বুধবার, ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৭ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

অতিরিক্ত যাত্রীর ভারেই সেতু ভেঙে ট্রেন দুর্ঘটনা!

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ২৪ জুন ২০১৯, সোমবার ১০:৪৬ এএম

অতিরিক্ত যাত্রীর ভারেই সেতু ভেঙে ট্রেন দুর্ঘটনা!

মৌলভীবাজার: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সরাইলের শাহবাজপুরে বেইলি ব্রিজ স্থাপনের কাজ চলায় ঢাকা-সিলেট বাস চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে ট্রেনের উপর চাপ এখন বেশি। আর এই কারণে অতিরিক্ত যাত্রীর কারণেই ট্রেনটির বগিগুলো লাইনচ্যুত হয় বলে রেলযাত্রীদের ধারণা।

সিলেট থেকে ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন রবিবার রাত ১১.৫০  মিনিটে কুলাউড়ার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় ব্রিজ ভেঙে লাইনচ্যুত হয়। এই দুর্ঘটনায় ট্রেনের পেছনের ৫টি বগি ছিটকে নিচের জমিতে পড়েছে।

আহতদের কুলাউড়া, মৌলভীবাজার সদর ও সিলেট ওসমানী হাসপাতালে নেওয়া হচ্ছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা রয়েছেন।

এদিকে রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন বলেছেন, ট্রেন দুর্ঘটনা খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করেছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

সোমবার (২৪ জুন) সকালে মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গিয়ে এ তথ্য জানান তিনি।

সচিব মো. মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী (যান্ত্রিক) মো. মিজানুর রহমানকে প্রধান করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।

অন্যদিকে বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় উদ্ধার কাজে সহায়তা, যাত্রীদের মালামাল রক্ষা ও ভীড় সামলাতে পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। ট্রেন দুর্ঘটনার পর সেখানে চোরের উপদ্রব বেড়ে গেছে। উদ্ধারের বদলে যাত্রীদের মালামাল নিয়ে সটকে পড়ছে সুযোগ সন্ধানী কিছু ব্যক্তি। তাদের হাত থেকে রক্ষা পেতেই পুলিশের পাশাপাশি বিজিবি মোতায়েন করা হয়।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় খালে ছিটকে পড়া ট্রেনের বগি উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করেছে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা। কুলাউড়ার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় ট্রেনের ৫টি বগি লাইনচ্যুত হয়ে ছিটকে পড়েছে। এতে ৬ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে।

ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেস ট্রেন রোববার রাত ১১.৫০ মিনিটে কুলাউড়ার বরমচাল রেলক্রসিং এলাকায় ব্রিজ ভেঙে লাইনচ্যুত হয়ে ভয়াবহ এ দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। রাতে সিলেট স্টেশন থেকে যাত্রী নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্য ওই ট্রেনটি ছেড়ে ছিলো।

এ দুর্ঘটনার ফলে সিলেটের সঙ্গে সারাদেশের ট্রেন যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে। নদীতে ছিটকে পড়া বগি থেকে মানুষের আর্তনাদ ভেসে আসতে শুনেছেন বলে জানিয়েছেন একাধিক যাত্রী।

এদিকে জনতার ভিড় আর ফেসবুক লাইভের কারণে মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায় দুর্ঘটনা কবলিত ঢাকাগামী উপবন এক্সপ্রেসের উদ্ধারাভিযানে পুলিশ ও দমকল বাহিনীর সদস্যদের বেগ পেতে হচ্ছে।

ফেসবুক লাইভে এসে ঘটনাস্থল দেখাতে অতি উৎসাহীরা এমনভাবে জড়ো হচ্ছেন যে তাদের কারণে ব্যাহত হচ্ছে উদ্ধার কাজ।

দুর্ঘটনা এলাকা থেকে উৎসুক জনতাকে সরে যেতে মাইকিং করছে পুলিশ। সেই সঙ্গে ফেসবুক লাইভ বন্ধ করার আহ্বান জানাচ্ছেন তারা। যাতে যত দ্রুত সম্ভব যাত্রীদের উদ্ধার করা যায়।

কুলাউড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উয়ারদৌস হাসান বলেন, অতি উৎসাহী জনতা আর ফেসবুক লাইভের হিড়িকে উদ্ধার কাজে যথেষ্ঠ সমস্যা হচ্ছে দমকল বাহিনীর। হতাহতদের দ্রুত উদ্ধারে উৎসুক জনতাকে দুর্ঘটনা এলাকা ছেড়ে যাওয়ার অনুরোধ করছি।

প্রসঙ্গত রোববার রাত পৌনে ১২টার দিকে সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া আন্তঃনগর উপবন এক্সপ্রেস ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়ে। ট্রেনটির পাঁচটি বগি লাইনচ্যুত হয়ে খালে পড়ে যায় এবং একটি বগি উল্টে যায়।

এতে (এখন পর্যন্ত পাওয়া খবর) ঘটনাস্থলে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং অন্তত ২৫০ জন যাত্রী আহতে হয়েছেন। এদের মধ্যে অনেকের অবস্থা গুরুতর।

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার বরমচাল স্টেশন থেকে ২০০ মিটার দূরে কালামিয়া বাজার সংলগ্ন একটি ব্রিজে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় বাসিন্দা বরমচাল স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক হুমায়ুন কবির জানান- কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশন সংলগ্ন একটি ব্রিজে হঠাৎ ট্রেনের বগি লাইনচ্যুত হয়ে খালে পড়ে যায় এবং একটি বগি উল্টে যায়।

ট্রেনের যাত্রী ইয়াসিন আহমেদ জানান- কুলাউড়ার বরমচাল স্টেশন সংলগ্ন একটি ব্রিজে হঠাৎ লাইন ছিড়ে ট্রেনের ৫টি বগি খালে পড়ে যায় এবং একটি বগি উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং লাইনচ্যুত বগির যাত্রী ছাড়াও মারাত্মক ঝাঁকুনিতে অন্তত ২৫০ যাত্রী আহত হয়েছেন।

জানা গেছে, সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে ভারী যান চলাচল বন্ধ থাকায় ট্রেনের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েন ঢাকাগামী যাত্রীরা। ফলে ধারণক্ষমতার চেয়ে প্রচুর বেশি যাত্রী নিয়ে ট্রেনটি সিলেট থেকে ছেড়ে যায়।


সোনালীনিউজ/ঢাকা/আকন

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue