শনিবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯, ২৯ অগ্রাহায়ণ ১৪২৬

অবরুদ্ধ দিল্লি, পুলিশের নজিরবিহীন আন্দোলন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ০৬ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার ০৪:২৬ পিএম

অবরুদ্ধ দিল্লি, পুলিশের নজিরবিহীন আন্দোলন

ঢাকা: গেল শনিবার (২ নভেম্বর) দুপুরে তিসহাজারি আদালতে লক-আপের বাইরে থাকা প্রহরীদের সঙ্গে বিবাদে জড়ান আইনজীবীরা। যা অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই সংঘর্ষে পরিণত হয়। এতে ৮ আইনজীবীসহ ২০ পুলিশ সদস্য গুরুতর আহত হন। পরে আদালত চত্বরের বেশ কয়েকটি গাড়িতে আগুন লাগিয়ে দেয় উত্তেজিত আইনজীবীরা।

এদিকে, ভারতে আইনজীবীদের সঙ্গে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর চলমান বিবাদের জেরে রাজধানী নয়াদিল্লিতে অবস্থিত পুলিশ সদর দপ্তরের সামনে ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। খবর এনডিটিভি।

মঙ্গলবার (৫ নভেম্বর) সকাল থেকে শুরু হওয়া এই কর্মসূচিতে অংশ নেন বাহিনীর বিপুল সংখ্যক সদস্য। 

আর এ সময় বিভিন্ন রঙের প্ল্যাকার্ড হাতে নিয়ে তারা বিক্ষোভে শামিল হন।    

এর আগে গত শনিবার (২ নভেম্বর) দুপুরের ঘটনার সংঘর্ষের প্রেক্ষিতে গত সোমবার (৪ নভেম্বর) একদল আইনজীবীর বিরুদ্ধে আদালত চত্বরে পুলিশ সদস্যদের হেনস্তা এবং মারধরের অভিযোগ উঠে। যা নিয়ে পরিস্থিতি ক্রমশ অগ্নিগর্ভ হতে শুরু করে। তবে বিক্ষোভে অনড় পুলিশ সদস্যরা। 

মঙ্গলবারের বিক্ষোভে মূলত আইনজীবীদের বিরুদ্ধে ‘রক্ষকদের সুরক্ষা দেওয়া হোক’ বলে স্লোগান দিতে থাকেন দিল্লি পুলিশের এসব সদস্য। রাজ্যের পুলিশ কমিশনার অমূল্য পটনায়ক বলেছেন, ‘আপনাদের সকলের কাছে আর্জি রাখছি, দয়া করে শান্তি বজায় রাখুন। রাষ্ট্রের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ঠিক রাখা আমাদের দায়িত্ব।’

অন্যদিকে, বার কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার পক্ষ থেকে আর্জি জানিয়ে এরই মধ্যে আইনজীবীদের কাজে ফেরার আহ্বান জানানো হয়েছে। এমন পরিস্থিতিতে ক্ষমতাসীন বিজেপি সভাপতি ও দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ একদম শান্ত রয়েছেন। যে কারণে সুযোগ মতো তার এই নীরবতার তীব্র সমালোচনা করেছে প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসসহ জোটের অন্যরা।

সোনালীনিউজ/এমএএইচ

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue