বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫

সাহসী তামিমকে হাটু গেড়ে স্যালুট শ্রীলঙ্কান অধিনায়কের

ক্রীড়া ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রবিবার ০৭:৩৬ পিএম

সাহসী তামিমকে হাটু গেড়ে স্যালুট শ্রীলঙ্কান অধিনায়কের

ঢাকা: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এশিয়া কাপের উদ্বোধনী ম্যাচে ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই বাঁ-হাতে কব্জিতে ব্যাথা পেয়ে মাঠ ছাড়েন বাংলাদেশের ওপেনার তামিম ইকবাল। এরপর ড্রেসিংরুম থেকে সোজা হাসপাতালে। অতঃপর এক্সরে রিপোর্ট অনুযায়ী অন্তত ছয় সপ্তাহের জন্য মাঠে বাহিরে চলে যান দেশসেরা এই ওপেনার। এরইমধ্যে খবর ছড়িয়ে পড়ে  তামিম ইকবালের এশিয়া কাপই শেষ!

এই খবর পৌঁছে যায় সতীর্থদের কাছে। তবে টেলএন্ডারদের নিয়ে লড়াই করে সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন মুশফিকুর রহীম। মুশফিকের শুধু একজন সঙ্গী দরকার, যাঁর শুধু অন্য প্রান্তে দাঁড়িয়ে থাকলেই চলবে। বাকিটা মুশফিকই করে নেবেন। কিন্তু ৪৭তম ওভারের এক বল বাকি থাকতে সুরঙ্গা লাকমলের বলে মোস্তাফিজুর রহমান ফিরে যেতে বাংলাদেশের স্কোর হয়ে গেল ৯ উইকেটে ২২৯।

বাংলাদেশের স্কোর ওখানেই থেমে যেতে পারত। থামতে দেননি তামিম। দুবাই ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে সবাইকে অবাক করে যে দৃশ্যের অবতারণা হলো, সেটি শুধু বাংলাদেশ ক্রিকেট কেন, ক্রিকেট ইতিহাসের অন্যতম সুন্দর দৃশ্য। সাহসের অনন্য উদাহরণ হয়ে ১১ নম্বর ব্যাটসম্যান হিসেবে তামিম নামলেন।

যার বলে চোট পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল সেই লাকমলকে সামলেই মুশফিককে সঙ্গ দিয়ে গিয়েছেন তামিম। এ এক অন্যরকম দৃশ্য। এরপর এক হাতেই ব্যাট ধরে লাকমলের সেই ওভারের শেষ বলটা যখন ঠেকালেন, নৈতিক জয় তো তখনই নিশ্চিত!

তামিমের এই সাহস, দেশের জন্য নিজেকে নিংড়ে দেওয়ার মানসিকতা এখন ক্রিকেট ইতিহাসের রূপকথাগুলোরই অংশ। তবে বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে এমন ঘটনা নজিরবিহীন। কারণ আঙুল ভেঙে যাওয়ার পর এক হাতে ব্যাটিং করেছেন তামিম ইকবাল। একটু উনিশ বিশ হলে যে ক্যারিয়ারই শেষ হয়ে যেত তার। ইনিংস শেষ হলে শ্রীলঙ্কার ক্যাপ্টেন অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস তামিমকে হাটু গেড়ে পায়ে হাত দিয়ে স্যালুট জানান। এই সম্মান তামিমকে সামনে এগোতে আরও প্রেরণা জোগাবে।  

সোনালীনিউজ/ঢাকা/জেডআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue