রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

শিশু নির্যাতনে সঙ্গে সঙ্গে মামলার নির্দেশ

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৪ পিএম

শিশু নির্যাতনে সঙ্গে সঙ্গে মামলার নির্দেশ

সোনালীনিউজ ডেস্ক

দেশে শিশু নির্যাতন বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষাপটে কোথাও শিশু নির্যাতনের অভিযোগ এলে সঙ্গে সঙ্গে মামলা নিয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

এর ব্যত্যয় ঘটলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও সতর্ক করা হয়েছে।

শিশু নির্যাতন ও হত্যার কয়েকটি ঘটনায় দেশব্যাপী আলোচনার মধ্যে মঙ্গলবার আটটি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের নিয়ে সভা করে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়।

বুধবার মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “শিশু নির্যাতনের ঘটনা যেখানে ঘটুক না কেন মামলা দায়েরের ক্ষেত্রে নির্যাতিত ব্যক্তি বা পরিবারকে অহেতুক হয়রানি না করে মামলা গ্রহণপূর্বক আনীত অভিযোগের বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ করার নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

“এর ব্যত্যয় হলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করার বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছে।”

প্রতিমাসে অনুষ্ঠিত আইনশৃঙ্খলা সভায় জেলা প্রশাসক ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের নারী ও শিশু নির্যাতন এবং হত্যা রোধে সচেতনতা বাড়াতে আলোচনা করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, প্রতিটি এলাকায় নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, এনজিও কর্মী এবং কমিউনিটি ও গ্রাম পুলিশদের নারী ও শিশু নির্যাতন ও হত্যা বন্ধে সচেতনতা বাড়াতে বিভিন্ন কার্যক্রম নিয়ে তা মন্ত্রণালয়কে অবগত করতে হবে।

“শিশুশ্রম রোধে স্পেশাল ডাইভ দিতে হবে। বিষয়টি আইনি বাধ্যবাধকতার আওতায় আনতে একটি ফ্রেমওয়ার্ক দাঁড় করতে হবে।”

পারিবারিক সৌহার্দ্য সৃষ্টির পাশাপাশি সামাজিক মূল্যবোধ বৃদ্ধি এবং পারিবারিক নির্যাতন রোধ নিয়ে জুমার নামাজের আগে আলোচনার জন্য ইমামদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিবের নেতৃত্বে শিশু নির্যাতনের বিষয়ে নিয়মিত মনিটরিং কমিটি গঠন করতে হবে।

শিশু নির্যাতন ও হত্যা রোধে গণমাধ্যমের প্রতি আরও উদ্যোগী ভূমিকা পালনের আহ্বান জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ নিয়ে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করতে হবে। এছাড়া শিশু হত্যাসহ যে কোনো নৃশংস ঘটনায় দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিতের বিষয়েও সভায় সিদ্ধান্ত হয়।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাছিমা বেগমের সভাপতিত্বে সভায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মোছা. হাজেরা খাতুন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব (প্রেস) মোহাম্মদ নূরুল ইসলাম, আইন মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম-সচিব উম্মে কুলসুম এবং শ্রম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব জাহানারা বেগম উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব সালমা জাহান, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মো. শাহজাহান আলী, স্থানীয় সরকার বিভাগের যুগ্ম-সচিব মো. রেজাউল করিম, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হোসনে আরা এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব বিকাশ কিশোর দাসও সভায় অংশ নেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩