বুধবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭, ৫ আশ্বিন ১৪২৪

‘ভয়ঙ্কর’ জিকা ভাইরাস

আপডেট: ১৬ জুন ২০১৬, বৃহস্পতিবার ০৩:৫৯ পিএম

‘ভয়ঙ্কর’ জিকা ভাইরাস

সোনালীনিউজ ডেস্ক

জিকা ভাইরাসকে যতটা ভীতিকর ভাবা হয়েছিল, এটি তার চেয়েও বেশি ভয়ঙ্কর বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ সংস্থা সিডিসি।
যুক্তরাষ্ট্রে এর প্রভাব কল্পনাতীত হবে বলে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন শীর্ষস্থানীয় স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

‘ইউএস সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ (সিডিসি) ’র ডা. অ্যান স্কুচাট সোমবার হোয়াইট হাউজে এক ব্রিফিংয়ে বলেন, “ জিকা ভাইরাস নিয়ে প্রথমিকভাবে আমরা যা ধারণা করেছি এটি তার তুলনায় কিছুটা ভয়ঙ্কর বলেই মনে হচ্ছে।”

জন্মগত ত্রুটি শিশু জন্মের জন্য দায় জিকা ভাইরাস দ্রুত ল্যাটিন আমেরিকা এবং ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে ছড়িয়ে পড়ছে বলে জানান স্কুচাট। তিনি বলেন, “যে মশা জিকা ভাইরাস বহন করে সেটিও ধারণার চেয়ে অনেক বেশি রাজ্যে ছড়িয়ে পড়েছে।”

প্রায় এক বছর আগে ব্রাজিলে জিকা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব হয়। পরে তা আমেরিকা মহাদেশের অন্যান্য দেশেও ছড়িয়ে পড়ে।

এখন পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রে ৩৪৬ জন জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে সিডিসি। যাদের সবাই ভ্রমণে গিয়ে এই ভাইরাসের সংস্পর্শে আসে।

বছরের শুরুতে জিকা ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা কংগ্রেসে ১০৯ কোটি মার্কিন ডলারের জরুরি তহবিল গঠনের প্রস্তাব দেন।
এরই মধ্যে ইবোলা ভাইরাস তহবিলে ৫৮ কোটি ৯০ লাখ মার্কিন ডলার জমা পড়েছে, যা খরচ করা শুরু হয়েছে।

সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন