রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩

১৬ বছরেও প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত হয়নি গৌরনদী ফায়ার স

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ১১:৩৭ এএম

১৬ বছরেও প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত হয়নি গৌরনদী ফায়ার স

গৌরনদী (বরিশাল) প্রতিনিধি:
প্রতিষ্ঠার দীর্ঘ ১৬ বছর পরে আজো দ্বিতীয় থেকে প্রথম শ্রেণীতে উন্নীত হয়নি জেলার উত্তর জনপদের গৌরনদী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটি। বরিশাল বিভাগের সবচেয়ে জনগুরুত্বপূর্ণ গৌরনদী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মীরা প্রতিটি দুর্ঘটনায় সাহসী ভূমিকা পালনের পাশাপাশি কৃতিত্ব অর্জন করে আসলেও এখনও এ স্টেশনের নাম বুক রিপোর্টে অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি। 
সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জনগুরুত্বপূর্ণ এ ফায়ার স্টেশনটি নানা সমস্যায় জর্জরিত। এখানে নেই কোন রেকার ভ্যান ও পানির রিজার্ভার। রয়েছে জনবল সঙ্কট। স্টেশনের কর্মীরা জানান, এখনও তারা আগুন নেভানোর কাজে বহু আগের পুরনো পানিবাহী গাড়ি, পাম্প মেশিন ও দ্বিতীয় কলগাড়ি ব্যবহার করছেন। এ কারণে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের কর্মীদের এতদাঞ্চলের দুর্ঘটনাকবলিত মানুষের সমস্যা লাঘবে হিমশিম খেতে হচ্ছে। স্টেশন মাস্টার অধির চন্দ  হাওলাদার জানান, গৌরনদী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে মাত্র ১৮’শ লিটারের একটি পানিবাহী গাড়ি রয়েছে। আগুন নেভানোর জন্য পুরনো পাম্প মেশিন আছে মাত্র দুটি। এখানে নেই পানির রিজার্ভার। কোথাও আগুন লাগার খবর পেলে দুরবর্তী এলাকা থেকে পানি সরবরাহ করতে গিয়ে তাদের অযথা সময় নষ্ট করতে হচ্ছে। এছাড়া পাম্প মেশিন ও পাইপসহ বিভিন্ন মালামাল সরবরাহের কাজে ব্যবহৃত দ্বিতীয় কল গাড়িটিও বহু পুরনো। অনেক সময় প্রয়োজনে পাম্প মেশিনে পানি ওঠে না। এ কারণে কোথাও আগুন লাগলে কর্মীদের চরম সমস্যার সম্মুখীত হতে হচ্ছে।
তিনি আরও জানান, জনবল সঙ্কট নিরসনের পাশাপাশি অন্যসব সমস্যা লাঘবে এখানে ৬ হাজার ৫’শ লিটারের একটি পানিবাহী গাড়ি, একটি নতুন টোয়িং ভেহিক্যাল (টিভি গাড়ি) গাড়ি ও দুটি নতুন পাম্প মেশিনের প্রয়োজন জরুরি হয়ে পড়েছে। স্থানীয় সচেতন বাসিন্দারা জনগুরুত্বপূর্ণ গৌরনদী ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের উল্লেখিত সমস্যা নিরসনসহ জরুরি ভিত্তিতে দ্বিতীয় থেকে প্রথম শ্রেণিতে উন্নীত করার জন্য প্রধানমন্ত্রী ও স্থানীয় সংসদ সদস্যসহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/সু

add-sm
Sonali Tissue
রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর, ২০১৬, ২০ অগ্রাহায়ণ ১৪২৩