বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৪ আশ্বিন ১৪২৬

আত্মহত্যা করতে চায় দেশের ৬৫ লাখ মানুষ!

নিজস্ব প্রতিবেদক | সোনালীনিউজ ডটকম
আপডেট: ১১ অক্টোবর ২০১৮, বৃহস্পতিবার ০৮:১৩ পিএম

আত্মহত্যা করতে চায় দেশের ৬৫ লাখ মানুষ!

ঢাকা : দেশের ৬৫ লাখ মানুষ আত্মহত্যা করতে চায়। এদের বেশিরভাগই অল্প বয়সী। যার মধ্যে ৮৯ শতাংশই রয়েছে নারী। এ কথা বলেছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞরা। তারা বলেন, বাংলাদেশের ৬৫ লাখ মানুষ আত্মহত্যার ঝুঁকিতে আছে, যাদের বেশিরভাগই অল্প বয়সী এবং প্রায় ৮৯ শতাংশই নারী।

বৃহস্পতিবার (১১ অক্টোবর) রাজধানীর জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সহযোগিতায় আয়োজিত এক কর্মশালায় বক্তারা এ তথ্য জানান।

কর্মশালায় জানানো হয়, বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে ১জন মানুষ আত্মহত্যা করে। আর প্রতিদিন আত্মহত্যার চেষ্টা করেন ৬০ হাজার মানুষ। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে গড়ে প্রতিদিন আত্মহত্যা করে ২৮ জন। বেশিরভাগের বয়স ২১-৩০ বছরের মধ্যে এবং এদের অধিকাংশই নারী।

কর্মশালায় অন্যানের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাতীয় মানসিক স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক ডা. মো. আবদুল মুহিত কামাল, সহযোগী অধ্যাপক ডা. হেলাল উদ্দিন আহমেদ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের মনোরোগ বিভাগের অধ্যাপক ডা. ঝুনু শামসুন নাহার, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার বাংলাদেশ প্রতিনিধি হাসিনা মমতাজসহ আরও অনেকে।

বক্তারা বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে অন্যান্য রোগকে ছাপিয়ে মানসিক রোগ প্রথম স্থান দখল করে নেবে। আর মানসিক রোগ যতো বৃদ্ধি পাবে আত্মহত্যার প্রবণতাও ততো বাড়তে থাকবে। তাই এখন থেকেই আমাদের সচেতন হতে হবে।

তারা বলেন, বাংলাদেশে যৌতুক ও পারিবারিক নির্যাতন, দাম্পত্য কলহ, সম্পর্কের জটিলতা (পারিবারিক, প্রেম, বিবাহবহির্ভূত) উত্যক্তকরণ ও প্ররোচিত আত্মহত্যা, অনাকাংক্ষিত গর্ভধারণ, লোকলজ্জার ভয়, আর্থিক সংকট, প্রেম ও পরীক্ষায় ব্যর্থতা ও আত্মহত্যার উপকরণের সহজপ্রাপ্যতাসহ বিভিন্ন করণে আত্মহত্যার ঘটনা বেশি ঘটে থাকে।

এক্ষেত্রে সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি, আত্মহত্যার উপকরণের সহজপ্রাপ্তি হ্রাস, ঝুঁকিপূর্ণ ব্যক্তি ও গোষ্ঠির প্রতি বিশেষ সহায়তা, সামাজিক বন্ধন দৃঢকরণ নৈতিক শিক্ষা ও ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলার পরামর্শ দেন তারা।

সোনালীনিউজ/এমটিআই