শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩

সরকারি কৃচ্ছ্রতার কোপ প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের মায়

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৩৪ পিএম

সরকারি কৃচ্ছ্রতার কোপ প্রধানমন্ত্রী ক্যামেরনের মায়

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সরকারি কৃচ্ছ্রতার অংশ হিসেবে যুক্তরাজ্য সরকার চলতি মাসে প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরনের মা মেরি ‘স্বেচ্ছাসেবা’ দিতেন এমন একটি শিশুসদনও বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে।
পশ্চিম বার্কশায়ার কাউন্সিল চলতি মাসের শেষে ওই শিশুসদনটি বন্ধের ঘোষণা দেয় বলে ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেন্ডেন্টের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।
বয়স পাঁচ বছরের কম এমন ৬৭০টি শিশুকে খাওয়ানোর পাশাপাশি সদনটিতে শিশু ও তার পরিবারের প্রাথমিক চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যকর খাদ্যভ্যাস সম্পর্কে বিনামূল্যে পরামর্শ দেওয়া হত।
এটি বন্ধ হলে সরকারের খরচ অন্তত তিন লাখ পাউন্ড ‘কমে আসবে’ বলে জানিয়েছে ইন্ডিপেন্ডেন্ট।
শিশুসদন বন্ধের সিদ্ধান্তে ‘গভীর দুঃখ’ প্রকাশ করেছেন মেরি ক্যামেরন।
এটা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে শুনে আমি খুব দুঃখ পেয়েছি। যদি এটা চালানোর মতো অর্থ না থাকে, তাহলে আর কী করা যাবে, যুক্তরাজ্যের দৈনিক ডেইলি মিররকে বলেন তিনি।
৮১ বছর বয়সী মেরি বলেন, আমি সেখানকার মুহূর্তগুলো উপভোগ করেছি, বছরখানেক ধরে সেখানে যাচ্ছিলাম, মাঝে মাঝে আমি আমার পরিবারকেও সেখানে নিয়ে যেতাম।
আমি আসলে জানি না কী হবে? মাত্রই এটি বন্ধ হয়ে যাওয়ার কথা শুনতে পেলাম. আমার আর স্বেচ্ছাসেবা দেওয়া হবে না, হয়ত কেউই আর স্বেচ্ছাসেবা দেবে না।
শিশুসদনটি বন্ধ নিয়ে ছেলে ক্যামেরনের সঙ্গে ‘কথা হয়নি’ বলেও জানান মেরি। আমি এসব বিষয়ে হস্তক্ষেপ করি না। এরপরই তিনি মিররের সাংবাদিকের কাছে শিশুসদনটি চালু করতে সাহায্য চান।
তুমি যদি কিছু করতে পারো তাহলে বেশ হয়...যদি এটা চালু হয়, তাহলে আমি অবশ্যই সেখানে সেবা দিতে যাব।
মেরি ক্যামেরন এর আগে তার ছেলের পার্লামেন্টারি এলাকা অক্সফোর্ডশায়ারের হুইটনিতে থাকা ৪৪টি শিশুসদন বন্ধের পরিকল্পনার বিরুদ্ধে আবেদনে স্বাক্ষর করেছিলেন।
চলতি সপ্তাহে এক ঘোষণায় পশ্চিম বার্কশায়ার কাউন্সিল ক্যামেরনের মায়েরটাসহ শিভেলি ও অক্সফোর্ডশায়ারের মোট চারটি শিশুসদন বন্ধের ঘোষণা দেয়।
ঘোষণায় বলা হয়, সম্ভবত আমরা আর সব ধরনের সেবা দিতে পারছি না, যা এতদিন ধরে দিয়ে আসছি। অনেক সেবা বন্ধ করে দেয়া হবে; কিছু অব্যাহত থাকবে, যদিও সেগুলো বিনামূল্যে দেওয়া হবে না।
শিশুসদন বন্ধ হয়ে গেলেও শিশুদের সেবা স্থানীয় অন্যান্য সেবাকেন্দ্রে পাওয়া যাবে বলেও ঘোষণায় বলা হয়।
তবে শিশুসদন বন্ধের ঘোষণায় অনেকেই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।
খুব লজ্জাজনক ব্যাপার হবে। অনেক পরিবার বিশেষ করে হার্মিটেজের সেনা ছাউনির অনেকেই এটা ব্যবহার করতেন। আমি ঠিক জানি না, এখন কী হবে, বলেন দুই সন্তানের মা গায়েল উইলিয়ামস। তিনি নিজেও হার্মিটেজের আশপাশেই থাকেন।
শিশুসদন বন্ধের প্রতিবাদ জানিয়েছেন ছায়া শিক্ষামন্ত্রী লুসি পাওয়েলও।
বাবা-মা এবং পরিবারকে নবজাতক জন্মের প্রথম কয়েক সপ্তাহ ও মাস এসব সদনের মাধ্যমে চমৎকার সেবা দেওয়া হত উল্লেখ করে লুসি বলেন, ক্যামেরন নিজেও বারবার বলতেন পিতৃত্ব ও পরিবার তার কাছে কতখানি গুরুত্বপূর্ণ, শিশুসদন বন্ধের নীতি নিয়ে এখন কি তিনি তার স্বপ্ন নিয়ে উড়ে বেড়াবেন?

সোনালীনিউজ/এমটিআই

add-sm
Sonali Tissue
শুক্রবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩