শেষ করতে পারবে। এর পাশাপাশি পূর্ণ এই কোর্সটি শেষ করতে এক তৃতীয়াংশ কম সময় লাগবে এবং গ্রাউন্ড ক্লাস ছাড়াও মোট ২৯০ ঘণ্টা ফ্লাইং আওয়ার্স থাকবে।

এখানে কমার্শিয়াল পাইলট কোর্স ছাড়াও আরও পাঁচটি কোর্স থাকছে। সেগুলো হলো- প্রাইভেট পাইলট কোর্স, ইনস্ট্রুমেন্টাল রেটিং, সার্টিফাইড ফ্লাইট ইন্সট্রাক্টর, সার্টিফাইড ফ্লাইট ইন্সট্রুমেন্ট ইন্সট্রাক্টর ও মাল্টি ইঞ্জিন ইন্সট্রাক্টর। প্রশিক্ষণের জন্য একাডেমিতে অন্তর্ভুক্ত থাকছে অত্যাধুনিক সাপোর্ট ফ্লাইং কিটসহ আধুনিক সব এয়ারক্র্যাফট।

একাডেমিতে প্রাথমিকভাবে চার ধরনের ট্রেইনিং এয়ারক্র্যাফট যুক্ত রয়েছে। এগুলো হলো- সেসনা-১৫২, সেসনা-১৭২, পাইপার পিএ-৩৪ সেসনা ও পাইপার এ্যারো। এছাড়াও আধুনিক ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রফেশনাল কমার্শিয়াল পাইলট পেশায় যুক্ত হতে প্রশিক্ষণে সিংগেল ও ডবল ইঞ্জিন এয়ারক্র্যাফট যুক্ত হয়েছে বলে জানান মাহফুজ।

এ সময় মাহফুজুল আলম বাংলাদেশ থেকে প্রথম ১০ জন প্রশিক্ষণার্থীর জন্য বিমান টিকেটে দেয়ার ঘোষণা দেন।
প্রতিষ্ঠানটি বাংলাদেশ থেকে শিক্ষার্থীদের আমেরিকায় তাদের প্রশিক্ষণ ইনিস্টিটিউটে প্রশিক্ষণ দেবে। একাডেমিক ওয়েবসাইট www.orangewingsaviation.com এ কোর্সসহ সকল তথ্য পাওয়া যাবে।

সাবেক এআইজিপি মালেক খসরুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, রুপালি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মনজুরুর হোসেন, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান আখতারুজ্জামান কবির, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের সাবেক চেয়ারম্যান হেমায়েত উদ্দিন তালুকদার প্রমুখ। আরও উপস্থিত ছিলেন, ‘অরেঞ্জ উইং এভিয়েশন একাডেমি’র চেয়ারম্যান আমির হোসেন, কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় নেতা শেখ শওকত হোসেন।

সোনালীনিউজ/জেএ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue