রবিবার, ২০ অক্টোবর, ২০১৯, ৫ কার্তিক ১৪২৬

আজ পহেলা আষাঢ়, বর্ষার প্রথম দিন

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১৫ জুন ২০১৯, শনিবার ০২:১৯ পিএম

আজ পহেলা আষাঢ়, বর্ষার প্রথম দিন

(ছবি: সংগৃহীত)

ঢাকা : কখনো মেঘ, কখনো বিরামহীন ঝরো ঝরো ধারা। আবার কখনো ঝড়ের রুদ্র রূপ। প্রকৃতির এই নানা রং-রূপ-মাদকতা নিয়েই বর্ষা। আজ পহেলা আষাঢ় দিয়ে শুরু হচ্ছে এই ঋতু।

বাঙালি মননে সবচেয়ে বেশি রোমান্টিকতা-আধ্যাত্মিকতার সুর বেজেছে বর্ষায়। সাহিত্যজুড়ে তারই তো প্রতিফলন।

গ্রীষ্মের রুদ্র প্রকৃতির গ্লানি আর ঝরাকে ধুয়ে মুছে প্রশান্তি, স্নিগ্ধতা আর সবুজে ভরে তোলে বর্ষা। সেই টানেই তো এ জনপদের মানুষ ও অন্যান্য প্রাণীকেও চুম্বকের মতো টেনেছে এ ঋতুটি।

বর্ষা বাঙালি জীবনে নতুনের আবাহন। সবুজের সমারোহে, মাটিতে নতুন পলির আস্তরণে আনে জীবনেরই বারতা। সুজলা, সুফলা, শস্য-শ্যামলা বাঙলা মায়ের নবজন্ম এই বর্ষাতেই। সারা বছরের খাদ্য-শস্য-বীজের উন্মেষ তো ঘটবে বর্ষার ফেলে যাওয়া অফুরন্ত সম্ভাবনার পলিমাটি থেকে।

বৃষ্টির স্নিগ্ধ প্রলেপে প্রকৃতিকে সঞ্জীবিত করতে আসে বর্ষা। নগরবাসীও যেন সঞ্জীবিত হয় বর্ষার বৃষ্টিধারায়।

শনিবার (১৫ জুন) ভোর থেকে রাজধানীর আকাশ ছিল কালো মেঘে ঢাকা। সকাল সাড়ের ৭টার কিছু পরেই বৃষ্টি নামে। আষাঢ়ের প্রথম দিনের বৃষ্টিপাত দীর্ঘায়িত না হলেও গত কয়েক দিন গরমে শীতল পরশ দিয়ে গেছে। তাপদাহে অতিষ্ঠ নগরবাসী কিছুটা স্বস্তি পেয়েছেন।

আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের অধিকাংশ জায়গায়, রংপুর, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং খুলনা ও রাজশাহী বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রধসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারী থেকে ভারী বর্ষণ হতে পারে।

এদিকে, রাজশাহী, রংপুর ও খুলনা বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপ প্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং কিছুকিছু এলাকা থেকে তা প্রশমিত হতে পারে।

সোনালীনিউজ/এমটিআই

মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন

Get it on google play Get it on apple store
Sonali Tissue