সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

সবার আগে সুপার লিগে দোলেশ্বর

স্পোর্টস রিপোর্টার | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৪:০৫ পিএম

সবার আগে সুপার লিগে দোলেশ্বর

সাজেদুল ইসলামকে সোজা ব্যাটে বাউন্ডারিতে পাঠালেন ফরহাদ রেজা। ড্রেসিং রুমের সামনে উল্লাসে মাতল দলের অন্য সব ক্রিকেটার-কর্মকর্তারা। গ্যালারিতে থাকা গুটিকয় সমর্থকের চিৎকারে প্রকম্পিত চারপাশ। শুধু ম্যাচ জয় নয়, প্রাইম দোলেশ্বরের এই উচ্ছ্বাস সুপার লিগ নিশ্চিত করে ফেলার।

মিরপুর শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে ক্যাচ মিসের মহড়ায় ম্যাচ হেরেছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। ২১৪ রান তাড়ায় ৫ উইকেটে জিতেছে দোলেশ্বর। গতবারের রানার্সআপ দলটি সবার আগে নিশ্চিত করল ছয় দলের সুপার লিগ। ১০ ম্যাচে পয়েন্ট ১৪। দোলেশ্বরের জয়ের নায়ক ভারতীয় অলরাউন্ডার অশোক মেনারিয়া। বাঁহাতি স্পিনে ৩ উইকেট নেওয়ার পর করেছেন ম্যাচ জেতানো অপরাজিত ৫৯। গুরুত্বপূর্ণ দুটি ইনিংসে অবদান রেখেছেন নাসির হোসেন ও রনি তালুকদার। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য ছিল কঠিন। পেসারদের জন্য ছিল সহায়তা। স্পিনাররাও পেয়েছেন বাড়তি বাউন্স। খানিকটা থেমেও এসেছে বল। শুরু থেকেই ধুঁকেছে গাজী। লিগের সর্বোচ্চ স্কোরার শামসুর রহমান ফিরে যান ৭ রান করে। আরেক ওপেনার এনামুল ধুঁকতে ধুঁকতে ১৮ করেছেন ৫৬ বলে। মেহেদি হাসান (২৪) ও গুরকিরাত সিং (২১) আউট হয়েছেন থিতু হয়ে। ইনিংসের অর্ধেক যখন শেষ, গাজীর রান মোটে ৩ উইকেটে ৭৪! অধিনায়ক অলক কাপালি এলবিডব্লিউ হন বাঁহাতি স্পিনার রাহাতুল ফেরদৌসের ফুল টসে। প্রমোশন পেয়ে পাঁচে নেমে ইলিয়াস সানি করেছেন ৪৬। যথারীতি নিচের দিকে খানিকটা অবদান রেখেছেন ফারুক হোসেন (১৭)।

তবে গাজীর রানকে দুইশর ওপারে নিয়ে যায় মোহাম্মদ শরীফের ইনিংসটি। নয়ে নেমে ৪টি চার ও ২ ছক্কায় ২৫ বলে অপরাজিত ৪৩ করেন অভিজ্ঞ এই ক্রিকেটার।
কঠিন উইকেটে ২১৪ রান তাড়ায় দোলেশ্বরের শুরুটা ছিল মন্থর। গাজীর নতুন বলের দুই বোলার শরীফ ও সাজেদুল দারুণ বোলিংয়ে আটকে রাখেন দোলেশ্বরকে। ৭ ওভারে ১২ রানের উদ্বোধনী জুটির পর সাজেদুলের বাউন্সারে ফিরে যান ইমতিয়াজ হোসেন (২৬ বলে ৪)। বেশ খানিকটা উল্টো দিয়ে গিয়ে শেষ মুহর্তে পেছন দিকেই ডাইভ দিয়ে দুর্দান্ত ক্যাচ নেন উইকেটকিপার এনামুল হক। আরেক ওপেনার রবি ও তিনে নামা রকিবুল বড় কিছু করতে পারেননি অনেকক্ষণ উইকেটে থেকেও। দোলেশ্বরে রানের চাকা গতি পায় নাসির ও মেনারিয়ার ব্যাটে। চতুর্থ উইকেটে ৬৮ বলে ৬৪ রানের জুটি গড়েন দুজন। দ্বিতীয় স্পেলে ফিরে নাসিরকে (৪০) বোল্ড করে গাজীকে খানিকটা আশা দেখিয়েছিলেন শরীফ। কিন্তু মেনারিয়া ও রনির ৭০ রানের জুটিতে জয়ের কাছে চলে যায় দোলেশ্বর।

গত ঢাকা লিগের সর্বোচ্চ স্কোরার রনি এবার ছিলেন ভীষণ বিবর্ণ। এদিনই প্রথম খেলতে পারলেন নিজের মত। ৪৫ বলে করছেন ৪৩, লং অন দিয়ে দারুণ দুটি ছক্কা মেরেছেন সাজেদুলকে। ১৩ ও ২০ রানে অবশ্য দুবার জীবন পেয়েছেন রনি। গাজী ক্যাচ ছেড়েছে আরও ৩টি। শামসুর একাই ছেড়েছেন দুটি ক্যাচ। মাঝারি স্কোর নিয়ে ক্যাচ ছাড়লে কী আর ম্যাচ ধরা দেয়। ৬১ বলে অপরাজিত ৫৯ রানে দোলেশ্বরকে সুপার লিগ আনন্দে দুলিয়েছেন মেনারিয়া।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স: ৫০ ওভারে ২১৩/৮ (এনামুল ১৮, শামসুর ৭, মেহেদি ২৪, গুরকিরাত ২১, সানি ৪৬, অলক ৯, ফারুক ১৭, ফরহাদ ২৩, শরীফ ৩৯*, সাজেদুল ০*; জিয়াউর ০/৩, রেজা ২/৫৩, আল আমিন ০/৫৪, মেনারিয়া ৩/২৯, সানজামুল ০/৩৪, নাসির ০/২২, রাহাতুল ১/১৬)।

প্রাইম দোলেশ্বর: ৪৯ ওভারে ২১৭/৫ (ইমতিয়াজ ৪, রবি ৩২, রকিবুল ২১, নাসির ৪০, মেনারিয়া ৫৯*, রনি ৪৩, রেজা ১১*; সাজেদুল ১/৪৩, শরীফ ১/২৩, অলক ১/৩৪, ফঅরুক ০/১১, মেহেদি ১/৩৬, গুরকিরাত ০/৩৫, শাদ ০/২৬)।
ফল: প্রাইম দোলেশ্বর ৫ উইকেটে জয়ী
ম্যান অব দা ম্যাচ: অশোক মেনারিয়া

সোনালীনিউজ/ঢাকা/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
সোমবার, ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩